বুধবার, ২১শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ৮ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

উলিপুর-রাজারহাট সড়কে সামান্য বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতা

news-image

শাহনাজ পারভীন কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি : উলিপুর-রাজারহাট সড়কে সামান্য বৃষ্টি হলেই জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। প্রায় ৮ কোটি টাকা ব্যয়ে সড়ক সংস্কার করা হলেও তৈরি করা হয়নি কোন ড্রেনেজ ব্যবস্থা। ফলে ওই রাস্তা দিয়ে চলাচলকারী স্কুল-কলেজ পড়–য়া ছাত্র-ছাত্রি ও পথচারীদের প্রতিনিয়ত বিড়ম্বনায় পড়তে হচ্ছে।

উলিপুর-রাজারহাট মাতৃমঙ্গল সংলগ্ন স্থানে সড়কের উপর হাটু পানি জমে থাকলেও তা অপসারনের কোন উদ্যোগ নেই কর্তৃপক্ষের। এ কারনে চিকিৎসা নিতে আসা প্রসুতি রোগীদের দূর্ভোগ পোহাতে হয়। ওই পথে প্রতিদিন সহস্রাধিক শিক্ষার্থী ও পথচারী কষ্ট করে পারাপার হলেও কর্তৃপক্ষ নিরব ভুমিকা পালন করছে দীর্ঘদিন ধরে। কলেজ পড়–য়া ছাত্র হাসান মিয়া, অনিক, সাফি ইসলামসহ অনেকে জানান, প্রতিদিন পানি পার হতে জামা কাপড় নষ্ট হয়ে যায়। ওই রাস্তা সংলগ্ন উলিপুর কিন্ডার গার্টেন স্কুল গত সোমবার থেকে বন্ধ রয়েছে।

উপজেলা এলজিইডি অফিস সূত্রে জানা গেছে, ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে উলিপুর-রাজারহাট সড়কটি ৭ কোটি ৭৭ লাখ টাকা ব্যয়ে সংস্কার কাজ শেষ করেন এলজিইডি কর্তৃপক্ষ। সম্প্রতি স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর সড়কটি সড়ক ও জনপথ বিভাগকে হস্তান্তর করেন।

সম্প্রতি কয়েকদিন ধরে বৃষ্টিপাতের ফলে পানি জমে থাকলেও কোন বিভাগই সমাধানের উদ্যোগ নেননি। অপরদিকে, পৌর শহরের মাছ বাজার, উপজেলা চত্বর, কাঁচাবাজারসহ শহরের বিভিন্ন জায়গায় পানি জমে জনজীবন নাকাল হয়ে পড়েছে। মাছ বাজারে আসা বিষাদ বর্মন (৩৮), দেলোয়ার হোসেন (৫৫) জানান, মাছ কিনতে আসলে বাড়িতে গিয়ে গোসল করতে হয়। কাঁচাবাজার ব্যবসায়ী আব্বাছ বলেন, প্রতিদিন পানি জমে থাকার কারণে মানুষ কেনাকাটা করতে আসতে পারেনা। অভিযোগ রয়েছে, পৌর কর্তৃপক্ষ অপরিকল্পিতভাবে ড্রেন নির্মাণ করায় এ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

উপজেলা প্রকৌশলী নুরল ইসলাম বলেন,ওই সড়কটি নির্মানের ডিজাইনে ড্রেনেজ ব্যবস্থা থাকলেও রাস্তার দুই পার্শ্বে জায়গা না থাকার কারনে তা নির্মান করা যায়নি। এ কারনে সেখানে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হচ্ছে।

উলিপুর পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত সচিব প্রকৌশলী মাহবুবুর রহমান বলেন, পূর্বের কর্র্তৃপক্ষ সঠিকভাবে ড্রেন নির্মাণ না করায় বর্তমানে সমস্যা তৈরি হয়েছে। তবে রাস্তার উপর জমে থাকা পানি নিষ্কাষনের জন্য দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

উপজেলা নিবার্হী অফিসার মোঃ আব্দুল কাদের বলেন, ওই সড়ক আমি নিজে পরিদর্শন করে জলাবদ্ধতা নিরসনের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলেছি।

এ জাতীয় আরও খবর

স্বপ্নের ব্যাটিংয়ে তিন অঙ্কের দেখা পেলেন শান্ত

লকাডাউনে কর্মহীন রংপুর বিভাগের লাখো দিনমজুর

করোনাক্রান্তিতে মানবিক কাজে রংপুর জেলা ছাত্রলীগ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার তান্ডবের ঘটনায় আরও ১১ জন গ্রেফতার 

করোনায় আরও ৯৫ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৪২৮০

জনপ্রতি ফিতরা সর্বোচ্চ ২৩০০, সর্বনিম্ন ৭০ টাকা

রংপুরে ভিক্ষুক পুনর্বাসনে নেই অগ্রগতি ১১ হাজার ২৭৬ জন ভিক্ষুকের মধ্যে পুনর্বাসন হয়েছে মাত্র ১৫০ জনের

৪ দিনের রিমান্ডে ‘শিশুবক্তা’ রফিকুল

অল্পের জন্য সেঞ্চুরি হলো না তামিমের

তামিম-শান্তর ব্যাটে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ

তীব্র পানির সংকট : লকডাউন ভেঙে রাস্তায় মানুষ

করোনায় ‘বলপ্রয়োগে’ বেড়েছে ধর্ষণ