মঙ্গলবার, ৫ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ২১শে আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

৪ মিনিটের ঝড়ে লন্ডভন্ড বগুড়া, নিহত ১

news-image

নিজস্বব প্রতিবেদক : ঝড়ে লন্ডভন্ড হয়ে গেছে বগুড়ার ঘরবাড়ি। শহর ও শহরতলীতে অসংখ্য গাছ ভেঙে পড়েছে। এতে ভেঙে পড়েছে বিদ্যুৎ ব্যবস্থা। অসংখ্য আধাপাকা বাড়ির টিনের চাল উড়ে গেছে। ঝড়ে একজন নিহত ও এক শিশু আহত হয়েছে।

আজ শনিবার ভোর রাত ৪টায় ঘুর্ণিঝড় শুরু হয়। ঝড়ের স্থায়ী ছিল মাত্র চার মিনিট।

নিহত ব্যক্তির নাম শাহিন (৪৫)। তার বাড়ি বগুড়ার কাহালুর কালাই মাছ পড়ায়। গাছের ডাল ভেঙে মাথায় আঘাত পেয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান তিনি। আহত শিশুর নাম মেহেদী হাসান (৭)। কালাই দক্ষিণ নওদাপাড়ায় পাকা ঘর ধসে সে আহত হয়।

বগুড়া আবহাওয়া অফিসের উচ্চ পর্যবেক্ষক সৈয়দ গোলাম কিবরিয়া জানান, ভোর রাত ৪টায় ঘুর্ণিঝড় শুরু হয়। মাত্র ৪ মিনিট স্থায়ী এই ঝড়ের সময় বাতাসের গতিবেগ ছিল ৮৮ দশমিক ৬ কিলোমিটার।

তিনি আরও বলেন, ৪টা ৪ মিনিটে বাতাসের গতিবেগ কমে এলে শুরু হয় বৃষ্টিপাত। ভোর সাড়ে ৫টা পর্যন্ত দমকা বাতাসের পাশাপাশি ৩৬ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়।

স্বল্প সময়ের ঝড়ে বগুড়া শহরে পুলিশ লাইন্স, বিয়াম মডেল স্কুল ও আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়ন স্কুল এবং সরকারি আজিজুল হক কলেজের বড় গাছগুলো ভেঙে পড়ে। এ ছাড়া শহরের শহীদ খোকন পার্ক এবং অ্যাডওয়ার্ড পার্কে বেশ কিছু গাছ উপড়ে পড়ে। শহর ও শহরতলীর বিভিন্ন এলাকায় ঘরবাড়ির টিনের চালা উড়ে গেছে। ঝড়ে বোরো ধানেরও ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

কাহালু থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমবার হোসেন জানান, কাহালুর কালাই এলাকায় ঝড়ে গাছের ডাল ভেঙে একজন মারা গেছেন।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর বগুড়া আঞ্চলিক অফিসের অতিরিক্ত পরিচালক ইউছুব রানা মণ্ডল বলেন, বোরো ধান কাটা মাড়াইয়ের ভরা মৌসুমে ঝড়ে পাকা ধানের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। অন্য ফসলের তেমন ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।

নর্দান পাওয়ার সাপ্লাই কোম্পানির (নেসকো) নির্বাহী প্রকৌশলী ওমর ফারুক বলেন, ঝড়ে বিভিন্ন স্থানে বিদ্যুতিক খুঁটি উপড়ে পড়েছে। বিদ্যুতের তারের ওপর গাছের ডাল ভেঙে পড়েছে।

তিনি আরও বলেন, সকাল থেকে গাছ অপসারণসহ মেরামত কাজ চলছে। পর্যায়ক্রমে বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হবে।

 

এ জাতীয় আরও খবর