রবিবার, ১৬ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ২রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

‘সিনেমা হলের পরিবেশ ঠিক করতে হবে’

news-image

বিনোদন ডেস্ক : ‘আমি রাজ্জাক ভাইকে দেখেছি মেকআপ রুমে বসে আরাম করতেন। কিন্তু পরিচালক যখন রুমে ঢুকতেন, তখন মনে হয় রাজ্জাক ভাইয়ের শরীরে বিদ্যুৎ খেলে যেত। বিদ্যুতের গতিতে তিনি উঠে দাঁড়াতেন। মাথা নত করে পরিচালকের নির্দেশ শুনতেন। কিন্তু এখন তো সবই উল্টো হয়ে গেছে। এখন দেখা যায়, হিরো-হিরোইন মেকআপ রুমে বসে আছেন। পরিচালক কাচুমাচু করে কোনোভাবে মেকআপ রুমে ঢুকলেন। অতি বিনয়ের সঙ্গে হিরো বা হিরোইনকে বললেন, ভাই বা ম্যাডাম, আমাদের সেট রেডি, লাইট করা হয়েছে, আপনারা কি এখন শট দেবেন? পরিচালক যেন শিল্পীদের সামনে ঠিকমতো দাঁড়াতেই পারেন না। এই যদি হয় অবস্থা, তা হলে চলচ্চিত্র কীভাবে দাঁড়াবে?’ এনটিভি অনলাইনের কাছে এভাবেই ক্ষোভ প্রকাশ করছিলেন অভিনেতা সাদেক বাচ্চু।

মোহাম্মদ আসলাম পরিচালিত ‘প্রতিশোধের আগুন’ ছবিতে অভিনয় করছেন সাদেক বাচ্চু। ঢাকার বিভিন্ন লোকেশনে চলছে ছবির শুটিং। শুটিংয়ের ফাঁকে এনটিভি অনলাইনের সঙ্গে কথা বলেন তিনি।

বর্তমান সময়ের চলচ্চিত্র নিয়ে সাদেক বাচ্চু বলেন, ‘আমার মনে হয়, এখন ছবির সঠিক পরিচালক নেই, ভালো চিত্রনাট্য নেই, চরিত্র ফুটিয়ে তোলার মতো শিল্পী নেই। আর ছবি নির্মাণ করার মতো মানসিকতাসম্পন্ন প্রযোজকও নেই। অমুক দেশের ছবির মতো ছবি বানালেই আমাদের দেশে চলবে, তা ঠিক নয়। মোবাইলে পুরো সিনেমা নিয়ে শুটিং করতে গিয়ে, মোবাইলের ছবি দেখে দেখে শট নিলে হবে না। আরে তামিল শিল্পীরা যেভাবে দাঁড়ায়, সেভাবে আমাদের কোনো হিরোকে দাঁড় করালে হাস্যকর মনে হয়। এটা বোঝার মতো মেধা কতজন পরিচালকের আছে। তাদের মতো ফাইট করার চেষ্টা করছি অথচ তারা যে প্রযুক্তি ব্যবহার করছে, তা আমাদের কাছে নেই। যখন দর্শক দেখছে, বিষয়টি তাদের কাছে হাস্যকর হয়ে যাচ্ছে। সিরিয়াস একটা গল্পের ছবি দেখে দর্শক অযাচিত বিনোদন নিয়ে ফিরছে। সারা জীবন আমাকে বানানোর চেষ্টা হয়েছে ভারতের অমরেশ পুরী। তাহলে কী হবে?’

বাচ্চু আরো বলেন, ‘আমাদের একটা দেশ আছে। আমাদের কৃষ্টি-কালচার আছে। আমাদের জীবনে সুখ, দুঃখ, আনন্দ, বেদনা আছে। এসব মাথায় নিয়ে দেশি গল্পের ছবি নির্মাণ করতে হবে। ছবির মাধ্যমে এমন বিষয় তুলে আনতে হবে, যেন তামিলরাও অবাক হয়ে যায়। আর তামিল হিরো বানানোর চেষ্টা না করে আমাদের যেটা আছে, সেটার ওপর গল্প তৈরি করতে হবে। আমাকে অমরেশ পুরী না বানিয়ে, সাদেক বাচ্চুকে আরো সমৃদ্ধ করতে হবে। আর সিনেমা হলের পরিবেশ ঠিক করতে হবে। তা হলেই দর্শক ঠিক সিনেমা হলে গিয়ে ছবি দেখবেন।’

সাদেক বাচ্চু সত্তরের দশকের শেষের দিকে নিয়মিত কাজ করেছেন বিটিভিতে। বিটিভিতে তাঁর অভিনীত প্রথম নাটক ‘প্রথম অঙ্গীকার’। ১৯৮৫ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র ‘রামের সুমতি’ চলচ্চিত্রে প্রথম অভিনয় করেন সাদেক বাচ্চু।