বৃহস্পতিবার, ২৫শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ১০ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাংলাদেশ-ভারতের ১০ সমঝোতা স্মারক ও চুক্তি সই

news-image

বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে বিভিন্ন খাতে সহযোগিতা বাড়ানোর লক্ষ্যে বেশ কয়েকটি সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) এবং চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। আজ শনিবার (২২ জুন) দিল্লির হায়দরাবাদ হাউসে এক অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির উপস্থিতিতে এসব চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সই করা হয়।

চুক্তিগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে ডিজিটাল অংশীদারিত্বের জন্য একটি যৌথ ভিশন অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন ও ভারতের পররাষ্ট্র সচিব বিনয় কোয়াত্রা ডিজিটাল সহযোগিতায় পারস্পরিক অঙ্গীকার ব্যক্ত করে চুক্তি স্বাক্ষর করেন।

এ ছাড়া ভারত-বাংলাদেশ গ্রিন অংশীদারিত্বের অংশ হিসেবে পরিবেশগত উদ্যোগ ও টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রাগুলোর ওপর জোর দেওয়া হয়েছে। দুদেশের মধ্যে মেরিটাইম কো-অপারেশন ও ব্লু ইকোনমিতে একটি সমঝোতা স্মারক বিনিময় করা হয়েছে। এতে উভয় দেশ সমুদ্র নিরাপত্তা, সহযোগিতা ও ব্লু ইকোনমি খাতে সুযোগ অন্বেষণে সম্পর্ক জোরদার করবে।

স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা সংক্রান্ত সহযোগিতার জন্য একটি সমঝোতা স্মারক নবায়ন করা হয়েছে, যা দুই দেশের মধ্যে স্বাস্থ্যসেবায় চলমান সহযোগিতাকে প্রতিফলিত করে। এ ছাড়াও ভারতের ইন-স্পেস এবং বাংলাদেশের আইসিটি ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক করা হয়েছে, যা মহাকাশ প্রযুক্তি এবং স্যাটেলাইট যোগাযোগে সহযোগিতা বৃদ্ধি করবে। বাংলাদেশ স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেডের চেয়ারম্যান ও সিইও শাহজাহান মাহমুদ ও ভারতের মহাকাশ বিভাগের সচিব এস সোমনাথ এ সমঝোতা স্বাক্ষর করেন।

ভারতের রেলপথ মন্ত্রণালয় ও বাংলাদেশের রেলপথ মন্ত্রণালয়ের মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক বিনিময় হয়েছে। রেলওয়ে সংযোগ বৃদ্ধি এবং নির্বিঘ্ন আন্তসীমান্ত পরিবহণ সুবিধার লক্ষ্যে রেল সচিব মো. হুমায়ুন কবির এবং ভারতের রেলওয়ে বোর্ডের চেয়ারপারসন জয়া সিনহা এ সমঝোতা স্মারক সই করেন।

সমুদ্র বিজ্ঞানে যৌথ গবেষণা ও অন্বেষণকে উন্নত করতে এবং ওশানোগ্রাফিতে সহযোগিতার জন্য আরেকটি সমঝোতা স্মারক বিনিময় করা হয়। ভারতে বাংলাদেশের হাইকমিশনার মোহাম্মদ মুস্তাফিজুর রহমান ও বাংলাদেশে ভারতের হাইকমিশনার প্রণয় ভার্মা এতে স্বাক্ষর করেন।

এনডিএমএ (জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ) এবং বাংলাদেশের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক নবায়ন করা হয়েছে। এর মাধ্যমে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনার কৌশল ও দুর্যোগ মোকাবিলার প্রচেষ্টা জোরদার করা সম্ভব হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদির উপস্থিতিতে মৎস্য চাষে সহযোগিতার জন্য এমওইউ নবায়ন করা হয়েছে। এতে দুই দেশ টেকসই মৎস্য ব্যবস্থাপনা এবং মৎস্য চাষে যৌথ প্রচেষ্টা চালিয়ে যাবে।

ডিএসএসসি (ডিফেন্স সার্ভিসেস স্টাফ কলেজ) ওয়েলিংটন ও ডিএসসিএসসি (ডিফেন্স সার্ভিসেস কমান্ড অ্যান্ড স্টাফ কলেজ) মিরপুরের মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারকও বিনিময় করা হয়েছে। এতে প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে সামরিক শিক্ষা এবং কৌশলগত অধ্যয়নে সহযোগিতা ও অভিজ্ঞতা বিনিময় করবে বাংলাদেশ ও ভারত।

এর আগে নয়াদিল্লি সফররত বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে প্রতিনিধি পর্যায়ের আলোচনার পর এসব সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। এদিন হায়দরাবাদ হাউসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারতে দুই দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে রয়েছেন। তিনি মোদি তৃতীয় মেয়াদে সরকার গঠনের পর ভারতে দ্বিপাক্ষিক রাষ্ট্রীয় সফরে প্রথম বিদেশি অতিথি।

এ জাতীয় আরও খবর

খাতুনগঞ্জে বেড়েছে ভোজ্যতেল-চিনির দাম

জনগণের দৃষ্টি ভিন্ন দিকে নিতে বিএনপিকে দোষারোপ : মির্জা ফখরুল

শুধু ১৬ জুলাইয়ের সহিংসতার তদন্ত করবে বিচার বিভাগীয় কমিশন

পেরোডুয়া ব্র্যান্ডের গাড়ি পুরোপুরি বাংলাদেশে উৎপাদনের আহ্বান

এভাবে বিদায় নিতে হবে ভাবিনি: পিটার হাস

শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত ছাড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলবে না : শিক্ষামন্ত্রী

কারাগার থেকে পালানো ২৬১ কয়েদির আত্মসমর্পণ

বৃহস্পতিবার থেকে চলবে যাত্রীবাহী ট্রেন

দুষ্কৃতকারীরা যেখানেই থাকুক আইনের আওতায় আনা হবে : আইজিপি

মামলার মেরিট অনুযায়ী ব্যবস্থা নেব : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

কারফিউ শিথিল হতেই ঢাকার রাস্তায় ব্যাপক যানজট

‘লন্ডভন্ড’ ঢাকা, মোড়ে মোড়ে সহিংসতার ক্ষতচিহ্ন