শনিবার, ১৫ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ১লা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চীন থেকে মেঘ কিনবে ভারত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : বহুদিন ধরে চীনে কৃত্রিম মেঘ বানানোর প্রযুক্তির কথা শোনা যাচ্ছিল। এবার খরা মোকাবিলায় সেই কৃত্রিম মেঘ ভারতের কাছে বিক্রি করবে চীন। যাতে করে পানিভরা মেঘে ফাটল ধরে আকাশ ভেঙে বৃষ্টি নেমে আসে। আর সেই আকাশ ভাঙা বৃষ্টিতে ভিজবে ভারতের খরাপ্রবণ এলাকাগুলো। আর এভাবে খরা সমস্যা কিছুটা হলেও কাটিয়ে উঠতে পারবে বলে মনে করছে দেশটি।

 

2016_06_19_13_51_44_Tj2k9AbJUH3JYCsTUBQDktpWOkpedI_original

বিলম্বিত বর্ষা ও প্রচণ্ড খরায় হুট করে আকাশ ভাঙা বৃষ্টি নামিয়ে আনতে পানিভরা মেঘ বানানোর যে প্রযুক্তির উদ্ভাবন করেছিলো চীন, তা মহারাষ্ট্রের খরাপ্রবণ রাজ্য মরাঠাওয়াড়ায় বৃষ্টির জন্য কাজে লাগানো হবে।

মরাঠাওয়াড়াতে ওই মেঘ বানানোর প্রযুক্তি সরবরাহ করার জন্য কয়েকদিন আগে মহারাষ্ট্র ঘুরে গিয়েছেন বেইজিং, সাংহাই ও পূর্ব চিনের আনহুই প্রদেশের বিজ্ঞানীরা। তারা মহারাষ্ট্রের আবহাওয়া দপ্তরের কর্মকর্তাদের ওই কৃত্রিম মেঘ বানানোর প্রযুক্তি শেখাবেন বলে জানিয়েছেন।

রকেট ছুঁড়ে হাল্কা মেঘের মধ্যে সিলভার আয়োডাইড লবণ ঢুকিয়ে দিয়ে সেই মেঘকে পানিপূর্ণ করে তোলার প্রযুক্তি বেশ কিছু দিন আগেই আয়ত্ত করেছে চিন। সেই প্রযুক্তির সুবাদে গোটা বিশ্বকে হতবাক করেছিল চীন।

তাদেখে দু’টি মৌসুমে খরাক্রান্ত মরাঠাওয়াড়ায় তড়িঘড়ি বৃষ্টি নামাতে ব্যস্ত হয়ে উঠেছে মহারাষ্ট্র সরকার। সে জন্যই তারা দ্বারস্থ হয় চীনের। যতদিন না পর্যন্ত মহারাষ্ট্রের আবহওয়া অধিদপ্তর কৃত্রিম মেঘ বানানোর কৌশল আয়ত্ত করে না নেয় ততদির পর্যন্ত চীনের কাছ থেকে কৃত্রিম মেঘ কিনবে ভারত।

এ জাতীয় আরও খবর

আজ পবিত্র হজ, আরাফাতের ময়দানে হাজির হচ্ছেন ২০ লাখ হাজি

শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে নেপালকে ১ রানে হারালো দক্ষিণ আফ্রিকা

দক্ষিণ গাজায় আটকা পড়েছেন ১০ লাখের বেশি বাস্তুচ্যুত ফিলিস্তিনি

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়‌কে ১৩ কি‌লো‌মিটার অংশে যানজট-ধীরগ‌তি‌

কামার পল্লীতে ঠনা ঠন শব্দে ব্যস্ত সময় পার করেছেন কারিগররা

বিএনপির টপ টু বটম সবাই দুর্নীতিবাজ, তারেক এর বরপুত্র : কাদের

আবারও খোলামেলা শাড়িতে রুনা খান

সুনেত্রা চাপা অভিমান নিয়ে চলে গেছেন : অঞ্জনা

কোরবানির ঝাঁজ আদা, রসুন ও পেঁয়াজে

বেড়েছে টুপি বিক্রি, তবে ভয়ে আছেন ফুটপাতের দোকানিরা

জমে উঠেছে পশুর হাট, গাবতলীতে নজর কাড়ছে বড় গরু

শিমুল-তানভীর-শিলাস্তির পর বাবুর দায় স্বীকার