শনিবার, ১৫ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ১লা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অভিযানের নামে বিএনপি নেতাকর্মীরা গণগ্রেফতার হচ্ছে

21247-rezviamarনিজস্ব প্রতিবেদক : জঙ্গি দমন অভিযানের নামে সারাদেশ থেকে বিএনপি নেতাকর্মীরা গণগ্রেফতার হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, ‘সম্প্রতি উচ্চ আদালতে ৫৪ ধারা বিষয়ক যে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে এই অভিযানে সেটিকেও উপেক্ষা করা হচ্ছে। এটি আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারীবাহিনীর আদালতের প্রতি অবমাননা ও চরম ধৃষ্টতার শামিল। এই ধরনের গণগ্রেফতারে ব্যাপকভাবে গ্রেফতার বাণিজ্যের অভিযোগ উঠেছে।’

শনিবার (১১ জুন) দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ সব কথা বলেন রিজভী।এ সময় উপস্থিত ছিলেন-বিএনপি নেতা মজিবুর রহমান সরোয়ার, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, হারুন-অর রশিদ, এমরান সালেহ প্রিন্স, শামা ওবায়েদ, অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, শহিদুল ইসলাম বাবুল, সেলিমুজ্জামান সেলিম, ছাত্রদল নেতা মেহবুব মাসুম শান্ত, আব্দুস সাত্তার পাটোয়ারী প্রমুখ।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘গুপ্তহত্যা ঠেকাতে যৌথ অভিযানের ঘোষণার শুরু থেকে সারাদেশে এখন পর্যন্ত প্রায় ১২শ এর অধিক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। অভিযোগ উঠেছে, জঙ্গিবিরোধী অভিযান বলা হলেও সারাদেশ থেকে বিএনপিসহ বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে।এই অভিযানে মাদকসেবীদের মতো কিছু সামাজিক অপরাধী থাকলেও ব্যাপকহারে গ্রেপ্তার করা হচ্ছে সাধারণ মানুষ ও বিরোধী দলীয় নেতাকর্মীদের।’

এ প্রসঙ্গে তিনি আরো বলেন, ‘এই অভিযানে সাধারণ মানুষ ও বিএনপিসহ বিরোধী দলের নেতাকর্মীদেরকে ভয়ভীতি দেখিয়ে বড় অঙ্কের টাকা আদায় করার অভিযোগ উঠেছে। অবৈধ ভোটারবিহীন পুলিশনির্ভর সরকার ঈদের আগে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে বখশিস হিসেবে গ্রেফতার বাণিজ্যের সুযোগ করে দিচ্ছে।’

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী নাকি হেড অব দ্য গভর্নমেন্ট হিসেবে সব তথ্য পেয়ে থাকেন। তাই যদি হয়, তাহলে উনার প্রেস কনফারেন্সের একদিন পরেই পাবনায় আশ্রমের সেবায়েত নিত্য রঞ্জন পান্ডেকে কী করে কুপিয়ে হত্যা করলো দুর্বৃত্তরা? আসলে প্রধানমন্ত্রী প্রকৃত জঙ্গিবাদকে দমন করতে চান না। মূলত বিরোধী দল দমনই তাদের আসল উদ্দেশ্য।’

সাম্প্রতিক হত্যাকাণ্ড প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘সরকারের আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর চোখের সামনে কিংবা নিরাপদ জোনেও একের পর হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটছে। অথচ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী এসব হত্যাকাণ্ডের একজন আসামিকেও ধরতে সক্ষম হয়নি। অপরদিকে বিনা বিচারে তদন্ত ছাড়াই মানুষকে গ্রেফতার করে কথিত ক্রসফায়ারে হত্যা করা হচ্ছে। তারা যদি জঙ্গী হয়ে থাকে, তাহলে তাদেরকে আইনের আওতায় এনে জিজ্ঞাসাবাদের মাধ্যমে মূল হোতাদের খুঁজে বের না করে কথিত ক্রসফায়ারের নামে হত্যা রহস্যজনক।

তিনি বলেন, বর্তমানে জঙ্গী দমনের নামে দেশব্যাপী যে গণগ্রেফতার ও গ্রেফতার বাণিজ্য চলছে তাতে পুরো ঘটনাকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ও রহস্যজনক বলে জনগণ মনে করে। জনগণ দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করে যে, এর অন্তরালে সরকারের বড় ধরনের কোনো রাজনৈতিক উদ্দেশ্য রয়েছে।

এ জাতীয় আরও খবর

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়‌কে ১৩ কি‌লো‌মিটার অংশে যানজট-ধীরগ‌তি‌

কামার পল্লীতে ঠনা ঠন শব্দে ব্যস্ত সময় পার করেছেন কারিগররা

বিএনপির টপ টু বটম সবাই দুর্নীতিবাজ, তারেক এর বরপুত্র : কাদের

আবারও খোলামেলা শাড়িতে রুনা খান

সুনেত্রা চাপা অভিমান নিয়ে চলে গেছেন : অঞ্জনা

কোরবানির ঝাঁজ আদা, রসুন ও পেঁয়াজে

বেড়েছে টুপি বিক্রি, তবে ভয়ে আছেন ফুটপাতের দোকানিরা

জমে উঠেছে পশুর হাট, গাবতলীতে নজর কাড়ছে বড় গরু

শিমুল-তানভীর-শিলাস্তির পর বাবুর দায় স্বীকার

খুলে দেওয়া হচ্ছে বেনজীরের রিসোর্ট

বিশ্বকাপ থেকে পাকিস্তানের বিদায়, যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাস

শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মেমোরিয়াল হাসপাতাল পরিদর্শনে শেখ হাসিনা