বৃহস্পতিবার, ১৮ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ৫ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পাকিস্তানের ফাঁদে পা দিয়ে নাচছে ভারত

full_1353885700_1460127108আন্তর্জাতিক ডেস্ক : পাঠানকোট-কাণ্ডের তদন্তকে কেন্দ্র করে ভারত-পাকিস্তান সম্পর্কে আবার অনিশ্চয়তা ও জটিলতার সৃষ্টি হয়েছে। এ জন্য কংগ্রেস পুরোপুরি দায়ী করেছে বিজেপি নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রীয় সরকারকে। দলের মুখপাত্র অভিষেক মনু সিংভি আজ শুক্রবার বলেন, ভারত লেজেগোবরে হয়ে গেল। পাকিস্তান দায়ী সন্দেহ নেই। তারা জঙ্গি রাষ্ট্র হিসেবেই চিহ্নিত থাকবে। ভারতও পুরোপুরি পাকিস্তানের ফাঁদে পা দিয়ে তাদেরই সুরে নাচছে।

পাকিস্তানের তদন্তকারী দল (জেআইটি) যেমন ভারতে ঘুরে গেছে, তেমন ভারতীয় তদন্তকারী দলও (এনআইএ) পাকিস্তানে যেতে পারবে কি না, সে বিষয়ে পাকিস্তানের হাইকমিশনার আবদুল বাসিত সরাসরি সন্দেহ প্রকাশ করায় অনিশ্চয়তা ও জটিলতা সৃষ্টি হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীতে গণমাধ্যম প্রতিনিধিদের আবদুল বাসিত বলেন, এনআইএ পাকিস্তানে যেতে পারবে বলে মনে হয় না। এ বিষয়ে পাকিস্তান দায়বদ্ধও নয়। বাসিত এ কথাও বলেন, দুই দেশের মধ্যে দ্বিপক্ষীয় আলোচনাও কার্যত বন্ধ ধরে নেওয়া যেতে পারে।

আবদুল বাসিতের এই মন্তব্যের প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই ইসলামাবাদে পাকিস্তান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নাফিস জাকারিয়া এক প্রশ্নের উত্তরে বলেন, পররাষ্ট্রসচিব পর্যায়ের আলোচনা নিয়ে দুই দেশই একে অপরের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলেছে। ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বিকাশ স্বরূপও জানান, দুই দেশের বোঝাপড়া অনুযায়ী এনআইএরও পাকিস্তানে যাওয়ার কথা।

পাকিস্তানের দিক থেকে এ রকম দুই ধরনের বক্তব্যই দ্বিপক্ষীয় আলোচনা ও সন্দেহের জন্ম দিচ্ছে। কংগ্রেস মুখপাত্র অভিষেক মনু সিংভি মনে করেন, পাকিস্তান যে এই চাল চালবে, ভারত তা বুঝতেই পারেনি। খুবই চতুরভাবে ভারতের হাতে পাকিস্তান তামাক খেয়ে গেল। শুধু সিংভিই নন, কংগ্রেসের অন্য মুখপাত্র রণদীপ সিং সুরযেওয়ালাও শুক্রবার বলেন, ‘এত দিন যা ঘটেনি, এই সরকার সেটাই ঘটাল। কংগ্রেসের আপত্তি সত্ত্বেও পাকিস্তানের জেআইটিকে ভারতে আসার আমন্ত্রণ জানিয়ে এই সরকার ওদের বৈধতা দিল। তাঁরা বলেন, ভারতের দাবি, যুক্তি–প্রমাণ সব নস্যাৎ করে ওরা আমাদের ক্ষতে নুনের ছিটে দিয়ে গেল। পাকিস্তান আমাদের থাপড় মেরে গেছে।’

কংগ্রেসের এই সমালোচনার জবাবে বিজেপি কিছুটা কোণঠাসা। তবে তাদের মুখপাত্র নলিন কোহলি বলেছেন, পাঠানকোট হামলার পরে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ নিজেই তদন্তের কথা জানিয়েছিলেন এবং তারই পরিপ্রেক্ষিতে জেআইটি ভারতে আসে। ভারতের তদন্তকারী সংস্থারও পাকিস্তানে যাওয়ার কথা। এখন পাকিস্তানকেই প্রমাণ দিতে হবে সন্ত্রাসের মোকাবিলায় তারা কতটা আন্তরিক।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এখনো আশা ছাড়েনি। মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বিকাশ স্বরূপের বক্তব্য একটাই, পাকিস্তান সরকারিভাবে ভারতকে কী জানাচ্ছে, সেটাই আসল। সরকারিভাবে তারা এখনো তাদের চূড়ান্ত মনোভাব জানায়নি। বোঝাপড়া অনুযায়ী এনআইএরও পাকিস্তানে যাওয়ার কথা। যেতে যে দেওয়া হবে না, সে কথা পাকিস্তান সরকার ভারতকে এখনো জানায়নি।

এ জাতীয় আরও খবর

৮৭ হাজার টাকার মদ খান পরীমণি, পার্সেল না দেওয়ায় চালান তাণ্ডব

যুদ্ধ পরিস্থিতি মোকাবিলায় আগাম প্রস্তুতির নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

ভারতের পররাষ্ট্র সচিব ঢাকায় আসছেন শনিবার

পি কে হালদারের বিরুদ্ধে প্রথম চার্জশিট দিচ্ছে দুদক

কেমন ছিল জিম্মিদশার দিনগুলো, জানালেন জাহাজের ক্যাপ্টেন রশিদ

ইসরায়েলে ড্রোন হামলা হিজবুল্লাহর, ১৪ সেনাসদস্য আহত

হাথুরুকে নিয়ে ধোঁয়াশা নেই, ২১ এপ্রিল রাতে ফিরছেন ঢাকায়

উপজেলা নির্বাচন সরকারের আরেকটা ভাওতাবাজি : আমীর খসরু

গরমে গতি কমিয়ে ট্রেন চালানোর নির্দেশ

পশ্চিমবঙ্গে ৪৬ ডিগ্রিতে পৌঁছাবে তাপমাত্রা

গুলশানে চুলোচুলি করা সেই ৩ নারী গ্রেপ্তার

দায়িত্বশীল ও টেকসই সমুদ্র ব্যবস্থাপনার আহ্বান পররাষ্ট্রমন্ত্রীর