সোমবার, ৩রা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৮ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ভৈরব নৌরুটের লঞ্চে সন্ত্রাসী হামলা, লঞ্চ চলাচল বন্ধ, যাত্রীদের দূর্ভোগ

brahmanbaria-sm20140129151135প্রতিবেদক :: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর থেকে ভৈরব নৌরুটের লালপুর ঘাটে একটি যাত্রীবাহী লঞ্চের ষ্টাফদের উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে লঞ্চ মালিকেরা ওই লঞ্চঘাটে গত দুদিন ধরে লঞ্চ ভিড়ানো বন্ধ করে দেওয়ায় ওই এলাকার শত শত যাত্রীদেরকে দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। ওই হামলায় লঞ্চের সারেংসহ কমপক্ষে পাঁচজন আহত হয়েছেন।


সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, নবীনগর থেকে  ভৈরবের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়া যাত্রীবাহী ‘এম, এল প্রিন্সেস অব আল-রাব্বি’ নামের একটি লঞ্চে গত শুক্রবার সকালে ওই নৌরুটের লালপুর নামক লঞ্চঘাটে ভিড়ে। এ সময় লঞ্চে এক ছাত্রীর সঙ্গে ভাড়া নিয়ে তর্কাতর্কির জের ধরে স্থানীয় ৩০/৩৫জন লোক লাঠিশোঠা নিয়ে লঞ্চে অতর্কিতে হামলা চালিয়ে লঞ্চের ব্যাপক ক্ষতি সাধন করে। হামলায় লঞ্চের সারেং সহ পাঁচজন ষ্টাফও আহত হন। এ ঘটনার পর থেকে লঞ্চ মালিকেরা এ হামলার বিচারের দাবিতে শুক্রবার সকাল থেকে গত দুদিন ধরে ওই লঞ্চঘাটে (লালপুর) সব লঞ্চ ভিড়ানো বন্ধ করে দেয়। এতে ওই নৌপথের শতশত যাত্রীরা দূর্ভোগে পড়েন।


লঞ্চ মালিক সমিতি, সিলেট জোনের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান বলেন,‘ঘটনার প্রতিকার চেয়ে আশুগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। এর প্রতিকার না হওয়া পর্যন্ত লালপুর ঘাটে সব লঞ্চ ভিড়ানো বন্ধ থাকবে।’
আশুগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম ফারুক লঞ্চ মালিকের লিখিত অভিযোগের প্রাপ্তি স্বীকার করে শনিবার বিকেলে বলেন,‘উভয় পক্ষকে ডাকা হয়েছে। এ বিষয়ে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

উল্লেখ্য, এই নৌরুটে প্রতিদিন ১৭টি লঞ্চ চলাচল করে।