সোমবার, ৪ঠা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ২০শে ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

নির্বাচনে সবাই মিলে একই দলের লোক: বিএনপি

news-image

নিজস্ব প্রতিবেদক : সরকার ও নির্বাচন কমিশন মিলে একতরফা নির্বাচনের সব আয়োজন সম্পন্ন করছে বলে মন্তব্য করেছে বিএনপি। দলটি বলেছে, ‘তাদের (আওয়ামী লীগের) পাতানো নির্বাচনে সবাই মিলে একই দলের লোক। কেউ প্রত্যক্ষ প্রার্থী, কেউ পরোক্ষ প্রার্থী, কেউ এক নম্বর প্রার্থী, কেউ দুই নম্বর প্রার্থী, কেউ তিন নম্বর প্রার্থী আবার কেউ নকল প্রার্থী। এরা সবাই আওয়ামী লীগের প্রার্থী।’

রোববার এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আরও বলেন, ‘জনগণের বিরুদ্ধে নির্বাচনী তপশিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশনই সংবিধানের সারবত্তা ভুলুন্ঠিত করেছে। এখন আওয়ামী লীগের ঘরোয়া নির্বাচনের আচরণবিধি লঙ্ঘনের কথা বলে জনগণের সঙ্গে কমিশন ঠাট্টা করছে। কিসের আচরণবিধি লঙ্ঘন আর কিসের কি? এখানে তো জনগণের অংশগ্রহণই নেই, এখানে ভোটারদের ভোটের কোনো আগ্রহই নেই।’

রিজভী বলেন, ‘নির্বাচন উপলক্ষে ইউএনও ও ওসিদের বদলির সিদ্ধান্তটিও আওয়ামীমনা ইউএনও-ওসিদের রদবদল, এটি লোক দেখানো। সমগ্র প্রক্রিয়াটিও হাসি-তামাশার নজিরবিহীন হাস্য-রসোদ্দীপক নাটিকা। এই একতরফা নির্বাচনে জনগণের কোনো ভ্রুক্ষেপ নেই। যেখানে ৬০টিরও বেশি রাজনৈতিক দল অংশ নিচ্ছে না, সেই নির্বাচন নিয়ে এত তোড়জোর করতে কিসের কৃতিত্ব দেখাচ্ছেন কাজী হাবিবুল আউয়াল। তিনি কি জানেন না- তার এই তামাশার নির্বাচনকে নিশ্চিত করার জন্য সারাদেশে পালিয়ে বেড়ানো বিএনপিসহ গণতন্ত্রকামী দলগুলোর নেতাকর্মীদের বাড়ি-ঘরে সরকার হানাদারী আক্রমণ করছে, হামলা করছে।’

বিরোধীদের বাড়ি বাড়ি হামলা
রিজভী বলেন, ‘সারাদেশে বিএনপিসহ গণতন্ত্রকামী নেতাকর্মী বাড়ি-ঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে নিরবিচ্ছিন্ন হামলার ঘটনা ঘটছে। আলবদরের মতো, রাজাকারদের মতো এরা বিএনপির নেতাকর্মীদের বাড়ি-ঘরে লুটপাট করছে, পুরুষ শূন্য বাড়িগুলো হামলা চালিয়ে ধ্বংস করছে, বাড়ির নারীদের অপদস্ত করছে। এমন পরিস্থিতিতে আতঙ্ক উদ্বেগ শুধু বিএনপির পরিবারগুলোতে বিরাজ করছে না, সাধারণ ভোটাররা অজানা আশঙ্কায় সন্ত্রস্ত হয়ে আছে।’

গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে ২৩০ জন নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার ও ১০টি মামলায় ৯২৫ জনকে আসামি করা হয়েছে বলে জানান রিজভী।