মঙ্গলবার, ২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ১৪ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

‘আমরা আমেরিকার সাপোর্ট কেন নিতে যাব, বিধর্মী আমেরিকা’

news-image

গাজীপুর ও শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি : বিএনপিকে উদ্দেশে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বলেছেন, ‘আপনারা আন্দোলন করেন। তবে গাড়ি পুড়িয়েন না, লাভ হবে না। আপনারা ২৮ তারিখের পর যে ক্ষতি করেছেন আগামী ৮বছরেও এই ক্ষতি পুষাতে পারবেন না। আর আমেরিকার সাপোর্ট নিয়ে আপনারা সরকারে যাবেন? আমরা আমেরিকার সাপোর্ট কেন নিতে যাব। বিধর্মী আমেরিকা। তারা হামাসকে মারছে, ফিলিস্তিনকে মারছে। আর আমেরিকা প্রেসিডেন্ট বলছে, ওদেরকে নিপাত না করা পর্যন্ত তিনি ছাড়বেন না। যারা মুসলিম হত্যাকারী, তার পক্ষে বিএনপি। তাই ধানের শীষে মুসলমানরা ভোট দেবে, আমি তো মনে করি না।’

আজ মঙ্গলবার বিকেলে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার মাওনা গ্রামে উপজেলা কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের আয়োজিত এক প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের উদ্দেশে কাদের সিদ্দিকী বলেন, ‘আমি জো বাইডেনকে বলি, আপনি আমেরিকার প্রেসিডেন্ট। আপনি বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট না। আপনার রাষ্ট্রদূতকে এত দৌড়াদৌড়ি করতে দিচ্ছেন কেন। ওনার বাংলাদেশে কী কাজ। আমেরিকা বলছে, ‘‘বাংলাদেশের সব রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আছে তারা। এককভাবে কোনো দলের পক্ষে না।” তাহলে আপনারা আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টিকে দাওয়াত করছেন। আমরা কি কচুরিপানা, আপনার গলায় কিন্তু পয়লা গামছা দেওয়ার দরকার পড়বে পিটার সাহেব। আপনি সবকটি দলের সঙ্গে কাজ সারেন, আপনার কী কাজ? ভোট দেবে বাংলাদেশের মানুষ।’

আওয়ামী লীগের উদ্দেশে কাদের সিদ্দিকী বলেন, ‘ভোটকেন্দ্রে যদি ভোটার না যায়, তাহলে আপনার (শেখ হাসিনা) কিন্তু কোনো উপায় নাই। তবে যথেষ্ট বদনাম হয়েছে। এবার ভোটে কে আসল, না আসল এটা বড় কথা না। যদি ভোটাররা ভোট দিতে যায় এবং ভোট দিতে পারে, তাহলে আপনার এ সমস্ত বদনাম দূর হয়ে একটা সুনামের সৃষ্টি হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আপনি সেদিনও একটা ইলেকশন করছেন। একজনে ৪০ সেকেন্ডে ৫৭টি ভোট দিয়েছে। এরকম চোর নিয়া আপনি দেশ চালাতে পারবেন না। সবার আগে আওয়ামী লীগ থেকে চোরগুলোকে বিদায় করে দেন। দেখবেন যিনি ভোটে জিতবেন, তিনি অন্তত আপনাকে নেতা মানবেন, কমপক্ষে আমি তো মানব। চোর নিয়ে রাজনীতি করে কোনো শান্তি নাই।’

গতকাল একই স্থানে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের কর্মিসভায় আওয়ামী লীগের হামলার অভিযোগে কাদের সিদ্দিকী বলেন, ‘আমি ভাইসা আসি নাই, যুদ্ধ করে বঙ্গবন্ধুকে পাকিস্তানের কারাগার থেকে মুক্ত করেছি। আমার ছেলেদের কর্মিসভায় ভাঙচুর করা হয়। কাজটা খুবই অন্যায় হয়েছে। এজন্য বলছি মাফ চাইও, না হলে কিন্তু খবর আছে। অসুবিধায় পড়বা। এক মাঘে কিন্তু শীত যায় না। মাঘ ফিরে আসে। এখানে গুণ্ডামি করতে আইসেন না। বড় অসুবিধা, বড় খারাপ হবে।’

কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের শ্রীপুর উপজেলার আহ্বায়ক মো. আ. হামিদের সভাপতিত্বে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মো. শফিকুল ইসলাম দেলোয়ার

 

এ জাতীয় আরও খবর

পুলিশের ৪০০ সদস্য পাচ্ছেন পদক

ভারতীয় বিমান বাহিনীর প্রধান এখন ঢাকায়

হাথুরুসিংহেকে ‘শোকজ’ করবেন পাপন!

পদত্যাগ করলেন ফিলিস্তিনের প্রধানমন্ত্রী

শিক্ষা সফরে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মদপান, ভিডিও ভাইরাল

প্রধানমন্ত্রী স্বাস্থ্য খাতে জিরো টলারেন্স নীতি ঘোষণা করেছেন : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

‘১৫ বছরে শেখ হাসিনা বাংলাদেশের সামগ্রিক চিত্র পাল্টে দিয়েছেন’

নিশাম ঝড়ে রংপুরের চ্যালেঞ্জিং স্কোর

বিডিআর বিদ্রোহ ঘটিয়েছিল বিএনপি : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আর্থ-সামাজিক সূচকে অনেক দেশের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী

ফের টেকনাফ সীমান্তে গোলাগুলির শব্দ

পুলিশ সপ্তাহ শুরু কাল, উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী