বুধবার, ১লা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ ১৮ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ভরে গেছে গোলাপবাগ মাঠ, স্লোগানে মুখর

news-image

নিজস্ব প্রতিবেদক : বিএনপিকে ২৬ শর্তে রাজধানীর গোলাপবাগ মাঠে সমাবেশ করার অনুমতি দিয়েছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)। নানা নাটকীয়তার পর আজ শুক্রবার বিকেলে এ অনুমতি দেওয়া হয়। অনুমতি পাওয়ার পরই গোলাপবাগ মাঠে জড়ো হয়েছেন বিএনপি নেতাকর্মীরা।

বিকেল থেকে গোলাপ মাঠে আসতে শুরু করেন বিএনপি নেতাকর্মীরা। এ সময় বিভিন্ন দলে স্লোগান নিয়ে মাঠে ঢুকতে দেখা যায় তাদের। সন্ধ্যার আগেই নেতাকর্মীতে পূর্ণ হয়ে যায় গোলাপবাগ মাঠ।

নেতাকর্মীদের উপস্থিতির প্রসঙ্গে ঢাকা জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক নিপুণ রায় চৌধুরী সমাবেশস্থল থেকে আমাদের সময়কে বলেন, ‘আজ সন্ধ্যার ভেতরে পুরো মাঠ কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে গেছে। এখানে নেতাকর্মীরা স্লোগান দিচ্ছেন, এখনই সমাবেশের আমেজ তৈরি হয়ে গেছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘গত কয়েক দিন ধরেই নেতাকর্মীরা সমাবেশেস্থলে আসার জন্য মুখিয়ে ছিলেন। তাই অনুমতি পাওয়ার পরপরই তারা ছুটে আসেন।’

নিপুণ রায় চৌধুরী জানান, গোপালবাগ মাঠে সমাবেশের অনুমতি বিএনপি চেয়েছিল, তারা সেই অনুমতি পেয়েছে। এটা বিএনপির অর্জন।

ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সদস্যসচিব আমিনুল হক বলেন, ‘সমাবেশের জন্য আমাদের আগে থেকেই প্রস্তুতি নেওয়া ছিল। অনুমতি পাওয়ার পর নেতাকর্মীদের জানিয়ে দিয়েছি। খবর পেয়েই তারা সমাবেশস্থলে চলে আসছে।’

বিভিন্ন দাবিতে দলের সব সাংগঠনিক বিভাগে গণসমাবেশ করছে বিএনপি। ঢাকা ব্যতীত সারাদেশে এ সমাবেশ করেছে তারা। রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ১০ ডিসেম্বর গণসমাবেশ করবে বলে ঘোষণা দেয় বিএনপি। এরপর এ নিয়ে শুরু হয় জটিলতা।

ডিএমপির পক্ষ থেকে বিএনপিকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করার অনুমতি দেওয়া হয়। তবে বিএনপি নয়াপল্টনেই সমাবেশ করবে বলে জানায়। এরই মধ্যে গত বুধবার নয়াপল্টনে বিএনপি নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে একজন নিহত হন, বহু আহত হন।

ওই দিন বিএনপির জ্যেষ্ঠ মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, চেয়ারপারসনের বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস, দলটির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানিসহ ৫০০ নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে দাবি করে বিএনপি।

ভেন্যু জটিলতায় সরকারের পক্ষ থেকে টঙ্গীর ইজতেমা মাঠ ও পূর্বাচলের বাণিজ্যমেলার মাঠে সমাবেশ করার প্রস্তাব দেয় ডিএমপি। অন্যদিকে, শান্তিনগর ও আরামবাগ মাঠে সমাবেশ করতে চায় বিএনপি।

গতকাল ডিএমপির পক্ষ থেকে মিরপুর বাঙলা কলেজ মাঠে সমাবেশ করার প্রস্তাব দেওয়া হয়। কিন্তু বিএনপি চায় কমলাপুর স্টেডিয়াম। রাতে বিএনপি নেতারা মাঠ দুটি পরিদর্শন করেন। এ বিষয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটি সিদ্ধান্ত নেবে বলে মধ্যরাতে জানান বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস। এর কয়েক ঘণ্টা পর তাকে রাজধানীর শাহজাহাপুরেরর নিজ বাসা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। কাছাকাছি সময়ে রাজধানীর উত্তরার নিজ বাসা থেকে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকেও গ্রেপ্তার করা হয়।

 

এ জাতীয় আরও খবর

মাতৃভাষার মাস শুরু আজ

২১০ রান টপকে অবিশ্বাস্য এক জয় কুমিল্লার

বগুড়ায় উপ-নির্বাচন : নেতাকর্মীরা ভোটকেন্দ্রে গেলেই ব্যবস্থা নেবে বিএনপি

আগুন নিয়ন্ত্রণে মোংলা ইপিজেডের

নিজেদের ইচ্ছামতো বিশ্ববিদ্যালয় চালানো যাবে না : রাষ্ট্রপতি

বিএনপির ছেড়ে দেওয়া ৬ আসনে ভোটগ্রহণ আজ

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মুকুলের অফিস থেকে ঘরে ফেরা হলো না

আমি আহলে হাদিসের অনুসারী, পকেটে দুই কোটি ভোট : রহমতুল্লাহ

স্বাস্থ্যের ৪ পরিচালককে বদলি, নিপসমে সেব্রিনা ফ্লোরা

ভুল তথ্যে র‌্যাবের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল আমেরিকা : সংসদে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

বিশ্বের শীর্ষ ১০ ধনীর তালিকা থেকে ছিটকে গেলেন আদানি

বাণিজ্য মেলায় ১০০ কোটি টাকার পণ্য বিক্রি