শুক্রবার, ২১শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৭ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

বিশ্বকাপে বোলিংয়ে ত্রাস হবেন যারা

Malingaআর এক দিন বাদেই বাংলাদেশের মাঠে গড়াচ্ছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পঞ্চম আসর। যেখানে চার-ছক্কার ফুলঝুরি ফোটাবেন বিশ্বের ভয়ংকর সব ব্যাটসম্যান। কিন্তু বোলিংয়ের ২২ গজে কারা তাদের ব্যাটের ধারটা কমিয়ে দিতে পারেন। নামিয়ে আনতে পারেন সাধারণের স্তরে। আসুন আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বোলিংয়ে সেরা ছয় অস্ত্রকে এক নজরে দেখে নেই-

লাসিথ মালিঙ্গা:
এশিয়া কাপে শ্রীলঙ্কার জয়ের মূল কারিগর। তাছাড়া ডেথ ওভারে বিশ্বের সবচেয়ে ভয়ংকর বোলার ভাবা হয় তাকে। বিষাক্ত ইয়র্কার, মন্থর স্লোয়ার ও বাউন্সার প্রধান অস্ত্র বাহারি-দর্শন এই পেসারের।
সাঈদ আজমল:
বিশ্বের এক নম্বর অফ স্পিনার। স্লো উইকেটে দারুণ টার্ন করাতে পারেন। গুগলি, ফ্লিপার ও আর্মার প্রধান অস্ত্র তার। তাছাড়া বাংলাদেশের কন্ডিশনে বরাবর বিধ্বংসী। এশিয়া কাপে এটা প্রমাণ করেছেন তিনি।
উমর গুল:
টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের অন্যতম সেরা বোলার। বলে গতির ভ্যারিয়েশন প্রধান অস্ত্র পাকিস্তানি এই পেসারের। এশিয়া কাপে বংলাদেশের বিপক্ষে যদিও তেমন সুবিধা করতে পারেননি তিনি। কিন্তু তারপরেও বিশাল অভিজ্ঞতা ও টি-টোয়েন্টির ভিন্ন ধরন এগিয়ে দেবে গুলকে।
সুনীল নারাইন:
ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে কলকাতা নাইট রাইডার্সের (কেকেআর) হয়ে নিয়মিত মাঠে নামায় উপমহাদেশের উইকেট বুঝতে খুব বেশি সমস্যা হবেনা ক্যারিবিয় এই স্পিনারের। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে তাকে চার ওভারের হিরো ভাবা হয়। সেজন্য আসন্ন বিশ্বকাপে তার বোলিং গুরুত্বপূর্ণ হতে যাচ্ছে। তাছাড়া তার ইকোনমি রেটও ছয় রানের কম।
ডেল স্টেইন:
অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দক্ষিণ আফ্রিকার সদ্য শেষ হওয়া সিরিজে মাঠে নামতে পারেননি ক্ষ্যাপাটে এই বোলার। কিন্তু ডেল স্টেইনের গতির ঝড় কিংবা উইকেট টু উইকেট বল করার ক্ষমতা ব্যাটসম্যানদের বিপদে রাখবে। তাছাড়া ভয়ংকর সব ইয়র্কার তো আছেই।
মিশেল স্টার্ক:
অস্ট্রেলিয়ার হয়ে নিমমিত আলো ছড়িয়েই যাচ্ছেন মিশেল স্টার্ক। মাথা ঠাণ্ডা রেখে ও বুদ্ধিমত্তার সহিত বল করতে পারাই সবচেয়ে বড় অস্ত্র অসি এই পেসারের। টি-টোয়েন্টিতে যা খুবই দরকারি।