শুক্রবার, ২১শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৭ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

নৈশক্লাবে প্রবেশ নিষেধ লিন্ডসের!

52f1cb4c81d54-lindsay_lohanএই তো গত মাসেও নিউইয়র্কের বিভিন্ন নামীদামি নৈশক্লাবে রীতিমতো ভাড়া করে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল হলিউডের বিতর্কিত অভিনেত্রী লিন্ডসে লোহানকে। বিনিময়ে ৫ থেকে ১৫ হাজার ডলার সম্মানীও পেতেন তিনি। কিন্তু ইদানীং দৃশ্যপট পুরোপুরি পাল্টে গেছে। সম্প্রতি এক খবরে কন্ট্যাক্টমিউজিক জানিয়েছে, নিউইয়র্কের নৈশক্লাবগুলোতে লিন্ডসের প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

নৈশক্লাবে হই-হুল্লোড় করে সময় কাটাতে দারুণ পছন্দ করেন লিন্ডসে। নিয়মিত বিভিন্ন নৈশক্লাবে গিয়ে আনন্দে মেতে উঠতেন তিনি। নৈশক্লাবে তাঁর প্রবেশ নিষেধের বিষয়টি লিন্ডসে প্রথম জানতে পারেন গত মাসের শেষ দিনটিতে। ৩১ জানুয়ারি শুক্রবার একাধিক নৈশক্লাবে প্রবেশ করতে গিয়ে বাধার মুখে পড়েন ২৭ বছর বয়সী এ ‘মিন গার্লস’ তারকা।

এ প্রসঙ্গে ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র জানিয়েছে, লিন্ডসে ওয়ান ওক নৈশক্লাবে ঢুকতে গিয়ে প্রথম যখন বাধার মুখে পড়েন, তখন নিজেকেই যেন বিশ্বাস করতে পারছিলেন না। তিনি বেশ কিছুক্ষণ প্রহরীর দিকে অবাক চোখে তাকিয়ে থাকেন। এ ঘটনা তাঁকে প্রচণ্ড ধাক্কা দেয়।

এরপর আপ অ্যান্ড ডাউন নৈশক্লাবে ঢোকার চেষ্টা করেন লিন্ডসে। কিন্তু সেখানেও একই ধরনের তিক্ত অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হন তিনি। ভেতরে প্যারিস হিলটন, বার রাফায়েলি ও রায়ান ফিলিপের মতো তারকারা থাকলেও প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি লিন্ডসেকে। এভাবে অপমানিত হয়ে সঙ্গে থাকা বন্ধুদের সামনে খুবই বিব্রতকর অবস্থার মধ্যে পড়ে যান হলিউডের এ প্রবলেম সেলিব্রেটি।

হঠাত্ করে নৈশক্লাবের মালিকেরা লিন্ডসের ওপর কেন এমন বেজায় চটে গেলেন তার পেছনের কারণ সম্পর্কে জানা গেছে, গত কিছুদিন ধরেই নৈশক্লাবে নানা উল্টাপাল্টা কীর্তি ঘটিয়ে ক্লাবের মালিকদের রীতিমতো চক্ষুশূলে পরিণত হয়েছেন লিন্ডসে।

সর্বশেষ গত ২৯ জানুয়ারি ওয়ান ওক নৈশক্লাবে গিয়েছিলেন লিন্ডসে। পরে তিনি অভিযোগ করেন, সেখান থেকে তাঁর পরনের একটি মূল্যবান কোট খোয়া গেছে। কিন্তু নৈশক্লাব কর্তৃপক্ষ দাবি করে, লিন্ডসের অভিযোগ সত্য নয়। পরদিন পশুর লোমের তৈরি ৭৫ হাজার ডলার মূল্যের কোটটি পাওয়া যায় খেলোয়াড় সিডনি রাইসের কাছে। তিনি আগের দিন লিন্ডসের টেবিলেই বসেছিলেন। লিন্ডসে চলে যাওয়ার পর তাঁর টেবিলে কোটটি খুঁজে পান সিডনি। তিনি কোটটি লিন্ডসেকে ফিরিয়ে দেবেন বলে সেটি সঙ্গে নিয়ে বাড়িতে চলে যান। পরে তিনি কোটটি লিন্ডসের কর্মচারীদের কাছে হস্তান্তর করেন।

নিশ্চিত না হয়েই নামীদামি একটি নৈশক্লাবের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলায় লিন্ডসের ওপর বেজায় চটে যান নিউইয়র্কের বিভিন্ন নৈশক্লাবের মালিকেরা। তাঁরা একজোট হয়ে নৈশক্লাবে লিন্ডসের প্রবেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেন।