শুক্রবার, ২রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বিদ্যুৎ বিপর্যয়ে সরকারের গাফিলতি স্পষ্ট: গণতন্ত্র মঞ্চ

news-image

নিজস্ব প্রতিবেদক : জাতীয় গ্রিডে বিদ্যুৎ বিপর্যয়ের কারণে গতকাল মঙ্গলবার সৃষ্ট জনদুর্ভোগের জন্য সরকার এবং বিদ্যুৎ বিভাগের গাফিলতি ও অব্যবস্থাপনাকে দায়ী করেছে সাত দলীয় রাজনৈতিক জোট গণতন্ত্র মঞ্চ। এ দুর্ভোগের পেছনে জাতীয় গ্রিডের সঞ্চালন ব্যবস্থা সংস্কার না করাকে দায়ী করে আজ বুধবার গণতন্ত্র মঞ্চের কেন্দ্রীয় নেতারা এক যৌথ বিবৃতিতে এ কথা বলেন।

যৌথ বিবৃতিতে গণতন্ত্র মঞ্চ জানায়, ব্যাপক এই বিভ্রাটের মধ্য দিয়ে সরকার ও বিদ্যুৎ বিভাগের গাফিলতি ও অব্যবস্থাপনা স্পষ্ট হয়েছে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, বিইআরসির গণশুনানিসহ বিভিন্ন সময়ে নেতারা ও বিশেষজ্ঞরা জাতীয় গ্রিডের বিভিন্ন সঞ্চালন ব্যবস্থার ত্রুটিসহ ব্যবস্থাপনাগত অদক্ষতা এবং বিদ্যুৎ উৎপাদনের সঙ্গে এর সক্ষমতার সমন্বয়ের পরামর্শ ও এ বিষয়ে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছিলেন। কিন্তু সরকার ও কর্মকর্তারা এ বিষয়ে নজর না দিয়ে সময়ে সময়ে বিদ্যুতের দাম বাড়ানোতে অধিকতর মনোযোগী থেকেছেন বলে বিবৃতিতে বলা হয়।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, এভাবে জাতীয় গ্রিডের সংস্কার কাজ ফেলে রেখে জাতীয় বিদ্যুৎ সঞ্চালন ব্যবস্থাপনা ও লাইনকে অনিরাপদ করে রাখা হয়েছে। এ কারণে জাতীয় গ্রিডের পূর্বাঞ্চলীয় লাইন বিপর্যয়ের মুখে পড়েছে।

এ ধরনের গাফিলতি ও অব্যবস্থাপনার জন্য দায়ীদের অবিলম্বে বিচার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আওতায় আনার দাবি জানিয়েছে গণতন্ত্র মঞ্চ। বিবৃতিতে নেতারা বলেন, ‘জনসম্মতিহীন এই সরকারের সীমাহীন দুর্নীতি, লুটপাট ও অব্যবস্থাপনার কারণে দেশের বিদ্যুৎখাতে অরাজকতা ও চরম সংকটের সৃষ্টি হয়েছে। দেশের জ্বালানি নিরাপত্তা হুমকির মুখে। লোডশেডিংয়ে সারা দেশের মানুষ অতিষ্ঠ। জ্বালানি সংকটের কারণে কল-কারখানা এমনকি সার কারখানা পর্যন্ত বন্ধ হয়ে গেছে।

প্রসঙ্গত, গণতন্ত্র মঞ্চের সাতটি দল হল জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি), নাগরিক ঐক্য, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি, গণসংহতি আন্দোলন, গণঅধিকার পরিষদ, ভাসানী অনুসারী পরিষদ ও রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলন।