বৃহস্পতিবার, ৮ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ২৩শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

স্বামীর বেতন জানতে চেয়ে তথ্য অধিকার আইনে মামলায় স্ত্রীর জয়

news-image

অনলাইন ডেস্ক : স্বামীর বেতন জানতে চেয়েছিলেন স্ত্রী। স্বামীকে বারবার জিজ্ঞেস করে জানতে পারেননি। আয়কর বিভাগ থেকেও সহযোগিতা করেনি। অবশেষে তথ্য অধিকার (আরটিআই) আইনে মামলা করেছেন ওই নারী। মামলায় জিতেও যান তিনি।

ভারতের তথ্য কমিশন সেন্ট্রাল ইনফরমেশন এজেন্সি (সিআইসি) আগামী ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে ওই নারীকে তার স্বামীর আয়ের যাবতীয় খুঁটিনাটি বিবরণ সরবরাহ করার নির্দেশ দিয়েছেন আয়কর বিভাগকে।

মামলাকারী সঞ্জু গুপ্তা ভারতের উত্তরপ্রদেশ রাজ্যের বেরিলি জেলার বাসিন্দা।

ভারতের সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, স্বামীর বেতন জানতে চেয়ে প্রথমে আরটিআইয়ের আওতায় আয়কর দপ্তরে আবেদন করেছিলেন সঞ্জু। কিন্তু আয়কর দপ্তর থেকে তাকে ফিরিয়ে দেওয়া হয়। অনুমতি ছাড়া কোনো ব্যক্তির আয়ের বিবরণ অন্য কাউকে জানাতে রাজি হয়নি দপ্তর।

এরপর সঞ্জু ফাস্ট অ্যাপিলেট অথরিটিতে (এফএএ) আবেদন জানান। কিন্তু সেখানেও নাকচ করে দেওয়া হয় তার আবেদন।

দু’জায়গা থেকেই প্রত্যাখ্যাত হয়ে শেষ পর্যন্ত আবেদন জানান সিআইসিতে। এ বিষয়ে হাইকোর্ট এবং সুপ্রিম কোর্টের পুরনো কিছু রায় খতিয়ে দেখার পর অবশেষে গতকাল সোমবার সঞ্জুর পক্ষে রায় দেন সিআইসি।

সিআইসির রায়ে আয়কর দপ্তরকে বলা হয়, আগামী ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে সঞ্জুকে তার স্বামীর বেতন, অন্য কোনো উৎস থেকে তার আয় আছে কি না, তাকে কত কর দিতে হয় এসব খুঁটিনাটি তথ্য দিতে বলা হয়।

মূলত, বিবাহবিচ্ছেদের পর স্বামীর সম্পত্তির ভাগ চাইতে পারেন স্ত্রী। চাইলে স্বামীর কাছ থেকে তিনি খোরপোষও দাবি করতে পারেন। তাই সে সব ক্ষেত্রে স্বামীর আয় জানা স্ত্রীর পক্ষে প্রয়োজনীয় হয়ে ওঠে। তবে সঞ্জু গুপ্তার স্বামী কেন তাকে বেতনের পরিমাণ জানাতে চাননি, তা অবশ্য জানা যায়নি।