শুক্রবার, ২রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শিনজো আবের শেষকৃত্য সম্পন্ন

news-image

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় জাপানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের শেষকৃত্যের অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে। মঙ্গলবার (২৭ সেপ্টেম্বর) রাজধানী টোকিওর নিপ্পন বুদোকান ইন্ডোর এরিনায় ফুলেল শ্রদ্ধা, প্রার্থনা আর ১৯টি তোপধ্বনির মধ্য দিয়ে সাবেক এ প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়েছে জাপান।

আবের শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী অ্যান্থনি আলবানিজ, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসসহ প্রায় ৭০০ বিদেশি বিশিষ্ট ব্যক্তির উপস্থিত ছিলেন। এদিকে শেষকৃত্যে এত বেশি খরচ করা নিয়ে আপত্তি জানিয়ে বিক্ষোভকারীরাও অনুষ্ঠানস্থলের কাছে জড়ো হয়েছিলেন বলে জানায় কাতারভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আল-জাজিরা।

গত ৮ জুলাই জাপানের নারা শহরে এক রাজনৈতিক কর্মসূচির অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেয়ার সময় এক বন্দুকধারীর গুলিতে শিনজো আবে নিহত হন। এরপর পারিবারিকভাবে তার দাহ সম্পন্ন হয়। আজ রাষ্ট্রীয়ভাবে আয়োজন করা হয় আবের শেষকৃত্যে।

জাপানের স্থানীয় সময় বেলা দুইটায় (বাংলাদেশ সময় বেলা ১১টায়) শেষকৃত্য অনুষ্ঠান শুরু হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে এক মোটরশোভাযাত্রার মধ্য দিয়ে আবের দেহভস্মভর্তি বাক্স নিয়ে তার স্ত্রী আকি আবে অনুষ্ঠানস্থলে পৌঁছান। তিনি নিপ্পন বুদোকান হলে ঢোকার সময় ১৯ বার তোপধ্বনি করা হয়।

বুদোকান হলের ভেতরের বেদিতে বিভিন্ন রঙের ফুলের ওপর আবের একটি বড় প্রতিকৃতি ঝুলিয়ে রাখা হয়। প্রতিকৃতিতে জড়ানো হয় কালো রঙের ফিতা। পাশের একটি দেয়ালে সাঁটানো হয় তার আরও কিছু ছবি। অনুষ্ঠানের শুরুর দিকে আবের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে কিছুক্ষণের নীরবতা পালন করা হয়। এরপর ক্ষমতাসীন দলের নেতারা আবের রাজনৈতিক জীবন নিয়ে স্মৃতিচারণা করেন।

জাপানে প্রয়াত কোনো প্রধানমন্ত্রীর জন্য শেষবারের মতো রাষ্ট্রীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার আয়োজন করা হয়েছিল ১৯৬৭ সালে। তখন শিগেরু ইয়োশিদার মৃত্যুতে রাষ্ট্রীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার আয়োজন করা হয়েছিল। আবের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার জন্য ১ কোটি ১৫ লাখ ডলার পরিমাণ অর্থ বরাদ্দ করেছে জাপান সরকার। অর্থনৈতিক সংকটের মধ্যে এ অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠানে এত বেশি খরচ করার প্রতিবাদে কিছুদিন ধরে জাপানে বিক্ষোভ চলছে।