রবিবার, ১৪ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৩০শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বাসে ডাকাতি-ধর্ষণ: আরও ২ আসামি গ্রেপ্তার

news-image

নিজস্ব প্রতিবেদক : কুষ্টিয়া থেকে ছেড়ে আসা ঈগল পরিবহনের বাসে ডাকাতি ও ধর্ষণের ঘটনায় আরও দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শুক্রবার ভোরে গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার সোহাগপল্লী থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার কাঞ্চনপুর গ্রামের শুকুর আলীর ছেলে মো. আউয়াল (৩০), একই উপজেলার শিলাবহ পশ্চিমপাড়া গ্রামের বাহেজের ছেলে নুরনবী (২৬)।

টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার তার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন এ তথ্য জানান।

সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তার দুইজন ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করেছেন। তাদের আরও জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। পাশাপাশি ভুক্তভোগী নারী ও বাসযাত্রীদের সামনে এই দুজনকে হাজির করা হবে।

গত মঙ্গবার সন্ধ্যায় কুষ্টিয়ার দৌলতপুর থেকে ঈগল পরিবহনের একটি বাস নারায়নগঞ্জের উদ্দেশ্যে রওনা হয়। রাত সাড়ে ১১টার দিকে সিরাজগঞ্জের একটি খাবার হোটেলে যাত্রা বিরতি করে। সেখান থেকে যাত্রা শুরুর পর তিন দফায় যাত্রীবেশি কয়েক জন ডাকাত বাসে ওঠে। বাসটি টাঙ্গাইল অতিক্রম করার পর ডাকাতরা অস্ত্রের মুখে চালককে জিম্মি করে বাসটি তাদের নিয়ন্ত্রণে নেয়। তারা যাত্রীদের হাত, পা, চোখ বেঁধে তাদের সব লুট করে নেয়। এ সময় বাসে থাকা এক নারী যাত্রী ধর্ষণ ও নির্যাতনের শিকার হন। এ মূলহোতা রাজা মিয়া নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার ভোরে টাঙ্গাইল শহরের নতুন বাসস্ট্যান্ড এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাকে পাঁচ দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে।

 

এ জাতীয় আরও খবর

গোপন ছবি দিয়ে সাবেক স্ত্রীকে ‘ব্ল্যাকমেইল করছেন’ হিরো আলম

স্বামীকে খুশি করতে ‘রক্ষিতা’ আনলেন স্ত্রী!

ডিমের হালি ৭০ টাকা!

বঙ্গবন্ধু হত্যার ষড়যন্ত্রকারীদের খুঁজতে কমিশনের রূপরেখা প্রস্তুত : আইনমন্ত্রী

সিসিএর গবেষণা : নারীরা বেশি পর্নোগ্রাফির শিকার, পুরুষেরা হ্যাকিংয়ের

পুলিশের গাড়িতে তেল বরাদ্দ কমেছে

ক্ষমতায় গেলে কুইক রেন্টাল ও বিদ্যুৎ খাতে আইন বাতিল করবে বিএনপি

হলিউড অভিনেত্রী অ্যান হেচে আর নেই

কাজের কথা বলে ভাড়া বাসায় নিয়ে ধর্ষণ, খুবি শিক্ষার্থী কারাগারে

‘পররাষ্ট্রমন্ত্রী দেশবাসীর কাছে কৌতুক অভিনেতায় পরিণত হয়েছেন’

স্বামীকে খুশি করতে ‘রক্ষিতা’ আনলেন স্ত্রী!

রুশদির ওপর হামলাকারী কে এই হাদি মাতার?