সোমবার, ৮ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ২৪শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আওয়ামী লীগের ফাঁদে পা দেবে না বিএনপি: গয়েশ্বর

news-image

নিজস্ব প্রতিবেদক : বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, ‘বর্তমান সরকার ও নির্বাচন কমিশনের অধীনে আর কোনো নির্বাচন নয়; টালবাহানার মধ্যে আর কোনো ফাঁদে পা দেবো না। দেশের গণতান্ত্রিক অন্যান্য রাজনৈতিক দলও প্রহসনের কোনো নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে না।’

আজ বুধবার জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের (জেডআরএফ) উদ্যোগে নেত্রকোনার আটপাড়া উপজেলার সুখারী ইউনিয়নে বন্যার্তদের মধ্যে ত্রাণসামগ্রী বিতরণের আগে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে এসব কথা বলেন গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

উপস্থিত বানভাসিদের উদ্দেশে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, ‘আমরা আমাদের সামর্থ্য নিয়ে আপনাদের পাশে দাঁড়িয়েছি। আপনাদের বুঝতে হবে আমরা গত ১৩ বছরের বেশি সময় ধরে আমরা নানান নির্যাতনের শিকার। আপনার এলাকার সন্তান সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর গত ১৪ বছর ধরে কারাগারে। আমাদের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে হাজার হাজার মামলা। সরকার আমাদের নিঃস্ব করে দিয়েছে। তারপরও দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় রাজনৈতিক দল হিসেবে আমাদের নেতা তারেক রহমানের নির্দেশে আপনাদের পাশে দাঁড়িয়েছি।’

গয়েশ্বর বলেন, ‘আপনাদের প্রিয় নেত্রী সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া আজ কারাবন্দি বা গৃহবন্দি। আর আপনারা হলেন পানিবন্দি। সুতরাং দেশের নেত্রী যখন গৃহবন্দি থাকেন, তখন পানিবন্দি মানুষের অসহায়ত্ব দেখার নেতা থাকে না।’

এই মুহূর্তে দেশের ২০ শতাংশ এলাকা বন্যাকবলিত উল্লেখ করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির এ সদস্য বলেন, ‘সব কিছু মিলিয়ে শতাংশ মানুষ বন্যার দুর্ভোগে রয়েছে। কিন্তু দেশের দেশের ১৮ কোটি মানুষ শেখ হাসিনা সরকারের কারণে দুর্ভোগে আছে। এ থেকে আপনাদের মুক্তি পেতে হবে, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে, আপনাদের ভোটের অধিকার আদায় করতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘আপনার ভোট আপনি দেবেন। ভোটকেন্দ্রে গিয়ে নিরাপদে যাকে খুশি তাকে দেবেন। আমাদের আন্দোলন আপনাদের অধিকার ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য। যে দিন আপনাদের নিরাপদ ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে পারব, সেদিনই আমরা নির্বাচনে যাব।’

নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতি প্রসঙ্গে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, ‘যে দেশে তেল, গ্যাস, বিদ্যুৎ, পানির দাম বাড়ে- সে দেশে সবকিছুর দাম বাড়বে। কারণ, এর সঙ্গে উৎপাদন খরচ বেড়ে যায়। এখান থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার একটাই উপায়- আপনাদের ঐক্যবদ্ধ শক্তি। আপনাদের শক্তি আমাদের দলের শক্তি ও দেশের শক্তি। আপনাদের শক্তি ঐক্যবদ্ধ করে এই সরকারকে বিতাড়িত করব এবং দেশ, দেশের জনগণ এবং দেশনেত্রীকে মুক্ত করব।’

এসময় গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের সঙ্গে ছিলেন জেডআরএফের মোর্শেদ হাসান খান, বিএনপি নেতা সৈয়দ এমরাণ সালেহ প্রিন্স, ওয়ারেস আলী মামুন, নেত্রকোনা বিএনপির নেতা ডা. আনোয়ারুল হক, রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

 

এ জাতীয় আরও খবর