সোমবার, ৮ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ২৪শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

নাট-বল্টু খোলার মামলা তদন্ত করবে সিআইডি

news-image

নিজস্ব প্রতিবেদক : সিআইডির সাইবার ইন্টেলিজেন্স অ্যান্ড রিস্ক ম্যানেজমেন্ট বিভাগের বিশেষ পুলিশ সুপার রেজাউল মাসুদ বলেছেন, ‘পদ্মা সেতুর নাট-বল্টু শুধু হাত দিয়ে খোলা হয়নি। এটা হাত দিয়ে খোলা সম্ভব নয়। এ বিষয়ে সেতু কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে জেনেছি, এত বড় একটা স্থাপনার নাট-বল্টু হাত দিয়ে খোলা যাবে না। নাট-বল্টু খোলার জন্য সরঞ্জাম ব্যবহার করা হয়েছে।’

আজ সোমবার রাজধানীর মালিবাগে সিআইডি কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন রেজাউল মাসুদ। তিনি বলেন, গ্রেপ্তার বায়োজিদ তালহার বিরুদ্ধে পদ্মা সেতু দক্ষিণ থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে একটি মামলা করা হয়েছে। বায়োজিদ অন্তর্ঘাতমূলক একটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে, যা ছিল পরিকল্পিত। তার সঙ্গে এ ঘটনায় আরও দুজন ছিল। যারা একটি প্রাইভেটকারে করে ঘটনার দিন পদ্মা সেতুতে যায়। অপরজনকে গ্রেপ্তারে সিআইডির গোয়েন্দা নজরদারি অব্যাহত আছে।

পুলিশের এই কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘বায়োজিদ তালহার একটি টিকটক আইডি রয়েছে এবং তার আরেক বন্ধু কায়সারের টিকটক আইডি থেকে গতকাল রোববার ৩০-৩৫ সেকেন্ডের একটি ভিডিও আপলোড হয়েছে। ভিডিওটি আপলোড হওয়ার এক ঘণ্টার মধ্যে বায়জিদকে শনাক্ত করে অবস্থান নিশ্চিত করে তাকে গ্রেপ্তার করি।’

বায়েজিত তালহার পরিচয় তুলে ধরে রেজাউল মাসুদ বলেন, ‘গ্রেপ্তার যুবকের নাম বায়েজিদ তালহা। তার বাড়ি পটুয়াখালীতে। বর্তমানে ঢাকার শান্তিনগরে থাকে। তার অতীত অপরাধ-কর্মকাণ্ডসহ সবকিছু বিবেচনায় নিয়েই তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সবকিছু তদন্ত করা হবে।’

এ পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় স্থাপনা পদ্মা সেতু। তার কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে বড় ধরনের কোনো দুর্ঘটনা ঘটতে পারত। সেতুতে কোনো ঘটনা ঘটলে তার উচিৎ ছিল সেতু কর্তৃপক্ষ বা ওখানে থাকা পুলিশকে জানানো। কিন্তু সে সেটা করেনি। এটা অনেক বড় অপরাধ বলে জানান তিনি।

 

এ জাতীয় আরও খবর