মঙ্গলবার, ১৭ই মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৩রা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

যমুনা নদীতে মিলল বিরল প্রজাতির ‘সাকার ফিশ’

news-image

নিজস্ব প্রতিবেদক,বগুড়া : বগুড়ার ধুনট উপজেলায় যমুনা নদীর ভাণ্ডারবাড়ি ঘাট এলাকায় এবারই প্রথম মিলেছে আকর্ষণীয় শারীরিক গঠনের নান্দনিক সৌন্দর্যের বিরল প্রজাতির সাকার মাছ। আজ শনিবার সকালে আব্দুর রহমান নামে স্থানীয় এক জেলের জালে ওঠে মাছটি। স্থানীয়রা এটিকে বলছেন ‘টাইগার মাছ’। তবে মাছটির আসল নাম ‘সাকার মাউথ ক্যাটফিশ’। নদীতে সাধারণত এমন মাছ মেলে না। ‘অদ্ভুত’ এ মাছটি দেখতে তাই নদী তীরে উৎসুক জনতা ভিড় জমায়।

মাছটির শরীরে বাদামি রঙ এবং কালো রঙের ডোরাকাটা ছাপ রয়েছে। এ বৈশিষ্ট্যের কারণে স্থানীয় লোকজন এর নাম দেন টাইগার মাছ। প্রায়ই জেলেদের জালে একই প্রজাতির আরও মাছ ধরা পড়ছে এ নদীতে। মাছটির ওজন ৫০০ গ্রাম থেকে ২ কেজি পর্যন্ত হয়ে থাকে। এ মাছ স্থানীয় বাজারে আকারভেদে ৪০০ থেকে ৫০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়।

যমুনাপাড়ের ভূতবাড়ী গ্রামের জেলে আব্দুর রহমান বলেন, দীর্ঘদিন ধরে যমুনা নদীতে মাছ ধরছি। এবারই প্রথম এ প্রজাতির মাছ দু-একটি করে জালে ধরা পড়ছে। বিরল প্রজাতির এ মাছটি পেয়ে তিনি খুশি। নিজেদের খাবারের জন্য মাছটি বাড়িতে নিয়েছেন।

স্থানীয় বাসিন্দা আব্দুর রাজ্জাক জানান তিনি আগে এ ধরনের মাছ দেখেননি, নামও জানা ছিল না তার।

ধুনট উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মীর্জা ওমর ফারুক বলেন, এটি বিদেশি মাছ। সাকার মাউথ ক্যাটফিশ ইংরেজি নাম হলেও এর বৈজ্ঞানিক নাম হাইপোস্টমাস। সাধারণত এ জাতীয় মাছ মুখ দিয়ে চুষে খাবার খায়। বিভিন্ন দেশে এটি অ্যাকুয়ারিয়ামে শোভাবর্ধক হিসেবে ব্যবহার করা হয়। এরা পানির তলদেশে বাস করে এবং শ্যাওলাজাতীয় উদ্ভিদ খায়।