শুক্রবার, ২০শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আ. লীগের জায়গায় বিএনপি এলেই সব ঠিক হয়ে যাবে না : ডা. জাফরুল্লাহ

news-image

নিজস্ব প্রতিবেদক : সরকারের পরিবর্তন হলেই গুণাবলির পরিবর্তন হয় না বলে মন্তব্য করেছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার সরকার যা করে গেছে, শেখ হাসিনা সরকার তা বহাল রেখেছে।

আজ শুক্রবার রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে গণঅধিকার পরিষদ আয়োজিত ‘মার্কিন নিষেধাজ্ঞা ও আমাদের করণীয়’ শীর্ষক আলোচনা সভায় অংশ নিয়ে জাফরুল্লাহ চৌধুরী এসব কথা বলেন।

মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে র‌্যাবের সাবেক ও বর্তমান কর্মকর্তাদের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা এবং শান্তিরক্ষা মিশনে র‌্যাবকে নিষিদ্ধ ঘোষণার দাবির প্রেক্ষাপটে এ সভার আয়োজন করা হয়।

ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, কল্যাণকর রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করতে হবে। মনে রাখতে হবে আওয়ামী লীগের জায়গায় বিএনপি এলেই সব ঠিক হয়ে যাবে না। মনে রাখা উচিত, বিএনপির দুটি ভুল হচ্ছে, তারা অপারেশন ক্লিনহার্ট তৈরি করেছিল এবং ওষুধের দাম বাড়িয়েছিল।

যুক্তরাষ্ট্রের এই নিষেধাজ্ঞায় খুব বেশি খুশি হওয়ার জায়গা নেই উল্লেখ করে জাফরুল্লাহ চৌধুরী এ থেকে শিক্ষা নেওয়ার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, ‘দেশবাসীকে জানাতে হবে, এত দিন আমরাই বলেছি। এখন বিদেশেও এগুলো আলোচনা হচ্ছে। এখন থেকে সাবধান হতে হবে।’

বিএনপিকে সব রাজনৈতিক দলের অফিসে গিয়ে কথা বলার আহ্বান জানান ডা. জাফরুল্লাহ। এ ছাড়া তাদের রাস্তায় থাকতে বলেন। তিনি বলেন, সবার মতামত নিয়ে কল্যাণকর রাষ্ট্র গঠন করতে হবে। পুরোনো মদ নতুন বোতলে ভরলে লাভ হবে না।

আগামী নির্বাচন আগের দুই নির্বাচনকেও ছাড়িয়ে যাবে উল্লেখ করে জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, নির্বাচনে প্রধান শিক্ষকদের ব্যবহার করা হবে এবং জেলা প্রশাসকেরা তো অনুগত আছেই। এসব ব্যাপারে সতর্ক হতে হবে।

তিনি জানান, তিন মাসের তত্ত্বাবধায়ক সরকার কোনো পরিবর্তন আনতে পারবে না। অন্তত দুই বছরের জন্য একটা জাতীয় সরকার দরকার। তিনি প্রধানমন্ত্রীকে দায়িত্ব ছেড়ে দিয়ে জাতীয় সরকার গঠনের আহ্বান জানান। আমলা দিয়ে সুশাসন কায়েম হয় না-এমন মন্তব্যও করেন তিনি।

সভাপতির বক্তব্যে গণঅধিকার পরিষদের আহ্বায়ক রেজা কিবরিয়া বলেন, যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের গণতন্ত্রের পক্ষে অবস্থান নিয়েছে। গত ১২ বছরেও বিরোধী দল কোনো প্রভাব ফেলতে পারেনি। যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞার জন্য সরকার দায়ী। তারা নিজেদের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে মানবাধিকার লঙ্ঘনের কাজে জড়িয়েছে।

 

এ জাতীয় আরও খবর