শনিবার, ২১শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শাবিপ্রবির অনশনরত শিক্ষার্থীদের কিছু হলে দায় সরকারের : আ স ম রব

news-image

নিজস্ব প্রতিবেদকসিলেট শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবিপ্রবি) অনশনরত শিক্ষার্থীদের কিছু হলে সরকারকেই সম্পূর্ণ দায়ভার বহন করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন ডাকসুর সাবেক ভিপি ও জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রব। তিনি বলেন, ‘অবিলম্বে শিক্ষার্থীদের ন্যায়সংগত দাবি-দাওয়া মেনে নিয়ে তাদের প্রাণরক্ষার সর্বাত্মক উদ্যোগ নিতে সরকারের প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানাচ্ছি।’

আজ শুক্রবার এক বিবৃতিতে তিনি এসব কথা বলেন।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, অনশনরত শিক্ষার্থীরা তিলে তিলে মৃত্যুর দিকে এগোচ্ছে। খোলা আকাশের নিচে দেশের সম্ভাবনাময় শিক্ষার্থীরা অভুক্ত অবস্থায় জ্বর ও প্রচণ্ড ঠান্ডায় মৃত্যুর দিকে ধাবিত হবে, আর সরকার বা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ রাজনৈতিক দাবা খেলার নির্মম কৌশল নিয়ে ব্যস্ত থাকবে-তা এদেশের সংগ্রামী ছাত্রসমাজ ও দেশবাসী কোনোভাবেই মেনে নেবে না।

আ স ম রব বলেন, এই ছাত্রসমাজই আন্দোলন-সংগ্রামের মধ্য দিয়ে বাঙালি জাতীয়তাবাদকে বিশ্ব দরবারে প্রতিষ্ঠা করার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত রেখেছে। অসামান্য সংগ্রামের ইতিহাস সমৃদ্ধ ছাত্রসমাজের প্রতি অবহেলা বা ভয়ভীতি প্রদর্শন যেকোনো সময় ভয়ংকর রূপ ধারণ করতে পারে।

ডাকসুর সাবেক এই ভিপি বলেন, শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলনরত ছাত্রদের ওপর পুলিশের লাঠিপেটা, শটগানের গুলি এবং সরকার সমর্থিত ছাত্রলীগের হামলা আজকের এই পরিস্থিতির জন্য দায়ী। রাজপথে সংগ্রামরত ছাত্রদের ওপর পুলিশ এবং সরকারি ছাত্রসংগঠনের পরিকল্পিত হামলা, আক্রমণ এবং নিষ্ঠুরতা সরকারের রাজনৈতিক ব্যবস্থার অংশ হয়ে পড়েছে।

অতীতেও নিরাপদ সড়ক এবং কোটাবিরোধী আন্দোলনে ছাত্রদের ওপর হেলমেটবাহিনীর হামলা হয়েছে কিন্তু কোনোটারই বিচার হয়নি। সংশ্লিষ্টদের অবশ্যই হামলার অপরাধের জন্য আইনের আওতায় আনতে হবে। তা না হলে গোটা সমাজ ব্যবস্থাটাই চরম বিপদগ্রস্ত হয়ে পড়বে-যোগ করেন তিনি।

আ স ম রব আরও বলেন, শিক্ষার্থীদের জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে সরকার বা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কেউ তাদের পাশে না দাঁড়িয়ে বরং তাদের বিপক্ষে অবস্থান নিচ্ছে। আমাদের সংগ্রামী ও সাহসী সন্তানেরা ন্যায়সঙ্গত দাবিতে মৃত্যুঝুঁকি নিয়ে আমরণ অনশনরত থাকবে আর সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করবে, এটা সভ্যতার পরিচায়ক হতে পারে না। এটা আমাদের জাতির জন্য চরম লজ্জাজনক।

 

এ জাতীয় আরও খবর