মঙ্গলবার, ২৮শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ১৪ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সীতাকুণ্ডে আ. লীগের ২ পক্ষের সংঘর্ষ, গুলিবিদ্ধ ৫

news-image

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি : চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোট চলাকালে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী শওকত আলী জাহাঙ্গীর ও বিদ্রোহী প্রার্থী আরিফুল আলম চৌধুরী রাজুর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে এক ইউপি সদস্য প্রার্থীসহ ৫ জন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১টায় বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ কেন্দ্র ও বাঁশবাড়িয়া উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আশরাফুল করিম বলেন, স্ট্রাইকিং ফোর্স নিয়ে আসা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আছে । সুষ্ঠুভাবে আবারও ভোটগ্রহণ শুরু হবে।

সংঘর্ষের ঘটনায় ইউপি সদস্য প্রার্থী সেলিম উদ্দিন, তার ভাই মহিউদ্দিন, সমর্থক জাফর উদ্দিন, নুর উদ্দিন, ইমাম উদ্দিন জনি, নুর উদ্দিনসহ ৫ জন গুলিবিদ্ধ হন। তাদের পায়ে একাধিক ছররা গুলির ক্ষত পাওয়া গেছে।

আহতদের উদ্ধার করে সীতাকুণ্ড উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসা শেষে চমেকে রেফার করা হয়।

জানা যায়, সবুজ ক্যাপ পরিহিত একদল হামলাকারী বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের পাশ্ববর্তী কেন্দ্র বাঁশবাড়িয়া উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র লক্ষ্য করে গুলি চালায়। এ সময় ভোটাররা এদিক-ওদিক ছোটাছুটি করতে শুরু করে।

এ সময় রাজু ও শওকত আলী জাহাঙ্গীরের পক্ষের লোকজনের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। একই সময়ে ওই ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য প্রার্থী সেলিম উদ্দিন (তালা) ও মাজহারুল ইসলাম চৌধুরী মাসুদের (বৈদ্যুতিক পাখা) কর্মী-সমর্থকরাও সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

এ বিষয়ে সীতাকুণ্ডের সহকারী কমিশনার (ভূমি) আশরাফুল আলম বলেন, দ্রুত আইনশৃঙ্খলা বাহিনী পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আনতে কাজ করছে। আমরা তৎপর রয়েছি। যেকোন ধরণের অপতৎপরতা রুখে দেয়া হবে।

সীতাকুণ্ড উপজেলার দায়িত্বে রয়েছেন ৬ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। তারা হলেন— তাহমিনা আক্তার, রাজিব হোসেন, আশরাফুল আলম, গালিব চৌধুরী, ফাহমিদা আফরোজ, মঈন উদ্দিন।

সীতাকুণ্ড উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে ৫টি (সৈয়দপুর, মুরাদপুর, সোনাইছড়ি, ভাটিয়ারি, কুমিরা) ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। ফলে এই সব ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে না। তবে অন্যান্য পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। বাকি চার (বাড়বকুণ্ড, বাঁশবাড়িয়া, বারৈয়াঢালা, ছলিমপুর) ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদসহ সব পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন হওয়া ৪টি ইউনিয়নের মোট চেয়ারম্যান প্রার্থীর সংখ্যা ৯ জন।

এছাড়া পুরো উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে সংরক্ষিত ওয়ার্ড সদস্য পদে ৬৪ জনের মধ্যে ৭ জন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এবং সাধারণ ওয়ার্ড সদস্যপদে ২৯৪ জনের মধ্যে ৪ জন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। এখানে মোট ভোটার সংখ্যা ২ লাখ ৬৪ হাজার ৯৮৯ জন। এদের মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৪১ হাজার ৩৮১ জন এবং মহিলা ভোটার ১ লাখ ২৩ হাজার ৬০৮ জন।