মঙ্গলবার, ২৮শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ১৪ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

টেটা-বল্লম নিয়ে কেন্দ্র দখল: ব্যালট বক্স লুট, ভোট স্থগিত

news-image

নরসিংদী প্রতিনিধি : নরসিংদীতে হানাহানি, সংঘাত ও সংঘর্ষের মধ্যদিয়ে চলছে ইউপি নিার্বচনের ভোটগ্রহণ। এরই মধ্যে কেন্দ্র দখল ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে রায়পুরা উপজেলার দুর্গম চরাঞ্চল বাঁশগাড়ী ইউনিয়নে প্রতিপক্ষের হামলায় ৩ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

এদিকে বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে রায়পুরা উপজেলার চসুবুদ্ধি ইউনিয়নের মহিষবের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে হামলা, ব্যালট পেপার ও ব্যালট বক্স লুটের অভিযোগ কেন্দ্রটি স্থায়ীভাবে স্থগিত করা হয়েছে।

এছাড়াও বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জাল ভোট দেয়াকে কেন্দ্র করে রায়পুরার আমিরগঞ্জ ইউনিয়নের করিমগঞ্জ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ব্যাপক সংঘর্ষ-মারামারির ঘটনা ঘটেছে। এতে সাইফুল নামে একজনের মাথা ফেটে যায় এবং বেশ কয়েকজন আহত হয়। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, চরসুবুদ্ধি ইউনিয়নের মহিষবের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে বেলা সাড়ে ১১টায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী খোরশেদ আলমের দুই শতাধিক লোকজন টেঁটা-বল্লম নিয়ে কেন্দ্র দখল করে। ব্যালট পেপার লটু করে নেয়। এ সময় কেন্দ্রে দায়িত্বে থাকা এসআই নিয়ায়েত ও আনসার সদস্য কাউসার আহত হয়। পরে কেন্দ্রে ভোট স্থগিত করেন প্রিজাইডিং অফিসার শফিকুল ইসলাম।

আরও পড়ুন: রায়পুরার নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত ৩

চরসুবুদ্ধি ইউনিয়নের মহিষবের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার শফিকুল ইসলাম বলেন, অবস্থা খুবই খারাপ। শত শত লোক টেঁটা নিয়ে কেন্দ্রে হামলা করে ব্যালট বক্স ও ব্যালট পেপার ছিনিয়ে নিয়েছে। জানমালের নিরাপ্তার স্বার্থে ঊর্ধ্বতন কর্মকতাদের সাথে কথা বলে কেন্দ্রটি স্থায়ীভাবে স্থগিত করা হয়েছে।

এদিকে নরসিংদী সদর উপজেলা ২টি ইউনিয়নে ও রায়পুরার ১০টি ইউনিয়নে বিভিন্ন কেন্দ্রগুলোতে ভোটগ্রহণ চলছে। সকাল ৮টা থেকে শুরু হওয়া এই ভোট চলবে টানা বিকাল ৪টা পর্যন্ত। নির্বাচনী পরিবেশ নিয়ন্ত্রণে মাঠে রয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা।

জেলার নরসিংদী সদর ও রায়পুরা উপজেলার মোট ১২টি ইউনিয়নে চলছে এই ভোটগ্রহণ। এর মধ্যে রায়পুরায় ১০টি ও নরসিংদী সদরে ২টি ইউনিয়ন পরিষদের মোট ১১৫টি ভোটকেন্দ্রে চলছে ভোটগ্রহণ। নির্বাচনে চেয়ারম্যানে পদে মোট ৬৪ জন, সাধারণ ওয়ার্ডের সদস্য পদে ৩৫২ জন ও সংরক্ষিত ওয়ার্ড সদস্য পদে ১৩১ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।