বৃহস্পতিবার, ২৮শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১২ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে মন্দিরের তোরণ ভাঙচুর

news-image

গাজীপুর প্রতিনিধি : গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার তুমুলিয়া ইউনিয়নের পাড়ারটেক এলাকায় একটি শিব মন্দিরের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে তোরণ ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে।

মঙ্গলবার দিবাগত মধ্যেরাতে পাড়ারটেক বুড়া-বুড়ি শিবপার্বতী আশ্রমে এ ঘটনা ঘটে।

পাড়ারটেক বুড়া-বুড়ি শিব-পার্বতী আশ্রমের কোষাধ্যক্ষ গোলক ঘোষ বলেন, দুর্গাপূজা উপলক্ষে মন্দিরের আশপাশসহ মন্দিরে আলোকসজ্জার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়াও মন্দিরের প্রবেশদ্বারে একটি তোরণ নির্মাণ করা হয়। পূজা চলাকালীন মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে পার্শ্ববর্তী জেলা নরসিংদীর দাউদপুর ইউনিয়নের ৫-৭ জন যুবক আশ্রমের মন্দিরে কীর্তন অনুষ্ঠানে নাচে অংশ নেয়। পরে তাদের কেউ কেউ নেশাগ্রস্ত মনে হওয়ায় তাদেরকে মন্দির থেকে বের করে দেয়া হয়। তাদের বয়স ২৫-৩০ বছরের মতো।

গোলক ঘোষ বলেন, রাত ১২টার পর আমি বাসায় চলে যাই। অন্যরাও তার তার মতো আশ্রম এলাকা ত্যাগ করে। কিন্তু মন্দিরে থাকা কয়েকজন ঘুমিয়ে পড়েন। গভীর রাতে ঘুম ভেঙে গেলে তারা দেখতে পান মন্দিরের প্রবেশপথে তোরণ ও আশেপাশের এলাকায় বিদ্যুৎ নেই। পরে তারা দেখেন তোরণের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে এবং তোরণটি ভেঙে ফেলা হয়েছে।

ধারণা করা হচ্ছে নাচতে না দেয়ার জেরে তারা আগে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে, পরে মন্দিরের প্রবেশদ্বারের তোরণে হামলা চালিয়ে ভেঙে ফেলছে। এছাড়াও মন্দিরের চারপাশে আলোকসজ্জার জন্য লাগানো লাইট এবং বৈদ্যুতিক তার ছিঁড়ে ফেলেছ পালিয়ে গেছে তারা। ঘটনাটি কালীগঞ্জ থানা পুলিশকে জানানো হয়েছে। কয়েকজনের নামও পুলিশকে দেয়া হয়েছে।

একই কথা জানিয়েছেন তুমুলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আবু বক্কর বাক্কু ও স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. মুজিবুর রহমান।

এ বিষয়ে জানতে কালীগঞ্জ থানার ওসির সরকারি নম্বরে একাধিকবার ফোন করলেও তিনি রিসিভ করেননি।

কালীগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফারজানা ইয়াসমিন বলেন, বুধবার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে জানতে পেরেছি, তোরণের খুঁটি দুর্বল ছিল। গাড়ির ধাক্কায় তোরণটি কাঁত হয়ে পড়েছে। তারপরও বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।