সোমবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে রাজি নয় কুয়েত ও কাতার

news-image

অনলাইন ডেস্ক : ইহুদিবাদী ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে রাজি নয় কাতার। অন্যান্য উপসাগরীয় আরব দেশগুলোর মতো ইসরায়েলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনে কাতার যোগ দেবে না। এর কয়েক দিন আগে ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক না করার ঘোষণা দেয় আরেক পারস্য উপসাগরীয় দেশ কুয়েত।

শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের টেলিভিশন চ্যানেল সিএনবিসিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে কাতারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে দখলদারিত্বের কারণে ইসরায়েলকে স্বীকৃতি দেয়া হবে না। ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে ইসরাইলি দখলদারিত্ব অবসান না ঘটানো এবং কয়েক দশকের সংঘাতের নিরসন না হওয়া পর্যন্ত কাতার সম্পর্ক স্বাভাবিক করবে না ইসরাইলের সঙ্গে।

কাতার যেসব কারণে এতদিন ইসরায়েলকে স্বীকৃতি দেয়নি সেসব কারণ এখনও রয়েছে জানিয়ে কাতারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ আব্দুল রহমান বিন আল থানি বলেন, ইসরাইল শান্তি প্রতিষ্ঠায় কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করলেই দীর্ঘদিনের এই সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে না।
এদিকে, ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিকীকরণ নিষিদ্ধ করে কুয়েতের জাতীয় সংসদে একটি বিল পাস হয়েছে। কুয়েতের জাতীয় সংসদ গাজা উপত্যকার ওপর সাম্প্রতিক ইসরায়েলি পাশবিক হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বিলটি পাস করেছে। ফিলিস্তিন পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করতে কুয়েত জাতীয় সংসদের জরুরি অধিবেশন ডাকা হয়। অধিবেশনে সংসদ সদস্যরা ফিলিস্তিনি জাতির প্রতি তাদের অকুণ্ঠ সমর্থন ঘোষণা করেন। তারা বলেছে, পূর্ব জেরুজালেম আল-কুদসকে রাজধানী করে স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্র গঠিত না হওয়া পর্যন্ত ফিলিস্তিনি জনগণের প্রতি কুয়েতের সংহতি ও সহমর্মিতা অব্যাহত থাকবে। কুয়েতের পার্লামেন্ট স্পিকার মারজুক আলী আল-ঘানেম বলেছেন, ফিলিস্তিন ইস্যুতে কুয়েতের জনগণ ও সরকারের অবস্থান জানিয়ে দিতে জাতীয় সংসদের বিশেষ অধিবেশন বসেছে। ফিলিস্তিন হচ্ছে কুয়েতের প্রধান জাতীয় ইস্যু। তিনি গাজা উপত্যকার বেসামরিক অবস্থানগুলোতে ভয়াবহ আগ্রাসনের তীব্র নিন্দা জানান। এছাড়া, কুয়েতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শায়খ আহমাদ নাসের আল-মোহাম্মাদ আস-সাবাহ বলেছেন, ফিলিস্তিনি জাতির প্রকৃত অধিকার প্রতিষ্ঠিত হওয়ার আগ পর্যন্ত তাদের প্রতি কুয়েতের অকুণ্ঠ সমর্থন অব্যাহত থাকবে।