মঙ্গলবার, ১৫ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১লা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

অক্সিজেন বিভ্রাটে পাঁচ মিনিটে ১১ রোগীর মৃত্যু

news-image

নিউজ ডেস্ক : ভারতের অন্ধ্র প্রদেশে একটি হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) অক্সিজেন সরবরাহে দেরি হওয়ায় ১১ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর মৃত্যু হয়েছে। গতকাল সোমবার স্থানীয় সময় রাতে এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন রাজ্যের চিত্তুর জেলার ডিসি এম হরি নারায়ণ। সিলিন্ডারে অক্সিজেন ভরতে পাঁচ মিনিট দেরি হওয়ায় মৃত্যুর এ ঘটনা ঘটে বলে জানান তিনি।

ভারতীয় সম্প্রচার মাধ্যম এনডিটিভি তাদের এক প্রতিবেদনে বলেছে, ভারতের অন্ধ্র প্রদেশের তিরুপতি এলাকার রুইয়া হাসপাতালের আইসিইউতে ১১ রোগীর মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। সিলিন্ডারের অক্সিজেন শেষ হয়ে যাওয়ায় সেটি পুনরায় ভরতে কর্মীরা ৫ মিনিট সময় নিয়েছিলেন। এ সময়ের মধ্যেই মৃত্যুগুলো ঘটে।

চিত্তুর জেলার ডিসি এম হরি নারায়ণ জানান, হাসপাতালে অক্সিজেনের কোনো ঘাটতি ছিল না। এতে প্রায় ৭০০ জন করোনা রোগী আইসিইউ ও অক্সিজেন বেডে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। আরও ৩০০ জন সাধারণ বেডে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। হঠাৎ কয়েকটি সিলিন্ডারে গ্যাস শেষ হয়ে যায়। অবশ্য, অক্সিজেন সরবরাহ পাঁচ মিনিটের মধ্যেই আগের জায়গায় নিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করা হয় বলেও তিনি জানান।

হরি নারায়ণ আরও বলেন, ‘পাঁচ মিনিটের মধ্যে অক্সিজেন সরবরাহ ঠিক করা হয় আর এখন সবকিছু স্বাভাবিক আছে। আমরা অতিরিক্ত সিলিন্ডার মজুত করেছি আর ভয় পাওয়ার কোনো কারণ নেই। চিকিৎসা কর্মীরা দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ায় বড় ধরনের বিপর্যয় এড়ানো গেছে।’

এনডিটিভির প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, অক্সিজেন-স্বল্পতার কথা শুনে দ্রুত আইসিইউতে যান প্রায় ৩০ জন চিকিৎসক। তাদের পূর্ণ চেষ্টায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়।

রুইয়া হাসপাতালে ১১ রোগী মৃত্যুর ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী ওয়াইএস জগন মোহন রেড্ডি। ঘটনার পূর্ণ তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে শোচনীয় অবস্থা ভারতে। গতকাল সোমবার পর্যন্ত দেশটিতে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ২ লাখ ৪৬ হাজার ১১৬ জনের। ভাইরাসটি শনাক্ত হয়েছে ২ কোটি ২৬ লাখ ৬২ হাজার ৫৭৫ জনের দেহে।