সোমবার, ১৯শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ৬ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

‘খাদ্য-পুষ্টিতে দেশের শক্তিশালী অবস্থানের পেছনে কৃষি খাত’

news-image
অনলাইন ডেস্ক : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেছেন, খাদ্য ও পুষ্টি ক্ষেত্রে বাংলাদেশ অত্যন্ত শক্ত অবস্থানে রয়েছে। এর পেছনে দেশের কৃষি খাতের অবদান রয়েছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
আজ মেহেরপুরে বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএডিসি)আয়োজিত আলু ফসলের মাল্টি লোকেশন পারফরম্যান্স যাচাইয়ের মাঠ দিবস-২০২১ এ প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।
তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের সদিচ্ছা ও সক্ষমতার কারণে বাংলাদেশ বিভিন্ন ক্ষেত্রে অভূতপূর্ব সাফল্য অর্জন করেছে। খাদ্য ও পুষ্টির ক্ষেত্রে বাংলাদেশ অত্যন্ত শক্ত অবস্থানে রয়েছে। আর এ কারণে বাংলাদেশের জন্য করোনা মোকাবেলা সহজ হয়েছে। প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, খাদ্য ও পুষ্টিতে দেশের এই শক্তিশালী অবস্থানের পিছনে কৃষি খাতের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা সফলভাবে করোনা মোকাবেলা করেছি, যা সারাবিশ্বেই প্রশংসিত হয়েছে। করোনা মোকাবিলায় আমরা বিশ্বে সফলতম দেশগুলোর একটি। করোনা মোকাবেলার মত করোনা ভ্যাকসিন প্রদানেও আমরা সফলতার সাথে কাজ করছি।
প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় থাকলে কৃষক লাভবান হয়, জনগণ উপকৃত হয়, দেশ এগিয়ে যায়। সব ধরনের বাধা অতিক্রম করে আমরা প্রতিনিয়ত এগিয়ে যাচ্ছি।
প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, বাংলাদেশে দুটি পক্ষ রয়েছে। একটি স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তি, আর অন্যটি বিপক্ষের। যারা বাংলাদেশের উন্নয়ন চায় না, তারা মিথ্যাচার ও ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে দেশকে পিছনের দিকে নিয়ে যেতে চায়। সব ধরনের ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে দেশের উন্নয়নকে আরো এগিয়ে নিতে সকলকে একযোগে কাজ করতে হবে।
প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, বাংলাদেশ বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল। আর মেহেরপুর বাংলাদেশের রোল মডেল। স্বাস্থ্য, কৃষি, শিক্ষা,  অর্থনীতি সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে মেহেরপুর অত্যন্ত উল্লেখযোগ্য অবস্থানে রয়েছে। এই অঞ্চলের অবস্থানকে আরো দৃঢ় করতে সকলকে নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার সাথে কাজ করে যেতে হবে।
মেহেরপুর জেলা প্রশাসক ড. মোহাম্মদ মুনসুর আলমের সভাপতিত্বে বিএডিসি’র চেয়ারম্যান ড. অমিতাভ সরকার বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন। মেহেরপুরের পুলিশ সুপার এস এম মুরাদ আলী, বিএডিসি’র সদস্য পরিচালক (বীজ ও উদ্যান) মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।