সোমবার, ১৯শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ৬ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ভারতের প্রধান বিচারপতির পদত্যাগ দাবি

news-image

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : জেল এড়াতে ধর্ষণের শিকার স্কুলছাত্রীকে বিয়ে করতে ধর্ষককে পরামর্শ দেন ভারতের প্রধান বিচারপতি শারদ অরবিন্দ বোব্দে। তার এই পরামর্শের প্রতিবাদে পাঁচ হাজারেও বেশি মানুষ এক পিটিশনে স্বাক্ষর করেছেন, যাতে প্রধান বিচারপতির পদত্যাগের দাবি তোলা হয়েছে।।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, তিনজন বিচারকের একটি বেঞ্চের প্রধান হিসাবে বিচারপতি ধর্ষণে অভিযুক্তকে জিজ্ঞেস করেন, তিনি ধর্ষণের শিকার মেয়েটিকে বিয়ে করবেন কি না? তিনি বলেন, ‘আপনি যদি ওই মেয়েকে বিয়ে করতে চান, আমরা আপনাকে সাহায্য করতে পারি। না চাইলে আপনি চাকরি হারাবেন এবং জেলে যাবেন।’

প্রধান বিচারপতিকে লেখা ওই ‘খোলা চিঠিতে’ নারী অধিকার কর্মী এবং উদ্বিগ্ন নাগরিকরা তাদের ক্ষোভ প্রকাশ করে লিখেছেন, বোব্দের মন্তব্যে তারা ‘ক্রদ্ধ’ এবং তাকে তার বিবৃতি প্রত্যাহার করে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে এই চিঠিতে।

খোলা চিঠিতে স্বাক্ষরদানকারী ভারতের প্রথম সারির নারীবাদী এবং বেসরকারি সংস্থাগুলো বলেছে, অপ্রাপ্তবয়স্ক একটি মেয়ের ধর্ষণের মামলা নিষ্পত্তিতে আপস হিসেবে আপনি বিয়ের যে প্রস্তাব দিয়েছেন তা ন্যক্কারজনকের চেয়েও খারাপ এবং ধর্ষকের শিকার একজনের ন্যায়-বিচারের অধিকার মারাত্মকভাবে ক্ষুণ্ন হয়েছে। অভিযুক্ত ধর্ষককে বিয়ে করার এই প্রস্তাব দিয়ে আপনি ভারতের প্রধান বিচারপতি মেয়েটিকে একজন নির্যাতনকারী, যে তাকে আত্মহত্যার পথে ঠেলে দিয়েছিল তার হাতে সারাজীবন ধর্ষণের জন্য তুলে দিচ্ছেন।

সূত্র : বাংলাদেশ প্রতিদিন