বৃহস্পতিবার, ৪ঠা মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১৯শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

জনগণ বিএনপির মিথ্যাচারের জবাব দিয়েছে : কাদের

news-image

নিজস্ব প্রতিবেদক : আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, পৌরসভা নির্বাচনে ভোটারদের ব্যাপক অংশগ্রহণ ও উৎসবের আমেজে ভোটাধিকার প্রয়োগের মাধ্যমে নির্বাচন নিয়ে বিএনপির মিথ্যাচারের জবাব দিয়েছে জনগণ।

শনিবার বিকেলে নিজের সরকারি বাসভবন থেকে দ্বিতীয় ধাপের পৌরসভা নির্বাচন পরবর্তী তাৎক্ষণিক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘দ্বিতীয় ধাপে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটারদের ব্যাপক অংশগ্রহণ ও উৎসব আমেজে ভোটাধিকার প্রয়োগের মাধ্যমে নির্বাচন নিয়ে যারা মিথ্যাচার করে, তার জবাব জনগণ তাদের দিয়েছে।’

দেশের নির্বাচন ব্যবস্থাকে প্রশ্নবিদ্ধ করার যে অপপ্রয়াস অবিরাম চালিয়ে যাচ্ছে বিএনপি, তা আর হালে পানি পাচ্ছে না বলেও দাবি করেন তিনি।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, জনগণ এখন আর বিএনপি নেতাদের মিথ্যাচারে বিশ্বাস করে না। বিএনপি ভোটের মাঠে শেষ পর্যন্ত টিকে থাকার আত্মবিশ্বাস হারিয়ে ফেলে মাঝে-মধ্যে তারা কল্পিত অভিযোগ এনে ভোটের মাঠ ত্যাগ করে তাদের চর্চিত নেতিবাচক রাজনীতির ঐতিহ্য ধরে রাখার অপচেষ্টা করে।

বিএনপি উদ্দেশ্যমূলক বিরোধিতা করলেও দেশের জনগণ অত্যন্ত সাবলীলভাবে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন-ইভিএমে ভোট প্রদান করেছে বলেও দাবি করেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহারে জনগণ ইতিমধ্যে অভ্যস্ত হয়ে উঠলেও বিএনপির মানসিকতা এখনে অ্যানালগ রয়ে গেছে। তাই তারা এ পদ্ধতির বিরোধিতা করে।

ভোটার এবং নির্বাচন কমিশনকে আন্তরিক অভিনন্দন জানিয়ে তিনি বলেন, নির্বাচনে জয়-পরাজয় থাকবে, তবুও স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানসমূহকে শক্তিশালী করার মাধ্যমে গণতন্ত্রকে এগিয়ে নিতে এ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য সকল প্রার্থীদের ধন্যবাদ।

নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভা নির্বাচন নিয়ে গণমাধ্যম এবং রাজনৈতিক মহলে ব্যাপক আগ্রহ ছিল উল্লেখ করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, সেখানেও অবাধ, শান্তিপূর্ণ ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

তিনি বলেন, বসুরহাটে যে নির্বাচন হয়েছে এমন নির্বাচনই চান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ নির্বাচনকে অনেকেই স্বচ্ছতার জন্য ‘বসুরহাট মডেল’ হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি ভোটে হারার আগেই হেরে বসে থাকে। তারা রাজপথ ভয় পায়,আন্দোলনেও ভয় পায়।