রবিবার, ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১১ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

নেপালে মিস ইউনিভার্সে ইতিহাস গড়লেন ট্রান্সজেন্ডার অ্যাঞ্জেল লামা!

news-image

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : প্রথম ট্রান্সজেন্ডার হিসেবে কোনও বিউটি কনটেস্টের ফাইনালে উঠে ইতিহাস গড়লেন অ্যাঞ্জেল লামা। মিস ইউনিভার্স নেপালের ফাইনালিস্ট হলেন হলেন তিনি। আজ সেই অনুষ্ঠানে যখন নিজের হাতে স্বীকৃতি তুলে নিচ্ছিলেন, তার চোখে মুখে গর্বের ছাপ স্পষ্ট ধরা পড়ছিল। খবর নিউজ এইটটিনের।

বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশ কয়েক বছর আগে ট্রান্সজেন্ডার মানুষজনকে বিউটি কন্টেস্টে জায়গা দেওয়া শুরু করে। তার মধ্যে নেপাল অন্যতম। মায়ানমার, মঙ্গোলিয়ার পরই রয়েছে নেপাল। এই ধরনের প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য প্রথমের দিকে উচ্চতা, ওজন ও অ্যাপিয়ারেন্সে প্রাধান্য থাকলেও পরের দিকে সেই নিয়মে ছাড় দেওয়া হয়। আর ছাড় দেওয়ার পরই বর্তমানে ১৮ থেকে ২৮ বছরের যে কোনও মহিলাই এই ধরনের অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার সুযোগ পায়।

এ বিষয়ে ২১ বছর বয়সী লামা সংবাদ সংস্থা রয়টার্সকে জানান, সমাজে মানুষের মধ্যে কত বৈচিত্র রয়েছে, তা দেখানোর জন্য আমি মিস ইউনিভার্স নেপালে অংশগ্রহণ করি। আমি যদি স্ট্যান্ডে দাঁড়িয়ে সকলকে সমতার বিষয়টি দেখাতে পারি, তা হলে সেটাই হবে আমার সব চেয়ে বড় পাওনা। সব চেয়ে বড় মুকুট!

২০০৮ সালের পর থেকে নেপালে হিন্দুরা এই LGBT ব্যাপারটিকে বুঝতে শুরু করে এবং মেনে নিতে শুরু করে। তার আগে ২০০৭ সালে সুপ্রিম কোর্ট বৈষম্য বিরোধী নির্দেশিকা জারি করে। এবং জানিয়ে দেয়, বাকি সকলের মতো LGBT মানুষদেরও সব বিষয়ে সমান অধিকার রয়েছে। এর পর ২০১০ সালে প্রথম প্রাইড প্যারেড শুরু হয়।

অ্যাঞ্জেল ফাইনালিস্ট হওয়ায় তাই আনন্দে ভাসছেন তিনি। জানাচ্ছেন, এই বার্তা সকলের কাছে পৌঁছবে। এ বিষয়ে অ্যাঞ্জেল আরও জানান, তিনি যখন বুঝতে পারেন নিজের মধ্যে পরিবর্তনের বিষয়টি তখন বাবা-মা’কে সব খুলে বলেন। কিন্তু যেহেতু তার বাবা-মা’র ন্যূনতম শিক্ষাও নেই, তাই বিষয়টি মেনে নিতে, বুঝতে অনেকটা সময় লেগে যায়।
সূত্র : বাংলাদেশ প্রতিদিন