বৃহস্পতিবার, ২১শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ৫ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

জমি বিতর্কে অমর্ত্য সেনের পাশে দাঁড়ালেন মমতা

news-image

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : শান্তিনিকেতনে ‘প্রতীচী’র জমি নিয়ে যে বিতর্ক তৈরি হচ্ছে, সে বিষয়ে নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেনকে চিঠি লিখে তার পাশে থাকার বার্তা দিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সম্প্রতি অমর্ত্যের শান্তিনিকেতনের বাড়ি নিয়ে বিতর্ক প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, ‘প্রতীচী’র জমি নিয়ে যে বিতর্ক তৈরি করা হচ্ছে, সংবাদমাধ্যম থেকে তা জানতে পেরে তিনি ‘বিস্মিত ও আহত’।

সরাসরি কোনও রাজনৈতিক দলের নাম না করে অমর্ত্যকে মমতা লিখেছেন, ‘বিশ্বভারতীর কিছু নব্য হানাদার সম্প্রতি আপনার পারিবারিক সম্পত্তি নিয়ে সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন অভিযোগ তুলতে শুরু করেছে’। সেই সঙ্গেই মমতার ঘোষণা, ‘এ দেশের সংখ্যাগরিষ্ঠতার গোঁড়ামির বিরুদ্ধে আপনার লড়াইয়ে আমার পূর্ণ সমর্থন রয়েছে’।

নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদকে লেখা চিঠিতে তাকে ‘সম্মাননীয় অমর্ত্যদা’ বলে সম্বোধন করেন মমতা। চিঠির শেষে প্রণামও জানিয়েছেন। লিখেছেন, ‘অনুগ্রহ করে এ দেশের আধিপত্যবাদ ও অসহিষ্ণুতার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আমাকে আপনার বোন ও বন্ধু হিসেবে গণ্য করুন’।

অমর্ত্য ও তার পরিবারের সঙ্গে শান্তিনিকেতনের দীর্ঘদিনের নিবিড় যোগাযোগের প্রসঙ্গ তুলে মমতা লিখেছেন, ‘আপনার মাতামহ পণ্ডিত ক্ষিতিমোহন সেন ছিলেন শান্তিনিকেতনের প্রথম যুগের বাসিন্দাদের একজন। আপনার বাবা শিক্ষাবিদ ও প্রশাসক আশুতোষ সেন আট দশক আগে প্রতীচী নির্মাণ করেছিলেন। শান্তিনিকেতনের সংস্কৃতি ও বন্ধনের সঙ্গে আপনাদের পরিবার নিবিড়ভাবে আবদ্ধ’।

গত বৃহস্পতিবার নবান্নে এক সংবাদ সম্মেলনে বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা। অমর্ত্যকে কেন্দ্রীয় সরকার এবং বিজেপি অসম্মান করছে বলে অভিযোগ তুলে তিনি বলেছিলেন, ‘অমর্ত্যবাবুর অমর্যাদা আমরা হতে দেব না।’

প্রতীচীর জমি প্রসঙ্গে তিনি বলেছিলেন, ‌‌‌‘আপনারা কি বিশ্বাস করেন, অমর্ত্য সেনের এমন দিনও আসবে, যে তাকে শান্তিনিকেতনে জমি দখল করতে হবে! অমর্ত্য সেন আদর্শগতভাবে বিজেপির বিরুদ্ধে বলে, তার বিরুদ্ধে যা ইচ্ছা তাই বলে যাবে, এটা বাংলার মানুষ সহ্য করবে না। আমি বাংলার হয়ে ক্ষমা চাইছি। ক্ষমা করবেন অমর্ত্যদা। আপনাদের মতো মানুষকেও এরা সম্মান দিতে জানেন না। আমি দুঃখিত।’

সূত্র: আনন্দবাজার