বুধবার, ২১শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ৮ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সাতক্ষীরায় শ্বশুরকে গলা কেটে হত্যা

news-image

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি: সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার দেয়াড়া ইউনিয়নের বিশ্বাসপাড়ায় কৃষক মোসলেম উদ্দীন বিশ্বাসকে (৬৫) গলা কেটে হত্যার ঘটনায় ব্যবহৃত ছুরি ও হ্যান্ড গ্লাভস উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার (২৭ নভেম্বর) বিকেলে নিহতের বাড়ির ৫০০ গজ দূরের একটি পুকুর থেকে এসব উদ্ধার করা হয়। একই সঙ্গে হত্যাকাণ্ডের সময় হত্যাকারীর শরীরে পরিহিত জ্যাকেট ও কাদামাখা প্যান্ট উদ্ধার করা হয়েছে। এ সময় নিহতের জামাতাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

গ্রেফতার আবুল কালাম আজাদ দেয়াড়া দাখিল মাদরাসার শিক্ষক ও নিহত মোসলেম উদ্দীন বিশ্বাসের ছোট মেয়ের জামাই। নিহত কৃষক মোসলেম উদ্দীন দেয়াড়া গ্রামের মৃত. নঈমুদ্দীনের ছেলে।

সাতক্ষীরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর-সার্কেল) মীর্জা সালাউদ্দিন বলেন, হত্যাকাণ্ডের পরপরই পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ও হত্যার রহস্য উন্মোচনে প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে তদন্ত শুরু করে। তদন্তের একপর্যায়ে শুক্রবার সকালে গ্রেফতার করা হয় নিহত মোসলেম উদ্দীন বিশ্বাসের ছোট জামাতা দেয়াড়া দাখিল মাদরাসার শিক্ষক আবুল কালাম আজাদকে।

তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক নিহতের বাড়ির ৫০০ গজ দূরের একটি পুকুর থেকে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ছুরি ও হ্যান্ড গ্লাভস উদ্ধার করা হয়েছে। একই সঙ্গে নিহতের ভাতিজার ঘর থেকে হত্যাকাণ্ডের সময় তার গায়ে থাকা জ্যাকেট ও কাদামাখা প্যান্ট উদ্ধার করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, পারিবারিক বিরোধের জের ধরে ২৪ নভেম্বর দিবাগত রাতের কোন একসময় বাড়িতে কেউ না থাকায় কৃষক মোসলেম উদ্দীন বিশ্বাসকে গলা কেটে হত্যা করেন জামাতা। এ কাজে তাকে সহযোগিতা করেন নিহতের ভাতিজা।

 

এ জাতীয় আরও খবর

স্বপ্নের ব্যাটিংয়ে তিন অঙ্কের দেখা পেলেন শান্ত

লকাডাউনে কর্মহীন রংপুর বিভাগের লাখো দিনমজুর

করোনাক্রান্তিতে মানবিক কাজে রংপুর জেলা ছাত্রলীগ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার তান্ডবের ঘটনায় আরও ১১ জন গ্রেফতার 

করোনায় আরও ৯৫ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৪২৮০

জনপ্রতি ফিতরা সর্বোচ্চ ২৩০০, সর্বনিম্ন ৭০ টাকা

রংপুরে ভিক্ষুক পুনর্বাসনে নেই অগ্রগতি ১১ হাজার ২৭৬ জন ভিক্ষুকের মধ্যে পুনর্বাসন হয়েছে মাত্র ১৫০ জনের

৪ দিনের রিমান্ডে ‘শিশুবক্তা’ রফিকুল

অল্পের জন্য সেঞ্চুরি হলো না তামিমের

তামিম-শান্তর ব্যাটে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ

তীব্র পানির সংকট : লকডাউন ভেঙে রাস্তায় মানুষ

করোনায় ‘বলপ্রয়োগে’ বেড়েছে ধর্ষণ