সোমবার, ১৬ই মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ২রা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বাস পোড়ানোর মামলায় আরো ১৫ জন গ্রেপ্তার

news-image

নিজস্ব প্রতিবেদক : ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনের মধ্যে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে বাস পোড়ানোর ঘটনায় আরো ১৫ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবারের এসব ঘটনায় দায়ের মোট ১৬টি মামলায় রোববার পর্যন্ত মোট ৪৭ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

ঢাকা মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার মোহাম্মদ ওয়ালিদ হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

এর আগে শনিবার বিকাল পর্যন্ত এসব ঘটনায় মোট ৩২ জন গ্রেপ্তার হয়, যাদের মধ্যে ২৬ জনকে হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনে ভোটগ্রহণ হয়। এর মধ্যেই নির্বাচনী এলাকায় হাতবোমার বিস্ফোরণ ঘটে। এছাড়া ঢাকার বিভিন্ন স্থানে মোট ১১টি বাস পোড়ানো হয়। এসব ঘটনায় ৯টি থানায় মোট ১৬টি মামলা হয়েছে।

বাস পোড়ানোর জন্য বিএনপিকে দায়ী করছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতারা। অন্যদিকে বিএনপি দাবি করছে, তাদের ফাঁদে ফেলতে ক্ষমতাসীনরাই বাস পুড়িয়েছে।

এদিকে এ মামলায় হাইকোর্টে আগাম জামিন আবেদন করেছেন বিএনপির দেড় শতাধিক নেতাকর্মী। রোববার পৃথক ১৩টি পত্রে জামিন আবেদন করেন তারা। বিএনপির আইন সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল এ তথ্য জানিয়েছেন।

বুধবার বিচারপতি হাবিবুল গণির নেতৃত্বাধীন ডিভিশন বেঞ্চে জামিন শুনানি হবে।

ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনের দিন (১২ নভেম্বর) বিকালে ঢাকার বিভিন্ন স্থানে ১০টির বেশি গাড়িতে আগুন দেয়া হয়। এ ঘটনায় ১০টির বেশি মামলা হয়েছে। এসব মামলায় হাইকোর্টে জামিন চেয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ওই উপনির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী জাহাঙ্গীর হোসেন, যুবদল এবং ছাত্রদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ঢাকা মহানগরের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা।

ব্যারিস্টার কায়সার কামাল জানান, রাজধানীতে বাসে আগুন দেয়ার ঘটনায় বিএনপির গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ইশরাক হোসেন, বিএনপি প্রার্থী জাহাঙ্গীর হোসেন, ছাত্রদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এবং যুবদলের সাধারণ সম্পাদকসহ মোট ৪৬০ জনকে আসামি করে ১০টি মামলা করা হয়েছে। এসব মামলায় অন্তত ১৪০ জন নেতাকর্মী আগাম জামিন আবেদন করেছেন। আগামী বুধবার হাইকোর্ট বেঞ্চে শুনানি হবে।