শনিবার, ২৩শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ৭ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ফরাসি পণ্য বয়কটের ঘোষণা নুসরাত ফারিয়ার

news-image

নিজস্ব প্রতিবেদক : হযরত মুহম্মদ (স.) কে অপমান করার অভিযোগ আনা হয়েছে ফ্রান্সের বিরুদ্ধে। এর প্রতিবাদে উত্তাল মুসলিম বিশ্ব। এই ইস্যুতে মুসলিম বিশ্ব ফ্রান্সের পণ্য বয়কটের ঘোষণা দিয়েছে। সেই আন্দোলনে শরীক হলেন বাংলাদেশের অভিনেত্রী নুসরাত ফারিয়া।

৩০ অক্টোবর নিজের ফেসবুক টাইম লাইনে নুসরাত ফারিয়া লিখেন, ‘আমি আমার (ফরাসি ব্র্যান্ডের) কার্টিয়ে ঘড়িটি ফেলে দিচ্ছি।’ এরপর হ্যাশট্যাগের মাধ্যমে ফরাসি পণ্য বর্জনের ডাক দেন ফারিয়া।

ফারিয়ার এমন মন্তব্যে অনেক ভক্তই প্রশংসা করেছেন আবার কেউ কেউ ফারিয়ার এমন ঘোষণায় বিস্ময়ও প্রকাশ করেছেন। তবে ফারিয়া জানিয়েছেন, চলমান এই বিতর্কের সুরাহা না হওয়া পর্যন্ত তিনি ফ্রান্সের পণ্য ব্যবহার করবেন না।

এদিকে নুসরাত ফারিয়ার ফরাসি পণ্য বয়কট করার বিষয়টি নিয়ে অনেকে সমালোচনা করেছেন। সমালোচনার জবাবে ৩১ অক্টোবর নুসরাত ফারিয়া আরেকটি পোস্টে লিখেন, ‘একটা সহজ বিষয়কে কেন আপনারা জটিল করে তুলছেন। কোনো বিবৃতি যদি আমাকে আঘাত করে তাহলে একজন অভিনেত্রী হিসেবে কেন আমি আমার মতামত জানাতে পারব না? আমার ধর্মবিশ্বাস নিয়ে আমি ২০০ভাগ মতামত জানানোর অধিকার রাখি। আমার অনুভূতি আমি প্রকাশ করতেই পারি। এটাকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করা আপনার মানসিকতা, আমার নয়।’

‘পটাকা’খ্যাত এই আশিকী গার্ল সম্প্রতি প্রকাশ করেছেন তার দ্বিতীয় গান ‘আমি চাই থাকতে’। এ ছাড়া তিনি বর্তমানে ব্যস্ত ‘পাতালঘর’ সিনেমার কাজ নিয়ে। ৭ নভেম্বর থেকে ওয়েব ফিল্ম ‘যদি… কিন্তু… তবুও’র শুটিংয়ে অংশ নেয়ারও কথা আছে তার।

এ জাতীয় আরও খবর

পীরগঞ্জের মাঝিপাড়ার ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে আর কোন ভয়ভীতি নেই : পরিদর্শনকালে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী

নাস্তায় পুষ্টিকর ও মজাদার কিমা স্যান্ডউইচ

‘পাকিস্তানের আফগানিস্তান দখল’

তাহসান-সাবিলার টেলিফিল্মে সুস্মিতা আনিসের গান

শুটিংয়ে অভিনেতার হাতে চিত্রগ্রাহক নিহত, কঙ্গনার অভিজ্ঞতা

হোসনি দালানে বোমা হামলার বিচার ছয় বছরেও শেষ হয়নি

যশোর শিক্ষা বোর্ডের আরও আড়াই কোটি টাকার হদিস মিলছে না

মিতু হত্যা: যশোর থেকে গ্রেফতার আসামি ভোলা

পীরগঞ্জের ঘটনায় গ্রেফতার দুজন জিজ্ঞাসাবাদে যা জানালো

বিশ্ববাজারে বাড়লো স্বর্ণের দাম

এ যাত্রায় রক্ষা মেয়র জাহাঙ্গীরের, পাচ্ছেন ‘কড়াবার্তা’

অদ্ভুত বোল্ড ডি কক, বিপর্যয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা