সোমবার, ৫ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কেন্দ্র দখল, জাল ভোট প্রদান ও সহিংসতার প্রতিবাদে জেলা বিএনপির প্রতিবাদ মিছিল সমাবেশ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ব্যাপক ভোট জালিয়াতি, কেন্দ্র দখল, জাল ভোট প্রদান ও সহিংসতার মাধ্যমে আওয়ামীলীগ সমর্থিত প্রর্থীকে জয়ী করার প্রতিবাদে  মঙ্গলবার বিক্ষোভ মিছিল সমাবেশ করেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা বিএনপি। মঙ্গলবার বিকেলে জেলা সদরের রেল গেট এলকা থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। পরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাবের সামনে প্রতিবাদ সমাবেশে জেরা বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি সাবেক পৌর মেয়র হাফিজুর রহমান মোল্লা কচির সভাপতিত্বে বক্তব্যরাখেন জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জহিরুল হক খোকন, বিএনপি নেতা এডঃ শফিকুল ইসলাম,এডভোকেট আনিসুর রহমান মন্জু, সিরাজুল ইসলাম সিরাজ , এ.বি.এম. মোমিনুল হক, বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী হাজী মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর প্রমুখ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, স্থানীয় সাংসদের প্রভাবে  প্রশাসনের সহায়তায় সরকার দলীয় ক্যাডাররা ব্রাহ্মণবাড়িয়া দক্ষিণাঞ্চলের ভোট কেন্দ্র দখল করে  জাল ভোটের মাধ্যমে সরকার সমর্থিত প্রার্থীকে জয়ী ঘোষণা করেছে। বক্তরা ষড়যন্ত্রমূলক এ ভোটের ফলাফল বাতিল করে পুনঃ নির্বাচনের দাবী জানান।

এদিকে মঙ্গলবার বিকেলে  ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাবে এক সাংবাদিক সম্মেলনে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী হাজী মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর সাংবাদিকদের জানান, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার দক্ষিণাঞ্চলের ৪ টি ইউনিয়নের বিভিন্ন কেন্দ্রে ভোট ডাকাতি হয়েছে। তিনি ২১ টি কেন্দ্রে ব্যাপক অনিয়ম ভোট জালিয়াতি কেন্দ্র দখলের অভিযোগ করে বলেন, বিভিন্ন কেন্দ্র সম্পর্কে নির্বাচন সংশ্লিস্টদের কাছে অভিযোগ করেও কোন লাভ হয়নি। প্রশাসন আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী স্থানীয় সংসদ সদস্যের প্রভাবে পক্ষপাতিত্ব করেছে।

আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সামনে জাল বোট প্রদানের মহোৎসব হয়েছে। বিভিন্ন কেন্দ্রে প্রিজাইডিং অফিসার সহ সংশিল্স্টরা সন্ত্রাসীদের দাপটে অসহায়ত্ব প্রকাশ করেছে। তিনি বলেন সরকার দলীয় ক্যাডারদের হাতে বিএনপির শীর্ষ নেতৃবৃন্দ হামলার শিকার হননি সাংবাদিকদেরও কর্তব্যকাজে বাধা দেয়া হয়েছে। ভোটের জালিয়াতির ছবি ফুটেজ খবর বিভিন্ন মিডিয়ায় এসেছে।  তিনি বলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ৮০/৮৫ টি কেন্দ্রে গড়ে ভোট ছিল শতকরা ৪০ ভাগ। কিন্তু সরকার সমর্থিতদের দখল করা কেন্দ্র গুলোতে ভোট পড়েছে শতকরা ৮৫ ভাগের ও বেশী। তিনি বলেন নির্বাচনে জয় পরাজয় আছে কিন্তু জনগণের আশা ভঙ্গের এ প্রহসনের নির্বাচনের জন্য যারা দায়ী তাদের উপর আল্লাহর গজব পড়বে। তিনি নির্বাচনের ঘোষিত ফলাফল বাতিল করে দক্ষিণাঞ্চলের  বিভিন্ন কেন্দ্র সহ ২১ টি কেন্দ্র এ পুনরায় ভোট গ্রহণের  দাবী জানান।