মঙ্গলবার, ৯ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ২৫শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বাসে ধর্ষণের ঘটনায় চালক ও সহকারীর যাবজ্জীবন

52fc6021f304b-indexমানিকগঞ্জে চলন্ত বাসে নারী পোশাকশ্রমিককে ধর্ষণ করার ঘটনায় করা মামলায় চালক ও সহকারীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। এ ছাড়া উভয় আসামিকে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা ও অনাদায়ে তিন বছর কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

দণ্ড পাওয়া আসামিরা হলেন বাসের চালক দীপু মিয়া (৩২) ও সহকারী কাশেম মিয়া (২৬)। সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) আবদুস সালাম এ তথ্য জানিয়েছেন।

আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা ১৫ মিনিটে জেলা জজ এ কে এম মোস্তফা দেওয়ান এ রায় ঘোষণা করেন। ৯ ফেব্রুয়ারি এ মামলায় দুই পক্ষের আইনজীবীদের শুনানি শেষে ১৩ ফেব্রুয়ারি রায়ের তারিখ ধার্য করা হয়।

আদালত সূত্রে জানা যায়, গত বছরের ২৪ জানুয়ারি দুপুরে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের মানিকগঞ্জ সদর উপজেলায় চলন্ত বাসে এক নারী পোশাকশ্রমিক (১৮) ধর্ষণের শিকার হন।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানানো হয়, বাসচালক দীপু তাঁকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। পরে তাঁর সহকারী কাশেম ওই পোশাকশ্রমিককে ধর্ষণ করেন। ওই দিন বিকেলে মানিকগঞ্জ কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল থেকে তাঁকে উদ্ধার করে পুলিশ থানায় নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় ওই দিন রাতে ধর্ষণের শিকার পোশাকশ্রমিক বাসের চালক দীপু ও সহকারী কাশেমের বিরুদ্ধে মানিকগঞ্জ সদর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। মামলা পরিচালনার দায়িত্ব নেয় মহিলা আইনজীবী সমিতি। ওই দিন বিকেলে পুলিশ মানিকগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড থেকে দীপুকে এবং রাতে ঢাকার আশুলিয়ার নবীনগর থেকে কাশেমকে গ্রেপ্তার করে। পরদিন (২৫ জানুয়ারি) আসামি দীপু ও কাশেমকে আদালতে হাজির করা হয়। আদালতে দোষ স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন তাঁরা। জবানবন্দি শেষে বিচারক শেখ মো. মুজাহিদ-উল ইসলাম আসামিদের জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

বাসচালক দীপু মিয়া মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার গুরকি গ্রামের আতরাফ হোসেনের ছেলে এবং সহকারী কাশেম মিয়া একই উপজেলার দুলাপাড়া গ্রামের বিন্দু মিয়ার ছেলে।

৯ ফেব্রুয়ারি জেলা ও দায়রা জজ আদালতে দুই পক্ষের আইনজীবীরা দীর্ঘ সময় যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন। এতে বাদীপক্ষে শুনানিতে অংশ নেন সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) আবদুস সালাম, মহিলা আইনজীবী সমিতির তৌহিদা খন্দকার, ফাহমিদা আক্তার ও মনোয়ারা বেগম এবং আসামিদের পক্ষে ছিলেন মহিউদ্দিন আহমদ ও আবদুল জলিল মোল্লা। মামলায় ১৪ জন সাক্ষীর জবানবন্দি নেওয়া হয়।