বুধবার, ২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ১৫ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

হাঁটুর ব্যথা কমাবে যে ৩ খাবার

news-image

[২] হাঁটুর ব্যথায় জর্জরিত অনেকেই। দিন দিন এই রোগে আক্রান্তে সংখ্যা বাড়ছে। মূলত মহিলাদের মধ্যেই এই অসুখ বেশি করে চেপে বসছে। বয়স ৩০ থেকে ৪০ পেরচ্ছে কিনা, দানা বাঁধছে হাঁটুর ব্যথা। কারণ যাই হোক, হাঁটুর ব্যথা বাড়ে শীতকালে। সুস্থ থাকতে শুধু ওষুধ খেলে হবে না। খাওয়াদাওয়াতেও বদল আনতে হবে। কোন খাবারগুলি বেশি খেলে সুস্থ থাকবে হাঁটু? সূত্র: আনন্দবাজার

[৩] হাঁটুর ব্যথা এখন আর বার্ধক্যের অসুখ নয়। এটা ঠিক যে, বয়স বাড়লে ব্যথা বাড়ে। তবে কম বয়সেও এখনও হাঁটুর ব্যথায় ভুগছেন অনেকেই। শরীরচর্চা না করলে অনেক সময় গাঁটে গাঁটে ব্যথা বাড়ে। তা ছাড়া, সারা দিন অফিসে বসে থেকে কাজ। হাঁটাহাঁটির কোনও সুযোগ থাকে না। দীর্ঘ সময় একটানা বসে থাকতে থাকতে পেশিগুলিও সঙ্কুচিত হয়ে আসে। তবে কারণ যাই হোক, হাঁটুর ব্যথা বাড়ে শীতকালে। সুস্থ থাকতে শুধু ওষুধ খেলে হবে না। খাওয়াদাওয়াতেও বদল আনতে হবে। কোন খাবারগুলি বেশি খেলে সুস্থ থাকবে হাঁটু?

[৪] আদা: হাঁটুর ব্যথা কমাতে আদা খুব উপকারী ভূমিকা পালন করে। আদা বহু স্বাস্থ্যগুণে সমৃদ্ধ। সর্দি-কাশি কমানো থেকে শরীরের বিভিন্ন অংশে ব্যথা নিয়ন্ত্রণ— সবেতেই আদা খুব উপকারী। রান্নায় ব্যবহার করা ছাড়াও, চায়ে আদা দিয়ে খেতে পারেন।

[৫] বাদাম: কাঠবাদাম, কাজুর মতো বিভিন্ন ধরনের বাদামে স্বাস্থ্যকর ফ্যাট আর ওমেগা ৩ রয়েছে ভরপুর পরিমাণে। রোজ সকালে ভেজানো বাদাম খান অনেকেই। এই অভ্যাস ভাল। তবে শুধু কাঠবাদাম খেলে হবে না, সঙ্গে খেতে হবে আখরোট আর কাজুবাদামও। এ ছাড়াও ডায়েটে রাখুন চিয়া বীজ, তিসির বীজের মতো উপকারী কিছু বীজ। হাঁটুর ব্যথা থাকবে নিয়ন্ত্রণে।

[৬] রসুন: রান্নার স্বাদে পরিবর্তন আনা ছাড়াও, রসুন শরীরের ব্যথা-যন্ত্রণাও দূরে রাখে। কারণ রসুনে রয়েছে অ্যান্টিইনফ্ল্যামেটরি উপাদান, যা শরীরের পেশি সবল রাখতে সাহায্য করে। সেই সঙ্গে গাঁটের ব্যথা নিয়ন্ত্রণে রাখতেও গুরত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। গরম ভাতে এক কোয়া রসুন খেতে পারেন। উপকার পাবেন। এ ছাড়াও কাঁচা রসুনও খেতে পারেন।