শুক্রবার, ১৯শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ৪ঠা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কর্মী নিতে লটারি ছেড়েছে দ. কোরিয়া, আবেদন করবেন যেভাবে

news-image

রাশিদুল ইসলাম জুয়েল,দক্ষিণ কোরিয়া
ইপিএসের আওতায় ই-৯ ভিসায় বাংলাদেশ থেকে দক্ষ শ্রমিক নেবে দক্ষিণ কোরিয়া। দেশটির শিল্পখাতে বাংলাদেশি প্রার্থীদের নিয়োগের লক্ষ্যে কোরীয় ভাষা পরীক্ষায় (ইউবিটি) অংশগ্রহণের জন্য লটারির তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে।

আগামী ১১ জুন বেলা ১১টায় বাংলাদেশ ওভারসিজ এমপ্লয়মেন্ট অ্যান্ড সার্ভিসেস লিমিটেডের (বোয়েসেল) অভিবাসী সম্মেলন হলে এ অনুষ্ঠিত হবে। লটারিতে অংশ নিতে আগামী ৬ জুন সকাল ১০টা থেকে ৮ জুন বিকেল ৪টা পর্যন্ত অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। গত বৃহস্পতিবার বোয়েসেল থেকে এ তথ্য জানানো হয়।

নিম্নবর্ণিত যোগ্যতা ও শর্তপূরণ সাপেক্ষে নির্ধারিত নিবন্ধন সাইট boesl.gov.bd ও eps.go.kr অনলাইন নিবন্ধন সম্পন্ন করা যাবে।

কোরিয়ায় যেতে আগ্রহীদের এই নিয়োগে আবেদনের জন্য যে যোগ্যতা থাকতে হবে তা হলো:

শিক্ষাগত যোগ্যতা এসএসসি/সমমান।
পাসপোর্টের মেয়াদ থাকতে হবে।
এসএসসি/সমমান সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্রের সঙ্গে পাসপোর্টের মিল থাকতে হবে।
বয়স সীমা ১৮ থেকে ৩৯ বছর হতে হবে।
E-9 ভিসায় Dirty Difficult Dangerous (3D) কাজ করতে সমস্যা নেই তারা আবেদন করতে পারবেন।
যাদের কালার ব্লাইন্ডনেস বা রঙ বোঝার সক্ষমতার সমস্যা রয়েছে তারা অযোগ্য বলে বিবেচিত হবেন।
কোরীয় ভাষা পড়া, লেখা ও বোঝার পারদর্শিতা থাকতে হবে।
মাদকাসক্ত/সিফিলিস শনাক্ত ব্যক্তিরা অযোগ্য বলে বিবেচিত হবেন।
ফৌজদারি অপরাধে জেল বা অন্য কোনো শাস্তি হয়নি।
যারা দক্ষিণ কোরিয়ায় কখনো অবৈধভাবে অবস্থান করেনি।
যাদের ওপর বিদেশ যাত্রায় কোনো নিষেধাজ্ঞা নেই বা যেতে কোনো সমস্যা নেই।
যারা ই-৯ বা ই-১০ ভিসায় কোরিয়াতে ৫ বছর বেশি থাকেনি।

নিবন্ধন সংক্রান্ত তথ্য:

অনলাইন প্রাথমিক নিবন্ধন: আগামী ৬ জুন সকাল ১০টা থেকে ৮ জুন বিকেল ৪টা পর্যন্ত।
অনলাইন প্রাথমিক নিবন্ধনকৃত প্রার্থীর সংখ্যা ২০ হাজারের বেশি হলে এইচআরডি কোরিয়া কর্তৃক লটারির মাধ্যমে কোরীয় ভাষা পরীক্ষায় (ইউবিটি) অংশগ্রহণের লক্ষ্যে চূড়ান্ত নিবন্ধনের জন্য প্রার্থী নির্বাচন করা হবে।
লটারি: আগামী ১১ জুন বেলা ১১টায় বোয়েসেলের অভিবাসী সম্মেলন হলে অনুষ্ঠিত হবে।
চূড়ান্ত নিবন্ধন: আগামী ১৩ জুন থেকে রোস্টার ভিত্তিক শুরু হবে।
চূড়ান্ত নিবন্ধনকারী অর্থাৎ প্রবেশ পত্র গ্রহণকারী প্রার্থীদের ব্যক্তিভিত্তিক পরীক্ষায় আগামী ২৫ জুলাই থেকে ১৩ সেপ্টেম্বরে প্রবাসী কল্যাণ ভবনের নির্ধারিত ইউবিটি হলে অনুষ্ঠিত হবে।
গত বছরের শেষ নাগাদ প্রায় ৫ হাজার ২০০ বাংলাদেশি কর্মী দক্ষিণ কোরিয়ায় কাজের সুযোগ পান, যা গত কয়েক বছরের তুলনায় রেকর্ড। চলতি বছর দেশটিতে প্রায় ৭ হাজার ৫০০ বাংলাদেশি কর্মী যাওয়ার সুযোগ পাবেন বলে জানিয়েছেন ঢাকায় নিযুক্ত কোরীয় রাষ্ট্রদূত লি জাং কিউন। এ ছাড়া অতিরিক্ত আরও ৫ হাজার কর্মী ও কৃষি ভিসায় মৌসুমি শ্রমিক পাঠানোর সুযোগও থাকছে।

বর্তমানে নতুন করে বাংলাদেশ থেকে বেসরকারিভাবে ই-সেভেন ভিসায় প্রচুর বাংলাদেশি যাচ্ছে দক্ষিণ কোরিয়াতে‌। ফলে সেদেশে নতুন করে সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে বাংলাদেশিদের।

দক্ষিণ কোরিয়া ও বাংলাদেশ সরকারের মধ্যে ২০০৭ সালে কর্মী নিয়োগের সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। এই চুক্তির আওতায় ২০০৮ সাল থেকে দেশটিতে দক্ষ কর্মী পাঠানো শুরু করে বাংলাদেশ সরকার। তবে ধারণা করা হচ্ছে, মে মাসের শেষ সপ্তাহে লটারি সার্কুলার হওয়ার সম্ভাবনা আছে।

আগ্রহীরা যাবতীয় তথ্য বোয়েসেলের ওয়েবসাইটে গিয়ে হোমপেজে ক্লিক করলে সব তথ্য পাবেন। ফেসবুক পেজেও এই তথ্য পাওয়া যাবে। লটারি সার্কুলারে আবেদন করার জন্য যাদের কম্পিউটার নেই তারা নিজেদের মোবাইলের মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন। এ ছাড়া যেকোনো কম্পিউটারের দোকান থেকে নির্ভুলভাবে আবেদন করা যাবে।