বৃহস্পতিবার, ২রা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ ১৯শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

নতুন দায়িত্বে মৌসুমী

news-image

বিনোদন প্রতিবেদক : সিনিয়র চলচ্চিত্র তারকা শিল্পী-কুশলীদের সংগঠন ‘বাংলাদেশ সিনে স্টার ফোরাম’-এর সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন প্রিয়দর্শনী মৌসুমী। সংগঠনটির ষষ্ঠ বছরে এ দায়িত্ব দেওয়া হলো তাকে। গতকাল শনিবার সকাল ১০টায় এফডিসির জহির রায়হান প্রজেকশন হলে ফোরামের পঞ্চম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পূর্তিতে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন ফোরামের সভাপতি বিশিষ্ট চলচ্চিত্রকার শফি বিক্রমপুরী।

জানা গেছে, ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস কাঞ্চন শিল্পী সমিতির নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করায় সংগঠন থেকে ইস্তফা দেন। তখন বরেণ্য চিত্রনির্মাতা কাজী হায়াতকে এ পদে ‘ভারপ্রাপ্ত’ করে দায়িত্ব অর্পণ করা হয়। সম্প্রতি তিনিও পরিচালক সমিতির সভাপতি পদে নির্বাচনে আগ্রহী হওয়ায় ফোরাম থেকে অব্যাহতি চাইলে মৌসুমীকে এ পদে নির্বাচিত করা হয়।

সভায় কাজী হায়াত ফোরামকে লিমিটেড কোম্পানির আওতায় আনার প্রস্তাব করলে উপস্থিত সবাই সমর্থন দেন। এ ছাড়াও সংগঠনের অন্তর্ভূক্তির সময়সীমা কমিয়ে আনার প্রস্তাবও করেন। এ পর্যায়ে ইলিয়াস কাঞ্চন তার বক্তব্যে প্রযোজক ও অভিনেতা মনোয়ার হোসেন ডিপজল, প্রযোজক-অভিনেতা ও প্রদর্শক নাদির খানকে ফোরামটি এগিয়ে নিতে সহযোগিতা কামনা করেন।

সভায় আবু মুসা দেবু, দেলোয়ার জাহান ঝন্টু, সাইদুর রহমান সাঈদ, সুচন্দা, চন্দনা, অঞ্জনা, বাপ্পারাজ, আওকাত হোসেন, হাফিজউদ্দিন, দেওয়ান নজরুল, বাদল খন্দকারসহ চলচ্চিত্র অঙ্গনের গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

এদিনে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সিনে স্টার ফোরাম একটি স্মরণিকা প্রকাশ করে। এতে সংগঠনের সার্বিক কার্যক্রমসহ নানা বিষয় তুলে ধরা হয়েছে। এ ছাড়া তাদের কার্যক্রমের একটি ফটো অ্যালবামও এ স্মরণিকায় রয়েছে।

নতুন সাধারণ সম্পাদক মৌসুমী বলেন, ‘এই ফোরামের কার্যক্রম অনেক আগে থেকেই দেখছি। আমার অনেক ভালো লেগেছে। আমি ও ওমর সানী এবার ফোরামের সদস্য পদ পেয়েছি। আমি সত্যিই কৃতজ্ঞ এই বরেণ্য মানুষদের সঙ্গে থাকতে পেরে।’

তিনি আরও বলেন, ‘এই ফোরাম সিনিয়রদের আড্ডাবাজির জায়গা শুধু নয়, সুন্দর বাণিজ্যের একটা ব্যাপার রয়েছে। আমি শুনেছিলাম, আমার খুব ভালো লেগেছে। এখানে সফল ব্যবসায়ীরা আছেন, তারা সফলতার সাক্ষর রেখেছেন স্ব স্ব জায়গা থেকে। সেসব মানুষদের সান্নিধ্যে আসতে পেরে খুব ভালো লেগেছে। আমরা যারা চলচ্চিত্র শিল্পী-কলাকুশলীরা আছি, আমরা আমাদের কাজের মধ্য দিয়েই এই ফোরামের সঙ্গে থেকে এগিয়ে যেতে পারব।’

ফোরামের সভাপতি শফি বিক্রমপুরী জানান, ২০১৬ সালের ২৩ জানুয়ারি নায়করাজ রাজ্জাকের ৭৫তম জন্মদিনের অনুষ্ঠানে চলচ্চিত্রের অতীত ও বর্তমান বিষয় নিয়ে আলোচনার একপর্যায়েএকটি সংগঠন করার প্রস্তাব দেন তিনি। তার প্রস্তাবের ফলেই গঠিত হয় সিনে স্টার ফোরাম।

শফি বিক্রমপুরী আরও জানান, ১৯৫৬ সাল থেকে ১৯৮০ সাল পর্যন্ত চলচ্চিত্রের প্রথম ২৫ বছরে যে সব পরিচালক, প্রযোজক, সংগীত পরিচালক ও শিল্পী-কলাকুশলীরা বেঁচে আছেন তাদের নিয়েই এই সংগঠন করার উদ্দেশ্য ছিল।

শফি বিক্রমপুরী বলেন, ‘ইতোমধ্যে আমরা নায়করাজ রাজ্জাক, গায়ক আবদুল জব্বার, গায়িকা শাম্মী আখতার, অভিনেতা সিরাজ হায়দারসহ অনেককে হারিয়ে ফেলেছি। যে কারণে আগামী মার্চে কিংবদন্তী কয়েকজনকে আমরা সম্মানিত করতে চাই। আজ আমরা সম্মানিত করলে কাল আমি না থাকলে অনুজরা আমাকে সম্মানিত করবে, এমন একটা প্রথা আমরা চালু করতে চাই এ সংগঠনের মাধ্যমে।‘

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে খুরশিদ আলম, অনুপাম হায়াত, রিনা খান, ডিপজল, ওমর সানী, আনোয়ার সিরাজী, নিপুন, সায়মন সাদিক, রেজা হাসমত, গাজী মাহবুব সহ চলচ্চিত্র অঙ্গনের ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।