বৃহস্পতিবার, ২০শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৬ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

রংপুরের পীরগঞ্জে শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা মামলায় মুলহোতা হিরু’র ফাঁসির আদেশ

news-image

রংপুর ব্যুরো : রংপুরের পীরগঞ্জে ব্র্যাক স্কুলের এক শিশু শিক্ষার্থীকে ধর্ষনের পর হত্যা মামলায় অভিযুক্ত মূলহোতা হিরু মিয়াকে মৃত্যু দন্ডাদেশ দিয়েছে আদালত। সেই সাথে এক লাখ টাকা জরিমানাও করা হয়েছে।রোববার দুপুরে রংপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল-৩ এর বিচারক এম আলী আহমেদ এই আদেশ দেন। এসময় মৃত্যুদন্ডাদেশ প্রাপ্ত হিরু মিয়া আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

আদালত ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, ২০১৪ সালের ১১ এপ্রিল দুপুর ১২ টা থেকে ২ টার মধ্যে রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার নন্দরামপুর ফতেপুর গ্রামের জহুরুল হকের ব্র্যাক স্কুলে পড়–য়া ৬ বছরের শিশু কন্যাকে আসামী হিরু ওরফে খোড়া হিরু তার বাড়িতে নিয়ে গিয়ে ঘরের মধ্যে ধর্ষণ করে। এরপর শ্বাস রোধ করে হত্যা করার পর লাশ তার ঘরের ভেতরেই মাটি খুড়ে পুতে রাখে। পরে নিহত শিশুর স্বজন ও এলাকাবাসি আসামী হিরুর বাড়িতে তার নিজের ঘর থেকে মাটি চাপা দেয়া অবস্থায় শিশুটির লাশ উদ্ধার করে পুলিশে খবর দেয়। পরে পীরগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনা স্থলে এসে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠায়।

এ ঘটনায় নিহত শিশুর চাচা খলিলুর রহমান বাদী হয়ে পীরগজ্ঞ থানায় মামলা দায়ের করে। আসামী হিরু আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি প্রদান করে শিশুটিকে হত্যা করে লাশ নিজের ঘরে মাটি চাপা দেবার কথা স্বীকার করে।বাদী পক্ষে আদালতে ২৩ স্বাক্ষীর মধ্যে ১৯ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য ও জেরা শেষে বিজ্ঞ আদালত আসামী হিরুকে দোষি সাব্যস্ত করে ফাসির আদেশ প্রদান করেন। সেই সাথে এক লাখ টাকা জরিমানা করারও আদেশ দেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সরকার পক্ষে মামলা পরিচালনাকারী আইনজীবী নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতের বিশেষ পিপি তাইজুর রহমান লাইজু এ্যাডভোকেট বলেন, আসামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ সন্দেহাতিত ভাবে প্রমানিত হওয়ায় আদালত এ রায় প্রদান করেছেন। এ রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেন শিশুটির পরিবার।

এ জাতীয় আরও খবর