শনিবার, ২০শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ৫ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হামলার  প্রতিবাদে  আন্দোলনে নেমেছেন কাস্টম ও ভ্যাট কর্মকর্তারা

 
নিজস্ব প্রতিবেদক : কাস্টম হাউসএকের পর এক হামলা ও হত্যার হুমকিতে ক্ষুব্ধ কাস্টম ও ভ্যাট কর্মকর্তারা। বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) বেনাপোল কাস্টমস হাউসের এক কর্মকর্তাকে মারধরের ঘটনায় হামলাকারিরা গ্রেফতার না হওয়ায় কর্মবিরতিসহ আন্দোলনে নেমেছেন কাস্টম ও ভ্যাট কর্মকর্তারা।

c27abb4e8e8484277268c369426be147-
কাস্টম ও ভ্যাট কর্মকর্তাদের সংগঠন বিসিএস কাস্টম ও ভ্যাট অ্যাসোসিয়েশন আগামী ২৯ ফেব্রুয়ারি দুপুর ১২টা থেকে ১ টা পর্যন্ত কর্মবিরতি পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এছাড়াও রাজস্ব কর্মকর্তাদের নিরাপত্তায় দ্রুত রেভিনিউ ফোর্স গঠনে তৎপর রয়েছে সংগঠনটি। বিসিএস কাস্টম ও ভ্যাট অ্যাসোসিয়েশন সূত্র বাংলা ট্রিবিউনকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছে।

 
সূত্র জানায়, গত শনিবার রাজস্ব বোর্ডে বিসিএস কাস্টম ও ভ্যাট অ্যাসোসিয়েশনের সভা কক্ষে এক জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় একাধিক সদস্য বেনাপোলে কাস্টম ও ভ্যাট কর্মকর্তাদের ওপর হামলা ও হুমকির ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে জোরালো আন্দোলনে যাওয়ার মত দেন। এছাড়াও হামলাকারিদের গ্রেফতার না করা পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন। কাস্টম কর্মকর্তাদের নিরাপত্তায় দ্রুত রেভিনিউ ফোর্স গঠনে অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে উদ্যোগ নিতে সদস্যরা দাবি জানান। সভায় অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি হামলার ঘটনায় ভীত না হয়ে কাজ চালিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন।

 
সূত্র জানায়, বেনাপোলে কর্মকর্তার ওপর হামলার ঘটনায় সমবেদনা জানাতে বিসিএস কাস্টম ও ভ্যাট অ্যাসোসিয়েশন এ বছরের বার্ষিক বনভোজন বাতিল করেছে। এছাড়াও ২২ থেকে ২৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত কালোব্যাজ ধারণ করে অফিস করবেন রাজস্ব বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারিরা। আর ২৯ ফেব্রুয়ারি দুপুর ১২টা থেকে ১ টা পর্যন্ত কর্মবিরতি পালনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

 

জানা গেছে, শুল্ক ফাঁকি আর চোরাচালানিদের সঙ্গে আপোষ না করে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়ায় দেশের বিভিন্ন কাস্টম হাউসের কর্মকর্তাদের হত্যার হুমকি দেওয়া হচ্ছে। এ হুমকির ঘটনা দিন দিন বাড়ছে। এমনকি চোরাকারবারিরা প্রভাবশালীদের নাম ভাঙিয়ে বদলিরও হুমকি দিচ্ছে। সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অপপ্রচারও চালাচ্ছে তারা।

গত বুধবার বেনাপোল কাস্টমস হাউসের যুগ্ম-কমিশনার মোস্তাফিজুর রহমান ও সহকারী কমিশনার নিতিশ বিশ্বাসের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে। কাস্টমসে মটর সাইকেল নিলাম আহ্বান করা হলে সরকার দলীয় স্থানীয় নেতাকর্মীরা প্রভাব খাটিয়ে তা নিতে চান। কিন্তু তাতে বাধা দেওয়ায় মঙ্গলবার ২০/২৫ জনের একটি দল যুগ্ম কমিশনার মোস্তাফিজুর রহমানের ওপর হামলা করেন। এসময় মোস্তাফিজুর রহমানকে বাঁচাতে গিয়ে সহকারী কমিশনার নিতীশ চন্দ্রও হামলার শিকার হন। অন্যদিকে ঢাকা কাস্টম হাউজের সহকারি কমিশনার শহিদুজ্জামান সরকারকে হত্যার হুমকি দিচ্ছে দুর্বৃত্তরা। টেলিফোনের পাশাপাশি তার বাড়িতেও কাফনের কাপড় পাঠিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

 

 

এ প্রসঙ্গে বিসিএস কাস্টম ওভ্যাট অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব সহিদুল ইসলাম সোমবার সন্ধ্যায়  বলেন, ‘রাজস্ব কর্মকর্তারা হামলার শিকার হচ্ছেন, হত্যার হুমকি পাচ্ছেন। এসব ঘটনায় দ্রুত অপরাধিদের গ্রেফতার করে শাস্তির দেওয়া না হলে কর্মকর্তারা মনোবল হারিয়ে ফেলবেন। এতে দেশের রাজস্ব আয়ের ওপর প্রভাব পড়বে। এজন্য আমার চাই দ্রুত অপরাধিদের শাস্তি হোক। দেশের সকল রাজস্ব কর্মকর্তা কর্মচারি ২৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত কালো ব্যাজ ধারণ করে অফিস করবেন। এছাড়াও ২৯ ফেব্রুয়ারি দুপুর ১২টা থেকে ১ টা পর্যন্ত আমরা কর্মবিরতি পালন করবো। আমরা দ্রুত রেভিনিউ ফোর্স গঠনের করতে অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে অর্থ মন্ত্রী, রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যানের কাছে লিখিত আবেদন জানিয়েছি। রেভিনিউ ফোর্স গঠন করা জরুরি। এভাবে নিরাপত্তাহীন অবস্থায় চোরাচালানিদের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়া সম্ভব নয়।’