বুধবার, ১৮ই মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

রাজকাহিনী’র প্রথম গানে জয়া, নতুন পথে বিপাশা

news-image

কলকাতার জনপ্রিয় নির্মাতা সৃজিত মুখার্জির নতুন ছবি ‘রাজকাহিনী’র প্রথম গান ‘অহরহ তব আহ্বান প্রচারিত, শুনি তব উদার বাণী’ ইউটিউবে প্রকাশ করা হয় ১৮ই সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায়। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের এ গানটি ১২ জন শিল্পী গেয়েছেন। এরা হচ্ছেন- কবির সুমন, কৌশিকী চক্রবর্তী, রূপঙ্কর, লোপামুদ্রা মিত্র, রূপম ইসলাম, বাবুল সুপ্রিয়, শ্রাবণী সেন, সিদ্ধার্থ শংকর রায়, শ্রীকান্ত আচার্য, অনুপম রায়, অন্বেষা ও ইন্দ্রদীপ দাশগুপ্ত। joya

ছবির এ গানটিতেই দেখা গেল জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসানকে। ১৯৪৭ সালের দেশভাগ নিয়ে ‘রাজকাহিনী’র গল্প। এতে জয়া আহসান অভিনয় করেছেন। কলকাতার ছবিতে তার এটাই প্রথম না হলেও, সৃজিত মুখার্জির সঙ্গে এবারই প্রথম কাজ। ছবিটিতে আরও রয়েছেন ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত, লিলি চক্রবর্তী, পার্নো মিত্র, সুদীপ্তা চক্রবর্তী, প্রিয়াংকা সরকার, সোহিনী সরকার, সায়নী ঘোষ, দিতিপ্রিয়া রায়, ঋদ্ধিমা ঘোষ, এনা সাহা, নাইজেল আকারা, রুদ্ধনীল ঘোষ, শাশ্বত চক্রবর্তী, কৌশিক সেন, রজতাভ দত্ত, আবীর, যিশু সেনগুপ্ত, বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী, কাঞ্চন মল্লিকসহ একঝাঁক অভিনয় শিল্পী।

নতুন পথে বিপাশা
আইটেম গানে চমক সৃষ্টি করা চলচ্চিত্রের নিউ সেনসেশন বিপাশা কবির এখন নতুন পথে হাঁটতে শুরু করেছেন। নতুন এ পথটি নায়িকার। ৩৩টি ছবির আইটেম গানে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স আর আকর্ষণীয় এক্সপ্রেশনের মাধ্যমে দর্শক হৃদয়ে ঝড় তোলা বিপাশা কবির এখন পুরোদস্তুর নায়িকা।
bipasa

তরুণ পরিচালক সাইমন তারিক পরিচালিত ‘গুণ্ডামী’র মাধ্যমে নায়িকা হিসেবে দর্শকদের অভিবাদন জানাবার জন্য পুরোদস্তুর প্রস্তুত বিপাশা। এ ছবিতে তার নায়ক সুদর্শন শাহরিয়াজ ও সংগ্রাম খান। ‘গুণ্ডামী’ ছবিটি সহসাই সেন্সর বোর্ডের ছাড়পত্রের জন্য জমা পড়বে। ছাড়পত্র পাওয়ার পরই ছবিটি মুক্তির জন্য প্রস্তুত হবে। ‘গুণ্ডামী’ ছবিতে বিপাশা কবিরকে নায়িকা করা প্রসঙ্গে পরিচালক সাইমন তারিক বলেন, ছবির গল্পের প্রয়োজনেই বিপাশাকে নায়িকা করা হয়েছে। তিনি বলেন, ছবিতে বিপাশার নাম বিন্দু। সিনেমার নায়িকা হওয়ার জন্য আসে। কিন্তু নায়িকা হওয়ার সুযোগ পায় না। ছোটখাটো চরিত্রের অভিনয় করে। প্রতি মুহূর্তে নানা ঘাত-প্রতিঘাতের সম্মুখীন হয়। কিন্তু সে তার স্বপ্নের প্রতি অবিচল থাকে। কোন প্রলোভনই তাকে লক্ষ্যচ্যুত করতে পারে না। এক সময় একজন প্রখ্যাত পরিচালক তাকে নায়িকা হিসেবে সুযোগ দেন। ছবিটি মুক্তি পেয়ে সুপারহিট হয়ে গেলে পরিচালক একটা সংবাদ সম্মেলন করেন। সেই সংবাদ সম্মেলনে প্রকাশ পায় বিন্দুর নায়িকা হওয়ার নেপথ্যে একজন যুবকের হাত ছিল। অভি নামের এই যুবককে বিন্দু ‘গুণ্ডা’ বলে চেনে। অভি যখনই ‘গুণ্ডামী’ করে তখনই বিন্দুর সঙ্গে তার দেখা হয়। আইটেম গার্ল থেকে নায়িকা হিসেবে সুযোগ পাওয়ার জন্য প্রযোজক পরিচালকের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বিপাশা বলেন, আমি তো একজন অভিনেত্রী হওয়ার স্বপ্ন নিয়েই চলচ্চিত্রে এসেছি। শখের বশে ‘ভালবাসার রঙ’ ছবিতে আইটেম গানে বড় সাফল্য পাওয়ার পর নির্মাতাদের ডাককে উপেক্ষা করতে পারিনি। নির্মাতারা আমাকে যথাযথ সম্মান, মর্যাদা ও সম্মানী দিয়েই আইটেম গান করিয়েছেন। বিপাশা বলেন, ৩৩টি ছবিতে আইটেম গানে অভিনয় করলেও আমাকে নিয়ে কোন বিতর্ক হয়নি। কোন অভিযোগ ওঠেনি আমার বিরুদ্ধে। আমি আইটেম গানকে অভিনয়ের একটা অংশ মনে করেই কাজ করে যাচ্ছি। লক্ষ্য ছিল নায়িকা হওয়ার। সেটাও হয়েছি। ‘গুণ্ডামী’র পাশাপাশি ‘ক্রাইম রোড’, ‘আড়াল’, ‘বাজে ছেলে (লোফার)’ ছবিতে নায়িকা হিসেবে কাজ করেছি। জাজ মাল্টিমিডিয়ার ‘তালাশ’ ছবিতেও নায়িকা হিসেবে কাজ করবো। বিপাশা বলেন, আমি নায়িকা হিসেবে কাজ করলেও আইটেম গান ছাড়বো না। তবে বেছে বেছে করবো। আমার চেয়ে সিনিয়র এবং জনপ্রিয় নায়িকাদের ছবিতে আইটেম গান করবো। সবার সঙ্গে করবো না। তিনি বলেন, নায়িকা হওয়ার স্বপ্ন আমার ছিল, নায়িকা হয়েছি। চাই নায়িকা হিসেবে দর্শকদের ভালবাসা, নির্মাতাদের বিশ্বাস। আমার নিজের বেলায় আমি প্রচণ্ড আত্মবিশ্বাসী। আমার মনে হয় এক্ষেত্রেও সবার ভালবাসায় আমি সফল হবো। নতুন পথ ধরে আমি অনেক দূর যাবো।