শনিবার, ২১শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মেসির শততম ম্যাচে জয়বঞ্চিত বার্সা

news-image

অপূর্ণতাই বোধহয় ফুটবলের সবচেয়ে মনোহর অলংকার। তা না হলে লিওনেল মেসি নিজের শততম চ্যাম্পিয়ন্স লীগ ম্যাচে গোল পাবেন না কেন। মেসি যেমন গোল পাননি, বার্সেলোনাও তেমনি পায়নি জয়। স্তাদিও অলিম্পিকোতে ২১ মিনিটে লুইস সুয়ারেজের হেডে করা গোলেও মাথা উঁচু হল না অতিথিদের। ঠিক দশ মিনিট পর ফ্লোরেনজির অবাক করা গোলে ম্যাচে সমতা (১-১)। এরপর চিরাচরিত ইতালীয় রক্ষণের সফল প্রদশর্নীর জেরে নিজেদের মাঠে রোমার এক পয়েন্ট প্রাপ্তি। বার্সার সঙ্গে ড্র মানে রোমার জন্য এক বিশাল অর্জন। গত বছর গ্র“পপর্বে বায়ার্ন মিউনিখের ৭-১ গোলের শোচনীয় হারের ঘা এখনও শুকায়নি ইতালির ক্লাবের। আগের দিনই হ্যাটট্রিকের সুবাদে মেসিকে টপকে রেকর্ড ৮০ গোলের মালিক হয়েছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। স্বভাবতই দেখার ছিল, চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীকে পেছনে ফেলার নেশায় আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড গোলের নেশায় মেতে উঠবেন। কিন্তু গোলবঞ্চিত হয়ে থাকতে হল মেসিকে। বার্সেলোনার হোঁচটের রাতে দুই ইংলিশ ক্লাবের ভাগ্য লেখা হল দু’রকম। বুধবার চেলসি মেরেকেটে বেরিয়ে গেলেও ধপাস করে পড়ে গেছে আর্সেনাল। ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের নতুন মৌসুম ব্লুজরা শুরু করেছে ব্যর্থতায় নীল হয়ে। সেই তারা চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ম্যাচে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিল তেল আবিব ম্যাকাবিকে। উইলিয়াম, অস্কার, কস্তা ও ফ্যাব্রিগাস- চারজনের চার গোল। আর্সেনাল ডায়নামো জাগরেবের মাঠে হেরেছে ১-২ গোলে। চ্যাম্বারলেইনের আত্মঘাতী গোলে ২৪ মিনিটে পিছিয়ে পড়া গানাররা আর উঠে দাঁড়াতে পারেনি। বিরতির পর স্কোরলাইন ২-০ করেন ডায়নামোর ফার্নান্দেস। ৭৯ মিনিটে থিও ওয়ালকটের গোল ব্যবধান কমিয়েছে শুধু। আর্সেনালের ভাঙা কপাল জোড়া লাগাতে পারেনি।
চেলসি ও আর্সেনালের ভাগ্য দু’রকম হলেও জার্মানদের জয় ছিল চিত্রনাট্য অনুযায়ীই। অ্যাঞ্জেলা মার্কেল শরণার্থী সমস্যা সামলাতে হিমশিম খেলেও, টমাস মুলারদের একটুও বেগ পেতে হয়নি প্রতিপক্ষের জালে বল পাঠাতে। এদিন মুলার-গোটশের মিলিত সাফল্যে জার্মান জায়ান্ট বায়ার্ন মিউনিখ ৩-০ গোলে জয়ী হয় গ্রিসের ক্লাব অলিম্পিয়াকোসের বিপক্ষে। অর্থনীতি মন্দার কবলে পড়া গ্রিস এদিন মুলারদের আক্রমণের রোষের শিকার হয়েছে। যদিও প্রথমার্ধে বায়ার্নকে গোলবিমুখ করে রাখতে সফলতা দেখিয়েছে স্বাগতিকরা। সেজন্যই কিনা দ্বিতীয়ার্ধে বার্য়ান একেবারে তেলে-বেগুনে রেগে ওঠে। সেই রাগেই ছারখার অলিম্পিয়াকোস। টমাস মুলারের দুটি গোলের (৫২ ও ৯২) মিনিটে) মাঝে জার্মানির বিশ্বকাপ ফাইনাল-হিরো মারিও গোটশে লক্ষ্যভেদ করেন ৮৯ মিনিটে। আরেক জার্মান ক্লাব বেয়ার লেভারকুসেন ৪-১ গোলে জয়ী হয় বুলগেরিয়ার ক্লাব বাতে বরিসভের বিপক্ষে। বিজয়ীদের চার গোলের মধ্যে দুটি ক্যালহানগলুর। একটি করে গোল করেন মেহমেদি ও হার্নান্দেজ।
এদিন অপর দুটি ম্যাচ ড্র হয়। নিজেদের মাঠে ইউক্রেনের ক্লাব ডায়নামো কিয়েভ ২-২ গোলে ম্যাচ অমীমাংসিত রাখে পর্তুগালের ক্লাব পোর্তোর সঙ্গে। আর বেলজিয়ামের ক্লাব জেন্টকে ১-১ গোলে রুখে দেয় ফ্রান্সের লিঁও। স্পেনের ভ্যালেন্সিয়া নিজেদের মাঠে ২-৩ গোলে হেরে যায় রাশিয়ার ক্লাব জেনিত সেন্ট পিটার্সবাগের কাছে। জেনিতের তিন গোলের দুটি ব্রাজিলীয় স্ট্রাইকার হাল্কের। এএফপি।
বুধবারের ফল
লেভারকুসেন ৪ : ১ বরিসভ
রোমা ১ : ১ বার্সেলোনা
জাগরেব ২ : ১ আর্সেনাল
অলিম্পিয়াকোস ০ : ৩ বায়ার্ন
চেলসি ৪ : ০ ম্যাকাবি
কিয়েভ ২ : ২ পোর্তো
জেন্ট ১ : ১ লিঁও
ভ্যালেন্সিয়া ২ : ৩ জেনিত
(স্বাগতিক দল আগে)

 

এ জাতীয় আরও খবর