সোমবার, ২৩শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সানি লিওনের ডাকনাম ‘কলা’ কিংবা ‘গোগো’ , ‘কোথাও বলিনি বলিউডের প্রথম বাংলাদেশি অভিনেত্রী আমি’

news-image

‘কলা’ বা ‘গোগো’ বলে কাউকে চেনেন? তিনি বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতেই কাজ করেন, বিভিন্ন সময়ে নানা বিতর্ক তাঁকে ঘিরে থাকে। যথেষ্ঠ বিখ্যাত হলেও এ নামে বোধহয় আগে তাঁকে কেউই চিনত না। সম্প্রতি এক লাইভ চ্যাটে সানি লিওন জানালেন, এগুলোই ছিল তাঁর ছোটবেলার ডাকনাম। ‘গোগো’ নামে তাঁকে ডাকত তাঁর বাবা।sanilion
বলিউডে পা রাখার একেবারে প্রথম দিন থেকে জীবনের নানা কথা শোনাচ্ছিলেন সানি। জানালেন, তাঁর সবথেকে বড় কোয়ালিটি হল তাঁর পার্সোনালিটি। ফ্যানদের নানা প্রশ্নের জবাব দিতে দিতেই সানি জানালেন, তাঁর স্বপ্নের চরিত্র মেরলিন মনরো। মেরলিনের ভূমিকায় তিনি  অভিনয়ও করতে চান। বলিউডে তিন খানের মধ্যে সালমান খানের সঙ্গে অভিনয় করতে চান বলেও জানালেন সানি। শাহরুখের সঙ্গে বার দু'য়েক দেখা হয়েছে। আমির খানের সঙ্গে কখনও দেখা হয়নি। তবে একসঙ্গে অভিনয় করার ইচ্ছে সালমানের সঙ্গেই। সানির সঙ্গে আড্ডায় ছিলেন তাঁর স্বামী ড্যানিয়েল ওয়েবারও। স্ত্রীকে নিয়ে সবরকম সমালোচনা, বিতর্কের ক্ষেত্রে তিনি যে তাঁকে আগলে রাখেন, জানালেন ড্যানিয়েল। ফ্যানদের জন্য গিটার বাজিয়ে গানও শুনিয়েদিলেন তিনি।
এখনও ভাল হিন্দি বলতে পারেন না। হিন্দি সিনেমার ইন্ডাস্ট্রিও তাঁকে এখনও তেমনভাবে গ্রহণ করতে পারেনি। তবু সানি কিন্তু জানিয়ে গেলেন, এই ইন্ডাস্ট্রিতেই তিনি থাকতে চেয়েছিলেন। তিনি যে আছেনও, তাও আত্মপ্রত্যয়ের সঙ্গে জানিয়ে দিলেন সানি।

 

'কোথাও বলিনি বলিউডের প্রথম বাংলাদেশি অভিনেত্রী আমি' 

বলিউডে অভিনয় করতে যাচ্ছেন বাংলাদেশি অভিনেত্রী নুসরাত ফারিয়া। অনেকেই বলছেন নুসরাতই বলিউডের প্রথম বলিউড অভিনেত্রী। এমনকী এটাও বলছেন যে নুসরাত বিভিন্ন জায়গায় বলেছেন তিনিই নাকি প্রথম বাংলাদেশি বলিউড অভিনেত্রী। আদতে তা নয়। নুসরাত ফারিয়ার সাথে কথা বললে তিনি কালের কণ্ঠকে বলেন, 'আমি কোথাও এ ধরনের স্টেটমেন্ট দেই নি। এটা নিয়ে যদি কোথাও সংবাদ প্রকাশ হয়ে থাকে তবে তারা নিজ দায়িত্বে করেছেন। আমার সাথে কথা বলার প্রয়োজন মনে করেন নি।'   

এদেশের চলচ্চিত্র জগতের জ্বলজ্বলে নক্ষত্র শাবানা, রোজিনা, ববিতা ও নুতন অভিনয় করেছেন বলিউডের ছবিতে। তারমধ্যে শাবানা ও রোজিনা ছবির মূল নায়িকা হয়ে কাজ করেছেন রাজেশ খান্না ও মিঠুন চক্রবর্তীর বিপরীতে।  ১৯৮৩ সালে ভারত বাংলাদেশ ও কানাডার যৌথ প্রযোজনায় ‘গেহরি চোট’ নামে একটি ছবি মুক্তি পেয়েছিল। যেটি হিন্দি ও বাংলা দুটি ভাষায় মুক্তি পেয়েছিল। সেখানে নাদিম বেগ’র বিপরীতে অভিনয় করেছিলেন জনপ্রিয় নায়িকা ববিতা। এই ছিবিটিতে শশী কাপুর, পারভিন ববি ও শর্মিলা ঠাকুরের মতো স্বনামধন্য শিল্পীরা অভিনয় করেছিলেন।

১৯৮৫ সালে হিন্দি পরিচালক শক্তি সামন্ত্য মিঠুন চক্রবর্তীকে নিয়ে ‘আর পার’ নামক ছবি বানান। সে ছবিতে নায়িকা হিসেবে অভিনয় করেন বাংলাদেশের অভিনেত্রী রোজিনা। আর দ্বিতীয় নায়িকা হিসেবে দেখা গিয়েছিলো নুতনকে। এ ছবিটি বাংলা ভাষায় ডাব করা হয়েছিল ‘অন্যায় অবিচার’ নামে। ইন্দো-বাংলার যৌথ প্রযোজনার ছবিটি ভারত, বাংলাদেশ- দুই দেশেই সুপার ডুপার হিট হয়েছিলো।image_268592.11902334_740477282764211_8647210857810870105_n

পরের বছর ১৯৮৬ সালে বলিউডে মুক্তি পায় প্রমোদ চক্রবর্তীর ‘শত্রু’ ছবিটি। ইন্দো-বাংলার যৌথ প্রযোজনার এই ছবিতে বলিউডের প্রথম সুপারস্টার বলে খ্যাত নায়ক রাজেশ খান্নার বিপরীতে অভিনয় করেছিলেন শাবানা। ওই ছবিতে গোলাম মোস্তফাও একজন অসৎ পুলিশ অফিসারে চরিত্রে অভিনয় করেন। এছাড়া ছিলেন হাসান ইমাম ও নুতন।

নুসরাত ফারিয়া বলেন, 'আমি নিজেই জানতাম ববিতা ম্যাডাম ও শাবানা ম্যাডাম বলিউডে কাজ করেছেন। আমি যেহেতু ফিল্ম পাড়ার না, সেহেতু আমার ফিল্ম সম্পর্কে খুব উচ্চ ধারণা নেই। আমি একটা টেলিভিশনের ইন্টারভিউতে বলেছি, আমি জানি না আমিই প্রথম কি না তবে আমি যদি বলিউডের প্রথম বাংলাদেশি অভিনেত্রী হতাম তাহলে সেটা আমার জন্যে গর্বের হতো।

বাংলাদেশি অভিনেত্রী নুসরাত ফারিয়া অভিনেতা ইমরান হাশমি বিপরীতে দেখা যাবে তাকে। ছবির নাম ‘গাওয়া- দ্যা উইটনেস’। এতে আরও অভিনয় করবেন নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিক ও কলকাতার পায়েল সরকার। ছবিটি পরিচালনা করছেন বিষ্ণু দত্ত। তার আগেই মুক্তি পাচ্ছে এই অভিনেত্রীর কলকাতা-ঢাকা প্রযোজিত 'আশিকী' চলচ্চিত্রটি।

 

এ জাতীয় আরও খবর