রবিবার, ২২শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মক্কায় মৃত ১০৭ হজ নির্বিঘ্নে হবে, বিশেষজ্ঞরা বলছেন অবহেলাই দায়ী

news-image

মক্কায় মসজিদুল হারামে ভেঙে পড়া ক্রেন। তবে থেমে নেই হজের কার্যক্রম।

সৌদি আরবের মক্কায় মসজিদুল হারামের ওপর নির্মাণকাজে ব্যবহৃত একটি ক্রেন ভেঙে পড়ার ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১০৭ জনে দাঁড়িয়েছে। আহতের সংখ্যাও বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৩৮ জনে। এ দুর্ঘটনার জন্য মুষলধারে বৃষ্টি ও প্রচণ্ড গতির ঝড়কে দায়ী করেছে সৌদি কর্তৃপক্ষ। তবে বিশেষজ্ঞরা দুর্ঘটনার জন্য সৌদি সরকারের অবহেলাকে দায়ী করেছেন। তাঁরা বলছেন, হজের মতো মুসলিম বিশ্বের বৃহত্তম সমাবেশকে কেন্দ্র করে নির্মাণকাজ এবং খারাপ আবহাওয়ার বিবেচনায় যথেষ্ট সতর্কতা অবলম্বন করেনি সৌদি কর্তৃপক্ষ। এ অবস্থায় হজ কার্যক্রমে কোনো বিঘ্ন ঘটবে না বলে জানিয়েছে মসজিদুল হারাম ও মসজিদে নববী কর্তৃপক্ষ।
সৌদি সরকার কয়েক বছর ধরেই মসজিদুল হারামের সম্প্রসারণকাজ করে আসছে। কর্তৃপক্ষ চাচ্ছে, মসজিদটিকে একসঙ্গে ২২ লাখ হাজির ধারণক্ষমতায় উন্নীত করতে। এ জন্য বিশাল কর্মযজ্ঞ চলছে কাবাঘর ঘিরে থাকা মসজিদুল হারাম এলাকাজুড়ে। মসজিদের চারপাশে অনেক ক্রেন দিয়ে কাজ চলছে। এর একটি ক্রেন ভেঙে পড়ে মসজিদের ওপর।Makka arabia_mecca_crane_322710
মক্কায় মৃত ১০৭ হজ নির্বিঘ্নে হবে

এদিকে ঢাকায় ধর্ম মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, মক্কায় দুর্ঘটনায় আহত বাংলাদেশিদের তালিকা প্রকাশ করা হতে পারে আজ রবিবার।
দুর্ঘটনা ও উদ্ধার তৎপরতা : শুক্রবার সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে দুর্ঘটনাটি ঘটে। আর মাগরিবের নামাজের সময় ছিল সন্ধ্যা ৬টা ৩০ মিনিট। এর আগে সাড়ে ৫টার দিকে শুরু হয় প্রচণ্ড ঝড় ও বৃষ্টিপাত। ঝড়ে মক্কার অনেক গাছ উপড়ে যায়। অনেক বাসাবাড়ির জানালা ভেঙে যায়। একপর্যায়ে একটি ক্রেন ভেঙে মসজিদুল হারামের আল মাসা এলাকার আল-সালাম গেটের কাছে চারতলায় আছড়ে পড়ে। ক্রেনের আঘাতে মসজিদের ওই অংশের ছাদ ধসে যায় এবং মেঝেতে থাকা মুসল্লিরা এর নিচে চাপা পড়েন। বাকিরা ভয়ে আতঙ্কে দিগি¦দিক ছোটাছুটি শুরু করেন। রক্তে ভেসে যায় মসজিদের মেঝে। আহতদের আর্তনাদে হৃদয়বিদারক পরিবেশের সৃষ্টি হয়। এতে হতাহতদের মধ্যে বেশির ভাগই ছিলেন হজে যাওয়া মানুষ।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, পৌনে ৬টার দিকে একটি ক্রেন মসজিদের পূর্ব অংশের চতুর্থ তলার ওপর আছড়ে পড়ে। হজে আসা মানুষ মাগরিবের নামাজের আগে জড়ো হওয়ায় ওই সময় মসজিদটি মুসল্লিতে ভর্তি ছিল।
সৌদি আরবের আল আরাবিয়া টেলিভিশনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রবল ঝড়ের কারণে একটি ক্রেন মসজিদের ওপর ভেঙে পড়ে। কয়েক দিন ধরে সৌদি আরবের পশ্চিমাঞ্চলে শক্তিশালী ঝড় বইছে। সুলাইমান আল-আমর স্থানীয় একটি টেলিভিশনকে বলেন, ঝড়ে গাছ উপড়ে পড়ায় ক্রেন স্থানচ্যুত হয়ে আছড়ে পড়ে।
দুর্ঘটনার পর রাতে নিহতের সংখ্যা ৮৭ জন বলে জানায় সৌদি সিভিল ডিফেন্স। গতকাল শনিবার সংস্থাটি জানায়, দুর্ঘটনায় ১০৭ জন মারা গেছেন। আহত হয়েছেন ২৩৮ জন। সিভিল ডিফেন্সের প্রধান জেনারেল সুলাইমান আল-আমর জানান, দুর্ঘটনাস্থল পরিষ্কার করে ফেলা হয়েছে। তিনি আরো জানান, ঘটনাস্থলে আর কোনো মৃতদেহ বা আহত ব্যক্তি নেই। নিহত ও আহত সবাইকেই হাসপাতালেই পাঠানো হয়েছে। সৌদি গেজেট জানায়, দুর্ঘটনাটি তদন্তের জন্য মক্কার আমির খালেদ আল-ফয়সাল দুটি কমিটি গঠনের নির্দেশ দিয়েছেন।
দুর্ঘটনায় হজে যাওয়া ব্যক্তিরাই বেশি হতাহত হয়েছেন। তবে তাঁদের মধ্যে কোন দেশের কতজন রয়েছেন, তা গতকাল পর্যন্ত জানাতে পারেনি সৌদি কর্তৃপক্ষ। ভারত ও ইন্দোনেশিয়া জানিয়েছে, তাদের দুজন করে নাগরিক এ দুর্ঘটনায় মারা গেছেন।
মক্কার আমিরের মুখপাত্র সুলতান আল-দোসারি জানিয়েছেন, আহত ব্যক্তিদের সুচিকিৎসার সর্বোচ্চ বন্দোবস্ত করতে আমিরের পক্ষ থেকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছ। সৌদি রেড ক্রিসেন্টের হজ ও উমরাহ বিষয় বিভাগের প্রধান খালেদ আল-হাবশি জানিয়েছেন, দুর্ঘটনাস্থল থেকে আহতদের হাসপাতালে নিতে ৬৮টি উদ্ধারকারী দল কাজ করে। যাঁরা অল্প আহত হয়েছেন, দুর্ঘটনাস্থলেই তাঁদের চিকিৎসা দেওয়া হয়। তিনি বলেন, ‘দুর্ঘটনার পাঁচ মিনিটের মধ্যে আমাদের উদ্ধারকারী দল সেখানে পৌঁছে যায়। প্রথমেই ৪৯ জনকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছিল।’
টুইটারে ছড়িয়ে পড়া কয়েকটি ছবিতে দেখা যায়, হজের ইহরাম পরিহিত রক্তাক্ত বহু মানুষের দেহ কংক্রিটের স্তূপের মধ্যে পড়ে আছে। ছাদ ভেঙে নেমে আসা লাল রঙের একটি বিশাল ক্রেনের অংশবিশেষও এসব ছবিতে দেখা যাচ্ছে।
হজ নির্বিঘ্ন হবে : অন্যদিকে দুর্ঘটনার পরও হজের প্রস্তুতি স্বাভাবিকভাবেই চলছে বলে জানিয়েছে সৌদি আরবের পবিত্র দুই মসজিদ (মসজিদুল হারাম ও মসজিদুল নববি) কর্তৃপক্ষ। দুই মসজিদের মুখপাত্রও জানিয়েছেন, ঝড়ে ক্রেনটি স্থানচ্যুত হয়ে মসজিদের ওপর পড়ে যায়।
হজের প্রস্তুতি এগিয়ে চলছে উল্লেখ করে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্মকর্তা বলেন, ‘এ ঘটনা নিশ্চিতভাবেই এ মৌসুমের হজের ওপর কোনো প্রভাব ফেলবে না। মসজিদটির ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাটি কিছুদিনের জন্য ব্যবহার বন্ধ রাখা হবে। হজ চলতে থাকবে, নিশ্চিত।’
বিভিন্ন দেশের নেতাদের শোক : মসজিদুল হারামে দুর্ঘটনায় প্রাণহানির ঘটনায় ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরিসহ বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীরা শোক প্রকাশ করেছেন।
সৌদি কর্তৃপক্ষের অবহেলাই দায়ী : সৌদি কর্তৃপক্ষ প্রচণ্ড গতির ঝড়কে দায়ী করলেও বিশেষজ্ঞরা হজ মৌসুম ও খারাপ আবহাওয়া চলাকালে নির্মাণকাজ অব্যাহত রাখাই দুর্ঘটনার প্রকৃত কারণ বলে মনে করছেন। মসজিদুল হারামের সম্প্রসারণ কাজের সমালোচনাকারী ও ইসলামী ঐতিহ্য নিয়ে কর্মরত লন্ডনভিত্তিক ইসলামিক হ্যারিটেজ রিসার্চ ফাউন্ডেশনের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ইরফান আল আলাভি দুর্ঘটনার জন্য সরাসরি সৌদি রাজ সরকারের অবহেলাকে দায়ী করেছেন। শুক্রবারের ওই দুর্ঘটনাকে তিনি বোমা বিস্ফোরণের সঙ্গে তুলনা করেছেন।
সৌদি কর্মকর্তাদের সমালোচনা করে আলাভি বলেন, নির্মাণকাজে যথাযথ নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। তিনি বলেন, ‘তারা ঐতিহ্যকে কোনো গুরুত্ব দিচ্ছে না। তারা স্বাস্থ্য, নিরাপত্তা কোনো কিছুকেই গুরুত্ব দিচ্ছে না। তারা হজ করতে আসা ব্যক্তিদের নিরাপত্তার জন্য হুমকি থাকা সত্ত্বেও ক্রেনের বিষয়টি এড়িয়ে গেছে।’
প্রসঙ্গত, মসজিদুল হারাম ও মসজিদে নববীর সম্প্রসারণকাজে এমনিতেই সমালোচনার মুখে রয়েছে সৌদি কর্তৃপক্ষ। এর মধ্যেই মক্কা ও মদিনায় হজরত মুহাম্মদ (সা.)-এর অনেক স্মৃতিধন্য স্থাপনা মুছে ফেলা হয়েছে। মুসলিমদের মধ্যে ‘শিরক’ বেড়ে যেতে পারে বলে নবীর স্মারকচিহ্নগুলো মুছে ফেলা হচ্ছে বলা হলেও প্রকৃতপক্ষে এর সব এলাকা ওই সম্প্রসারণকাজের আওতায় আনা হয়েছে।
বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়, সৌদি সিভিল কর্তৃপক্ষ আগেই ঝড়ের সতর্কবার্তা পেয়েছিল। আবহাওয়া বিশেষজ্ঞরা ঝড়ের পূর্বাভাস দিয়ে আসছিলেন। কিন্তু কী কারণে দুর্ঘটনা এড়াতে কোনো সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি তা কারো কাছেই পরিষ্কার নয়।
সৌদি আরবের স্থাপত্য পরামর্শক গামাল সাকদার বলেন, এই নির্মাণ প্রকল্পের ধরনটি অনিরাপদ। বিশাল কর্মযজ্ঞে নিরাপত্তার দিকটি অবহেলিতই থেকে যায়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সৌদি বিশেষজ্ঞ বলেন, জার্মানির তৈরি ক্রেনগুলো ব্যবহারেও সতর্কতা দরকার ছিল। এর দ্বারা ‘হত্যাকাণ্ড’ ঠেকানো যেত। অপারেটরদের উচিত ছিল এর বুমগুলো আরো নিচু করে রাখা। সূত্র : বিবিসি, এএফপি, গার্ডিয়ান, আল-জাজিরা।

 

এ জাতীয় আরও খবর

দুদকের মামলা স্থগিতে বদির আবেদন খারিজ

সকালে তীব্র, দুপুরে সহনীয় যানজট

অর্থ আত্মসাৎ: নর্থ সাউথের চার ট্রাস্টিকে গ্রেফতারের নির্দেশ

‘মুজিব’ সিনেমার ট্রেলার দেখে সবাই কেন হতাশ তার কারণ পাচ্ছেনা পরিচালক

হয়রানির শিকার বলিউড অভিনেত্রী দিয়া মির্জা

অ্যান্থনি নরম্যান আলবানিজকে শেখ হাসিনার অভিনন্দন

উত্তরায় নারীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

আজ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির আবেদন শুরু

কাশিমপুর কারাগারে নারী হাজতির মৃত্যু

সিঙ্গাপুরের হেড কোচ হলেন সালমান বাট

ধানুশের আসল বাবা-মা নাকি তারাই! মানতে নারাজ অভিনেতা

পাকিস্তানি নারীর ‘প্রেমের ফাঁদে’ গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাচার, ভারতীয় সেনা গ্রেপ্তার