শনিবার, ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১০ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

গরিব ব্যক্তিদেরকে দোযখে প্রেরণ করা হবে!

news-image

ইসলামিক ডেস্কএকদা হযরত নবী করীম (সা.) সাহাবাগণকে জিজ্ঞেস করলেন, ‘তোমাদের মধ্যে সবচেয়ে গরিব কে বলতে পার কি?
সাহাবাগণ জবাব দিলেন, আমরা তো মনে করি, যাদের হাতে টাকা-পয়সা নেই তারাই সবচেয়ে গরিব। হুজুর ইরশাদ করলেন, না, ‘আমার উম্মতের মধ্যে যে ব্যক্তি পুণ্য ব্যতীত কবরে যায় সে হলো সর্বাপেক্ষা গরিব।
অর্থাৎ যে ব্যক্তি নামাজ, রোজা, হজ, যাকাত ইত্যাদি আদায় না করে কবরে যাবে তার কাছে পুণ্য বলতে কিছুই থাকবে না অথবা যার কিছু পুণ্য আছে বটে, কিন্তু অন্যের উপর জুুলুম করেছে বা অন্যের হক নষ্ট করেছে, হাশরের ময়দানে তাকে অন্যের হক আদায় করতে হবে নিজের পুণ্যের বদলে।
এভাবে কিছু কিছু করে পুণ্য বণ্টন করে দিতে দিতে তার অবশিষ্ট আর কিছুই থাকবে না। এমনকি পুণ্য যখন থাকবে না তখন পাওয়ানাদারের পাপ তার উপর চেপে দেয়া হবে। অতপর তাকে দোযখে প্রেরণ করা হবে।
নবী করীম (সা.) বলেন, এ প্রকার পুণ্যহীনই হলো হাশরের ময়দানে সবচেয়ে অসহায় গাফিল ব্যক্তি। যে ব্যক্তি আপন ক্রীতদাসকে অনর্থক প্রহার করে হাশরের দিন তাকেও শাস্তি ভোগ করতে হবে।