বৃহস্পতিবার, ১৯শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বাগেরহাটে আওয়ামী লীগ নেতা সাদু খা হত্যা মামলায় রায় : প্রধান তিন আসামীর সবাই খালা

news-image

বাগেরহাটে দীর্ঘ ১ যুগ পর জেলা শ্রমিক লীগের তৎকালীন সভাপতি ও মোরেলগঞ্জ উপজেলার তেলিগাতি ই্উনিয়নের একাধিক বার নির্বাচিত চেয়ারম্যান খান মোঃ সাদেকুল ইসলাম সাদু খা হত্যা মামলায় রায় ঘোষণা করা হয়েছে। ২০০৩ সালে সংঘটিত বাগেরহাট জেলায় আলোচিত এ হত্যা মামলার চার্জশীট ভুক্ত তিন আসামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমানিত না হওয়ায়, তাদের বেকসুর খালাশ দিয়েছেন বাগেরহাট অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জর্জ আদালত-২ এর বিচারক। রবিবার বিকালে জনাকীর্ণ আদালতে তিন আসামীর উপস্থিতিতেই এই রায় প্রদান করেন বিচারক ‘আল আসাদ মোঃ আছিফুজ্জামান। তবে রায়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে নিহতের পরিবার। তারা এ রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপীল করবেন বলে জানান নিহতের ভাই ও বাদী পক্ষের আইনজীবি এ্যাডভোকেট খান শফিকুল ইসলাম। 
মাললার বিবরনে জানা যায়, ২০০৩ সালের ১৩ নভেম্বর বিকাল ৪ টার দিকে শ্রমিক লীগ নেতা ও ইউপি চেয়ারম্যান খান সাদেকুল ইসলাম তার অপর সঙ্গীকে নিয়ে নিজস্ব প্রাইভেট রিক্সা যোগে মোরেলগঞ্জের তেলিগাতি থেকে বাগেরহাট শহরের বাড়ি ফিরছিলেন। এ সময়ে তিন আসামী একটি মোটর সাইকেল যোগে কচুয়া উপজেলার পিংগুড়িয়া এলাকায় পৌঁছে জনপ্রিয় চেয়ারম্যান সাদু খাকে গুলি করে হত্যা করে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় ১৬ মার্চ নিহতের ছোট ভাই খান শফিকুল ইসলাম নান্টু বাদি হয়ে মোরেলগঞ্জ উপজেলার তেলিগাতি ইউনিয়নের আব্দুল কাদের চৌধুরীর ছেলে আলমগীর হোসেন চৌধুরী ও একই এলাকার মৃত মোক্তার আলী খা’র দুই ছেলে আশরাফ খান ও আকরাম খান কে আসামী করে কচুয়া থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। সে সময় জনপ্রিয় এ শ্রমিক লীগ নেতা ও ইউপি চেয়ারম্যানকে প্রকাশ্য দিবালোকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় বাগেরহাট জেলা ব্যাপী ব্যাপক বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেত্রী ও আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনা এ ঘটনায় বাগেরহাট শহরের বাসাবাটি এলাকায় খান সাদেকুল ইসলামের বাড়িতে এসে নিহতের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপনসহ আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় এলে এ হত্যা কান্ডের বিচার করা হবে বলে নিহতের বাড়ির সামনের রাস্তায় এক প্রতিবাদ সমাবেশে এ কথা বলেন। বিএনপি জামায়াত জোট ক্ষমতায় থাকাকালীন আলোচিত এ হত্যা মামলা এক পর্যায়ে সিআইডিতে হস্তান্তর করা হয়। পরে ২০০৫ সালের ১০ মার্চ বাগেরহাট সিআইডির উপ পরির্দশক মোঃ শওকত হোসেন বাদীর দায়েরকৃত মামলার তিন আসামীকেই অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশীট দাখিল করে। দীর্ঘ ১ যুগ ধরে চলা এ মামলায় রবিবার বিকেলে রায় হবে এ খবর শুনে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীসহ নিহতের স্বজনেরা আদালতে ছুটে যান। তবে আসামীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমানিত না হওয়ায় আদালত তিন আসামীকেই খালাশ দেয়।  এ ব্যাপারে বাদী পক্ষের আইনজীবি ও নিহতের ছোট ভাই মামলার বাদি এ্যাডভোকেট খান শফিকুল ইসলাম বলেন, এ রায়ের বিরুদ্ধে তারা উচ্চ আদালতে আপীল করবেন। বাদী পক্ষে মামলা পরিচালনা কারীদের মধ্যে ছিলেন রাষ্ট্র পক্ষোর এপিপি লুৎফর রহমান। অপরদিকে, আসামী পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন এ্যাডভোকেট মো: মাহফুজার রহমান লাহু।

এ জাতীয় আরও খবর

হজযাত্রী নিবন্ধনের সময় বাড়লো

খালেদাকে পদ্মা সেতুতে তুলে নদীতে ফেলে দেওয়া উচিত: প্রধানমন্ত্রী

বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় হত্যা, চারজনের যাবজ্জীবন

সিলেটে বন্যার্তদের পাশে পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ক্লাসরুমে ফ্যান খুলে পড়ে চার ছাত্রী আহত

ঘরে বসে খুব সহজেই করে ফেলুন পার্লারের মতো হেয়ার স্পা

সামরিক সহায়তা চাইলো মিয়ানমারের ছায়া সরকার

হত্যা মামলায় তিন ভাইসহ চারজনের যাবজ্জীবন

এমপির গাড়িবহরে ট্রাকচাপায় লাশ হলেন ছাত্রলীগ নেতা

কান উৎসবে বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের ট্রেইলার, ফ্রান্সের পথে তথ্যমন্ত্রী

শ্রমিকের তীব্র সঙ্কট, বৃষ্টিতে তলিয়ে যাচ্ছে ধান

পল্লবীর অনুপস্থিতিতে ফ্ল্যাটে কে আসতেন, মুখ খুললেন পরিচারিকা