শুক্রবার, ২৭শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

চার্লসটনের খুনির বর্ণবাদী ইশতেহার

news-image

শনিবার একটি ওয়েবসাইটে ওই ইশতেহারের পাশাপাশি পিস্তল ও যুক্তরাষ্ট্রের গৃহযুদ্ধকালে কনফেডারেট সেনাবাহিনীর ব্যবহৃত পতাকা হাতে রুফের ছবিও পাওয়া গেছে। এই ওয়েবসাইটটি কার তৈরি বা ছবিগুলো কে পোস্ট করেছে এবং সেগুলোর সত্যাসত্য তাৎক্ষণিকভাবে নিশ্চিত করতে পারেনি বার্তা সংস্থা রয়টার্স। ওয়েবসাইটে দেওয়া ওই বর্ণবাদী ইশতেহারে শ্বেতাকায়দের শ্রেষ্ঠত্বের বিষয়ে লেখকের ধারণা প্রকাশ পেয়েছে। আফ্রিকান-আমেরিকানদের সঙ্গে করা আচরণ নিয়ে কোনো অনুশোচনার কারণ নেই বলে দাবি করেছেন ইশতেহার লেখক। নির্দিষ্ট না করা কিছু পদক্ষেপ গ্রহণের মাধ্যমে লেখক ‘উদাহরণ’ স্থাপন করবেন বলে লেখায় প্রকাশ পেয়েছে।  এতে বলা হয়েছে, “আমরা অন্য কোনো পছন্দ নেই। আমি চার্লসটনকে বেছে নিয়েছি কারণ আমার রাজ্যে এটিই সবচেয়ে ঐতিহাসিক শহর, এবং এক সময় দেশের মধ্যে এখানেই শ্বেতাঙ্গদের অনুপাতে কৃষ্ণকায়দের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি ছিল।” রুফের হাতের ওই কনফেডারেট পতাকার মাধ্যমে এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসের সংশ্লিষ্টতাও প্রকাশ পেয়েছে। 
গৃহযুদ্ধকালে (১৮৬১-১৮৬৫) দাসপ্রথা বিলোপের প্রশ্নে যুক্তরাষ্ট্র বিভক্ত হয়ে পড়েছিল। দেশটির দক্ষিণের ১১টি রাজ্য কেন্দ্রের দাসপ্রথা বিলোপের সিদ্ধান্তের বিপক্ষে দাসপ্রথার পক্ষে অবস্থান নিয়ে বিদ্রোহ ঘোষণা করেছিল। বিদ্রোহী এই রাজ্যগুলো নিজেদের কনফেডারেট স্টেট অব আমেরিকা বলে ঘোষণা করেছিল।  
এই কনফেডারেট রাজ্যগুলোর সেনাবাহিনীর পতাকাই কনফেডারেট পতাকা হিসেবে পরিচিত। দাস প্রথার পক্ষে থাকায় এই পতাকার সঙ্গে বর্ণবাদের সম্পর্ক আছে বলে ধরে নেওয়া হয়। 
বন্দর শহর চার্লসটন থেকেই সেই গৃহযুদ্ধের সূচনা হয়েছিল। এখানে কনফেডারেট বাহিনীর হামলা চালিয়ে কেন্দ্রীয় বাহিনীর একটি দুর্গ দখল করে নিয়েছিল।  রুফের ছবিগুলোর মধ্যে কনফেডারেট সামরিক বাহিনীর জাদুঘর ও তুলার ক্ষেত্রে কাজ করা দাস শ্রমিকদের সংরক্ষিত বাড়ির সামনে তোলা ছবিও পাওয়া গেছে। রুফের ছবিগুলোর মধ্যে স্থানীয় এমন কিছু বিশেষ জায়গা বেছে নেয়া হয়েছে যেগুলোতে চালর্সটন শহরের বর্ণবাদী অতীতকে তুলে ধরা হয়েছে। এসব ছবির মাধ্যমে শহরটির কৃষ্ণাঙ্গ সমাজকে আফ্রিকান-আমেরিকান অতীত মনে করিয়ে দিয়ে স্পর্শকাতর একটি ইস্যুকে চাঙ্গা করার চেষ্টা করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। চার্লসটনের আফ্রিকান-আমেরিকানদের ইমানুয়েল মেথডিস্ট গির্জায় গিয়ে নয়জনকে হত্যায় ২১ বছর বয়সী শ্বেতকায় তরুণ রুফের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়েছে। বুধবার রাতের ওই হত্যাকান্ডের পর বৃহস্পতিবার তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। ঐতিহাসিক ওই গির্জায় গুলিবর্ষণ শুরু করার ঘন্টাখানেক আগে রুফ সেখানে প্রবেশ করে কৃষ্ণকায়দের বাইবেল স্টাডি গোষ্ঠীর সঙ্গে সময় পার করেন বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। ছবিগুলোর একটির মধ্যে দশমিক ফোর ফাইভ ক্যালিভারের পিস্তল হাতে রুফকে দেখা গেছে, গির্জার হত্যাকাণ্ডেও একই ধরনের অস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।তদন্তকারীরা ওয়েবসাইটটি আমলে নিয়ে এর নির্ভরযোগ্যতা যাচাই করার পদক্ষেপ নিয়েছে বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের অভ্যন্তরীণ তদন্ত সংস্থা এফবিআই।