বুধবার, ১৮ই মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মুজাহিদের সঙ্গে দেখা করবেন আইনজীবীরা

news-image

একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে মৃত্যুদ-প্রাপ্ত আসামি জামায়াতের সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মুহাম্মাদ মুজাহিদের সঙ্গে শনিবার দেখা করছেন তার আইনজীবীরা। একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের দেয়া ফাঁসির আদেশের পর আপিল বিভাগও এই জামায়াত নেতার ফাঁসি বহাল রেখেছেন। বিগত চারদলীয় জোট সরকারের মন্ত্রী মুজাহিদ বর্তমানে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে রয়েছেন।

অ্যাডভোকেট শিশির মনিরের নেতৃত্বে পাঁচজন আইনজীবী শনিবার বেলা ১১টায় মুজাহিদের সঙ্গে দেখা করবেন বলে জানা গেছে। শিশির মনির ছাড়া বাকি আইনজীবীরা হলেন- সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী অ্যাড. মশিউল আলম, কামাল উদ্দিন, নজিবুর রহমান এবং মতিউর রহমান আকন্দ। বিষয়টি সাংবাদিকদের জানিয়েছেন অ্যাডভোকেট শিশির মনির।

জানতে চাইলে শিশির বলেন, ‘আপিল বিভাগের চূড়ান্ত রায়ের বিষয়ে কথা বলতে আমরা মুজাহিদ সাহেবের সঙ্গে দেখা করবো। রায়ের পুরো বিষয়টি নিয়ে আমরা তার সঙ্গে আলোচনা করবো।’ তিনি বলেন, ‘ট্রাইব্যুনালের রায়ের বিষয়ে আমরা আপিল বিভাগে কী কী যুক্তি উপস্থাপন করেছি সে বিষয়গুলো নিয়েও তার সঙ্গে কথা হবে।’

২০১৩ সালের ১৭ জুলাই আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২ মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে মুজাহিদকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদ- কার্যকর করার আদেশ দিয়েছিলেন। ওই রায় চ্যালেঞ্জ করে সর্বোচ্চ আদালতে আসেন মুজাহিদের আইনজীবীরা। গেল মঙ্গলবার সর্বোচ্চ আদালত ট্রাইব্যুনালের রায় বহাল রাখেন। তবে প্রসিকিউশনের আনা সাতটি অভিযোগের মধ্যে ট্রাইব্যুনাল তাকে তিনটিতে মৃত্যুদ- দিলেও আপিল বিভাগ শুধুমাত্র ষষ্ঠ অভিযোগে অর্থাৎ বুদ্ধিজীবী হত্যার দায়ে ট্রাইব্যুনালের রায় বহাল রেখেছেন।

আপিল বিভাগের এই রায় আসার পর তা পুনর্বিবেচনার (রিভিউ) আবেদন করা হবে বলেও ওইদিনই (মঙ্গলবার) জানান তার আইনজীবী খন্দকার মাহাবুব হোসেন।

মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলার আসামিদের মধ্যে মুজাহিদ হলেন চতুর্থজন আপিল বিভাগে যার মামলার নিষ্পত্তি হলো। এরআগে এই পর্যায়ে মামলা নিষ্পত্তি হওয়ার পর ইতোমধ্যে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে রায় কার্যকর করা হয়েছে জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মুহাম্মদ কামারুজ্জামান ও কাদের মোল্লার। এছাড়া ট্রাইব্যুনালের দেয়া মৃত্যুদ-াদেশের আদেশ কমিয়ে জামায়াতের নায়েবে আমির দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীকে আমৃত্যু কারাদ- দিয়েছেন আপিল বিভাগ।

রিভিউয়েও যদি মুজাহিদের ফাঁসির আদেশ বহাল থাকে তবে ওই শাস্তি থেকে বাঁচতে তার সামনে খোলা থাকবে কেবল একটি রাস্তা- রাষ্ট্রপতির ক্ষমা পাওয়া। তবে তার জন্য তাকে রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করতে হবে যা করেননি কামারুজ্জামান ও কাদের মোল্লা।

এ জাতীয় আরও খবর

বাংলাদেশকে লিডের স্বপ্ন দেখাচ্ছেন তামিম-মুশফিক-লিটন

দেশের শীর্ষ ৫ ব্যাংকের একটি হওয়ার লক্ষ্য এনসিসি ব্যাংকের

এআইইউবি রোবোটিক দলকে পৃষ্ঠপোষকতা ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের

গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে প্রবাসীর স্ত্রীর ‘আত্মহত্যা’

সুনামগঞ্জে পাহাড়ি ঢলে যোগাযোগ-বিচ্ছিন্ন

নাতির সঙ্গে ধস্তাধস্তিতে দাদার মৃত্যু

ট্রেনের টয়লেট থেকে বৃদ্ধের মরদেহ উদ্ধার

হামলায় মাথা ফাটল ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীর

প্রেমিকার বাড়ির পাশে প্রেমিকের ক্ষত-বিক্ষত লাশ

ওষুধ খাইয়ে স্বামীকে ঘুম পারান স্ত্রী, গলাটিপে হত্যা করেন পরকীয়া প্রেমিক

আকস্মিক ধুলি-ঝড়ে বিপর্যস্ত সৌদির রাজধানী রিয়াদ

রিয়াজের মাছ ধরা নিয়ে চলছে হাসিঠাট্টা